ত্রিপুরায় তৃণমূলের সঙ্গে জোট করতে পারে সিপিএম? সম্ভাবনা নস্যাৎ না করে সীতারাম বললেন…

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: ঋদ্ধীশ দত্ত

Updated on: Aug 13, 2021 | 6:29 PM

CPIM: কলকাতায় দু'দিনের বৈঠকের পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে পক্ষান্তরে তিনি বুঝিয়ে দেন, বিধানসভা ভোটে তৃণমূল ও বিজেপিকে একাসনে বসিয়ে 'বিজেমূল' তত্ত্ব প্রয়োগ করা ভুল ছিল।

ত্রিপুরায় তৃণমূলের সঙ্গে জোট করতে পারে সিপিএম? সম্ভাবনা নস্যাৎ না করে সীতারাম বললেন...
জোট জল্পনায় জল দিলেন সীতারাম

কলকাতা: বিধানসভা নির্বাচনে যা হয়েছে তা অতীত। আসন্ন ২০২৪ সালের কথা মাথায় রেখে এ বার নতুনভাবে পথ চলা শুরু করতে চায় সিপিএম। রাজ্য কমিটির বৈঠকের দ্বিতীয় দিনে স্পষ্টভাবে এই বার্তাই দিতে চাইলেন দলের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। কলকাতায় দু’দিনের বৈঠকের পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে পরোক্ষে তিনি বুঝিয়ে দেন, বিধানসভা ভোটে তৃণমূল ও বিজেপিকে একাসনে বসিয়ে ‘বিজেমূল’ তত্ত্ব প্রয়োগ করা ভুল ছিল। নির্বাচনের আগে সংযুক্ত মোর্চার গঠন হলেও তার স্থায়িত্ব নিয়ে এ দিন ধোঁয়াশা বজায় রেখেছেন সীতারাম। পাশাপাশি ত্রিপুরায় অদূর ভবিষ্যতে সিপিএম তৃণমূলের সঙ্গে জোট করতে পারে কি না, সেই সম্ভাবনাও ক্ষীণভাবে জিইয়ে রেখেছেন।

সিপিএমের রাজ্য কমিটির বৈঠকেও উঠে এসেছিল বিজেমূল স্লোগান প্রসঙ্গ। এই ধরনের স্লোগানের ব্যবহার আদৌ ন্যায় এবং যুক্তিসঙ্গত কি না, সেই নিয়েও উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয় দলের অন্দরে। প্রশ্ন ওঠে নেতৃত্বের আচরণ নিয়েও। বৃহস্পতিবারের বৈঠকে সীতারাম রীতিমতো ক্ষোভপ্রকাশ করে জানতে চান, কার গাফিলতিতে এমন শোচনীয় ফলাফল হল। এ দিন অবশ্য সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি জানান, ভোটের সময় যা স্লোগান দেওয়া হয়েছিল, বা যেভাবে প্রচার করা হয়েছিল, তা নির্বাচনী প্রেক্ষিত মাথায় রেখে। এখন পরিস্থিতির পরিবর্তন হয়েছে। তাই আগের অবস্থান থেকে সরে আসার প্রয়োজন রয়েছে বলেও তিনি ইঙ্গিত দেন।

ইয়েচুরির সাফ কথা, ভোটের বাইরেও বৃহত্তর রাজনীতির একটা প্রেক্ষাপট রয়েছে। আর সেখানে সবাই মিলেই বিজেপিকে আটকাতে হবে। মোদী সরকার আসার পর ২০১৬ সালেই যে বিরোধী জোটের বৈঠকে একসঙ্গে বিজেপির বিরুদ্ধে লড়ার প্রস্তাব সিপিএম নিয়েছিল, সেটাও মনে করিয়ে দেন তিনি। আপতত বিজেপিকে হারানোই মূল লক্ষ্য, স্পষ্টভাবেই জানান সীতারাম। সরাসরি না বললেও, বিজেপিকে ঠেকাতে যে অন্য দলের (তৃণমূল) সঙ্গেও ভবিষ্যতে তাঁরা জোটে যেতে পারেন, সেই জল্পনাও জিইয়ে রাখেন।

এ রাজ্যের শাসকদল যেভাবে ত্রিপুরায় ক্রমশ আগ্রাসী মনোভাব নিচ্ছে, তাও নজর কেড়েছে সিপিএমের। দক্ষিণ-পূর্বের এই রাজ্যে আড়াই দশক শাসন করলেও সেই বিজেপিই তাদের ক্ষমতাচ্যুত করেছে সেখান থেকে। আর বামেদের ভেঙে পড়া শক্ত ঘাঁটিতে নিজেদের দূর্গ বানাতে সক্রিয়তা শুরু করেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়রা। তবে রাজনৈতিক মহলের একটা বড় অংশের মতে, আগামী বিধানসভা নির্বাচনের আগে ২ বছরের মধ্যে তৃণমূল সংগঠন বাড়াতে সক্ষম হলেও, একক দক্ষতায় জেতার মতো অবস্থা তৈরি করা কিছুটা মুশকিল হবে। সেক্ষেত্রে বামেদের সঙ্গে জোটই একমাত্র পথ খোলা থাকছে। তৃণমূল যদিও এমন কোনও সম্ভবনার কথা উড়িয়ে দিয়েছে। তবে সীতারাম এ দিন কিছুটা হলেও ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্যের মাধ্যমে জল্পনা বাঁচিয়ে রেখেছেন।

তাঁর কথায়, “ত্রিপুরায় তৃণমূল থেকে সবাই বিজেপিতে গিয়েছিল। আমরাই বিজেপির বিরুদ্ধে আছি। আমরাই মার খাচ্ছি। তবে নির্বাচন এখনও বাকি আছে। গঙ্গা দিয়ে অনেক জল বইবে। বিজেপিকে হারানোই আমাদের পার্টির মূল লক্ষ্য।”

সংযুক্ত মোর্চার ভবিষ্যৎ কী হবে, তা নিয়েও এ দিন জল্পনা বেড়েছে ইয়েচুরির কথায়। তাঁকে বলতে শোনা যায়, “সংযুক্ত মোর্চা ভোটের প্রয়োজনে তৈরি হয়েছিল। এটা কোনও স্থায়ী বিষয় নয়। সংযুক্ত মোর্চা নির্বাচনী জোট। এখন নির্বাচন হয়ে গেছে। তারা (কংগ্রেস, আইএসএফ) আগামী দিনে চাইলে জোট হবে। সেটা আইএসএফ হোক অথবা কংগ্রেসই হোক।” আরও পড়ুন: ফিল্মি কায়দায় দরজা ভেঙে বিজেপি নেতাকে গ্রেফতার করল পুলিশ, চরম উত্তেজনা মুচিপাড়ায়

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla