Ladakh: লেহ-লাদাখে নয়া নিয়ম! ৪৮ ঘণ্টার এই অগ্নিপরীক্ষায় পাশ না করলে বাতিল হবে যাত্রা

Travel in India: পাহাড়ে যত উঁচুতে উঠা যাবে, তত অক্সিজেনের মাত্রা কমতে থাকবে। সেখানে বাতাসের চাপও ধীরে ধীরে কম হতে শুরু করে। এরফলে ক্লান্তি, শ্বাসকষ্ট, মাথা ঘোরা, বমি বমি ভাব ইত্যাদির মত শারীরিক সমস্যা দেখা যায়।

Ladakh: লেহ-লাদাখে নয়া নিয়ম! ৪৮ ঘণ্টার এই অগ্নিপরীক্ষায় পাশ না করলে বাতিল হবে যাত্রা
TV9 Bangla Digital

| Edited By: dipta das

Jun 04, 2022 | 5:13 PM

হিমালয়ের বুকে স্বপ্নের গন্তব্য নৈসর্গিক লে-লাদাখ (Leh-Ladakh)। ভারতের মানচিত্রের উত্তরের জম্মু ও কাশ্মীর (Jammu And Kashmir) ও লাদাখ দুটি নয়া কেন্দ্রশাসিত এলাকা এখন পর্য়টকদের সবচেয়ে বেশি আকর্ষণীয় গন্তব্যস্থল। সফরপ্রেমীদের কাছে লে-লাদাখ হল রোমাঞ্চকর ট্যুরের সাক্ষী থাকা। শিল্পীর ক্যানভাসের মত মেঘমুক্ত নীল ঘন আকাশ, হিমালয়ের শুষ্ক ও শীতল পাথুরে মরুভূমি, দূরে হাতছানি দিচ্ছে বরফে ঢাকা পর্বতশিখর, যেদিকে চোখ যায়, সেদিকে শুধুই রঙিন পাহাড়ের ঢেউ আর নীল জলের হ্রদের ছবির প্রতি এক অমোঘ আকর্ষণ কাজ করে।

দুর্গম ও শীতল আবহাওয়ার বুক চিরে কালো সর্পিল রাস্তা দিয়ে মোটরসাইকেল বা গাড়ি করে ভ্রমণের অভিজ্ঞতা সারা জীবনের মনের খাতায় নাম তুলে রাখবে। অ্যাডভেঞ্চার যাঁরা ভালবাসেন ,তাদের কাছে লেহ- লাদাখ একটি ড্রিম প্রোজেক্ট। বাঙালির মনেও লাদাখ থাকে ভ্রমণতালিকার সবার আগে। লাদাখ যাওয়ার পরিকল্পনা করলে এবার একটু তথ্য ঘেঁটে তবেই যান। কারণ, পর্যটকদের স্বাস্থ্যের কথা ভেবে নয়া নিয়ম চালু করেছে লাদাখ জেলা প্রশাসন।

দেশের শীতলতম এলাকা লাদাখে ভ্রমণের জন্য এবার আরও ২দিন বেশি সময় লাগতে পারে। সম্প্রতি একটি নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, লেহ ও লাদাখ ভ্রমণকারীদের ভ্রমণ করার আগে ৪৮ ঘণ্টা একটি পরীক্ষায় উর্ত্তীণ হতে হবে। শীতল ও রুক্ষ এলাকায় পর্যটকরা আদৌও কতটা মানিয়ে নিতে পারছেন, আদৌও ভ্রমণ করার যোগ্যতা রয়েছে কিনা, তা যাচাই তরাক জন্যই এই নি.মতে বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এই নির্দেশিকার মূল কারণ হল, যে কোনও ধরনের অ্যাকুয়েট মাউন্টেন সিকনেসকে প্রতিরোধ করে পর্যটকরা ভ্রমণ হাসিল করতে পারেন।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি লাদাখে সফরকারীদের মধ্যে অ্যাকুয়েট মাউন্টেন সিকনেসের প্রবণতা বেড়ে গিয়েছে। অসুস্থ হয়ে পড়ায় বেশ কয়েকজনকে স্থানীয় হা,রাতেল ভরতি করিয়ে চিকিত্‍সা চালানো হয়েছে। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৩৫০০ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত লেহ-লাদাখ আদতে অসুস্থদের জন্য উপযুক্ত নয়। বিশেষ করে যারা বিমানে করে ভ্রমণ করেন, তাদের জন্য এমন অসুস্থ হয়ে পড়া একটি সাধারণ সমস্যা তৈরি হয়েছে। লাদাখ অটোনোমাস হিল ডেভেলপমেন্ট কাউন্সিলের (LAHDC) চিফ এক্সিকিউটিভ কাউন্সিলর তাশি গ্যালসন একটি বৈঠকে জানিয়েছেন, লেহ এলাকায় ভ্রমণ করার অনেক সমস্যা রয়েছে। এগুলি নিয়ে আলোচনা করার জন্য ট্য়ুরিজম ইন্ডাস্ট্রি ও স্টেকহোল্ডার কর্মকর্তারাও অন্তর্ভুক্ত ছিলেন।

সেই বৈঠকে, পর্যটকদের কথা মাথায় রেখে চিকিত্‍সায় জরুরি অবস্থাগুলিকে আরও ভালভাবে যাতে ব্যবস্থা করা যায়, তার জন্য প্রয়োজনীয় সমস্যার উপর জোর দেওয়ার কথা হয়েছে। এও বলা হয় যে, মরসুমের সময় সফরকারীদের পর্যটনের জন্য জেলা প্রশাসন কর্তৃক নির্দেশিত নিয়মগুলি যথাযথভাবে মেনে চলতে হবে। ভ্রমণের সময় কীভাবে দুর্যোগ মোকাবিলা করতে হয়, জরুরি অবস্থায় কী কী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়, তা নিয়ে স্থানীয় ও পর্য়টকদের মধ্যে একটি প্রচারাভিযান শুরু করার পরিকল্পনা করা হয়েছে।

কেন এটি গুরুত্বপূর্ণ?

এই খবরটিও পড়ুন

যখন কোনও একজন ব্য়ক্তি উচ্চতম গন্তব্যে পৌঁছায় তখন অ্যাকুয়েট মাউন্টেন সিকনেস দেখা যায়। পাহাড়ে যত উঁচুতে উঠা যাবে, তত অক্সিজেনের মাত্রা কমতে থাকবে। সেখানে বাতাসের চাপও ধীরে ধীরে কম হতে শুরু করে। এরফলে ক্লান্তি, শ্বাসকষ্ট, মাথা ঘোরা, বমি বমি ভাব ইত্যাদির মত শারীরিক সমস্যা দেখা যায়। সাধারণত একটি জায়গায় পৌঁছানোর কয়েক ঘণ্টা পর এই সমস্যাগুলি দেখা যায়। এই ধরণের সমস্যাগুলি অড়ানোর জন্য প্রশাসন পর্যটকদের বাধ্যতামূলক ভাবে একটি নির্দেশ মেনে চলার অনুরোধ করেছে। যদি কোনও ব্যক্তি বা পর্যটক, এমন কঠিন পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারে, পৌঁছানোর পর ব্যক্তিকে বিশ্রাম দেওয়ার পর যদি শরীর অক্সিজেনের মাত্রা কম থাকে ও হাইড্রেটেড রাখতে অক্ষম হয়, তাহলে তার লাদাখ ভ্রমণ বাতিল করা হবে।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla