Ladakh: আগাম বুকিং ছাড়া থাকা যাবে না লাদাখের এই জায়গায়! নয়া নির্দেশিকা

Ladakh: আগাম বুকিং ছাড়া থাকা যাবে না লাদাখের এই জায়গায়! নয়া নির্দেশিকা

Ladakh Tourism Department: সম্প্রতি পর্যটকের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় লাদাখে থাকার জায়গার প্রচুর ঘাটতি দেখা গিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে নয়া নির্দেশিকা জারি করেছে লাদাখ পর্যটন বিভাগ।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: dipta das

Jun 22, 2022 | 6:37 PM

করোনার স্বাস্থ্যবিধি শিথিল হওয়ার পর দলে দলে কাশ্মীর উপত্যকায় ভিড় করেছেন কৌতূহলী পর্যটকরা। বিশেষ করে লাদাখের (Ladakh) বিভিন্ন এলাকায় রেকর্ড হারে বৃদ্ধি পেয়েছে পর্যটকের সংখ্যা। ভিড়ের চাপ এতটাই বেশি হয়ে যায় যে পর্যটকরা সেখানে পৌঁছেও থাকার জায়গা পাচ্ছিলেন না। তবে এবার যদি লাদাখ ভ্রমণের পরিকল্পনা করে থাকেন, তাহলে আগাম কিছু নয়া তথ্য জেনে রাখুন। মরসুমে লাদাখ এলাকায় যথেষ্ট পর্যটকের ভিড় থাকে। তাই গরমের ক্লান্তি মেটাতে হিলাময়ের কোলে অবস্থিত এই সুন্দর জায়গায় দেশের সব প্রান্ত থেকেই কৌতূহলীরা ভিড় করেন। লাদাখের অন্যতম জনপ্রিয় গন্তব্যস্থল হল প্যাংগং লেক (Pangong Lake)। নীল জলের হ্রদের চারিপাশে অসাধারণ প্রাকৃতিক দৃশ্যে যে কোনও মানুষের মন ছুঁয়ে যায়।

সম্প্রতি পর্যটকের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় লাদাখে থাকার জায়গার প্রচুর ঘাটতি দেখা গিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে নয়া নির্দেশিকা জারি করেছে লাদাখ পর্যটন বিভাগ। আগাম বুকিং না করা থাকলে প্যাংগং লেক এলাকায় থাকার পরিকল্পনা বাতিল করা যাবে বলে ঘোষণা করে হয়েছে ওই নির্দেশিকায়। প্যাংগং লেক বেশ জনপ্রিয়। এখানে রয়েছে বন্যপ্রাণীদের আবাসস্থল। ফলে থাকার জায়গা সীমিত।

শুধু তাই নয়, খারদোংলা, চাংলা, প্যাংগং লেক, পেনজালার মতো অতি উচ্চতার এলাকায় যাওয়ার ক্ষেত্রেও নির্দেশিকায় বিশেষ পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। বন্যপ্রাণীদের যাতে কোনও রকম অসুবিধা না হয়, তার জন্য লে-তে পৌঁছে দু’দিন কাটানোর পরে এই সমস্ত জায়গায় ভ্রমণ করা যেতে পারে, এমনটাই নির্দেশ দিয়েছে লাদাখ পর্যটন বিভাগ। পর্যটকদের লাদাখে নিরাপদ এবং আনন্দদায়ক থাকার জন্য এই পরামর্শগুলি জারি করা হয়েছে। লাদাখে ঘুরে বেড়ানোর সর্বোত্তম উপায় হল স্থানীয় ট্যাক্সি বুক করা। আপনাকে স্থানীয় নিয়ম-কানুন এবং নতুন এবং অপরিচিত জায়গায় গাড়ি চালানোর ক্ষেত্রে অনেক ঝামেলা থেকে বাঁচাবে।

এই খবরটিও পড়ুন

প্রসঙ্গত, প্যাংগং লেক অভ্যন্তরীণ এবং আন্তর্জাতিক উভয় ক্ষেত্রেই একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান। হ্রদটি ভারত এবং চিন সীমান্তে অবস্থিত। হ্রদের ভারতীয় অংশ মোট হ্রদ এলাকার এক-তৃতীয়াংশ। দুই-তৃতীয়াংশ চিনের অধীনে পড়ে। বলাই বাহুল্য, পরিবেশগত, রাজনৈতিক এবং সাংস্কৃতিকভাবেএলাকাটি অত্যন্ত সংবেদনশীল একটি পর্যটনকেন্দ্র।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA