EVage: ভারতে বৈদ্যুতিক ভ্যান তৈরির জন্য ২৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ পেল ইভেজ

ইভেজ মূলত একটি বাণিজ্যিক গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থা। এই মুহূর্তে বিভিন্ন ই-কমার্স ও লজিস্টিক্স সংস্থার জন্য ইলেকট্রিক ডেলিভারি ভ্যান তৈরি করছে ইভেজ। সেই তালিকায় রয়েছে অ্যামাজনও।

EVage: ভারতে বৈদ্যুতিক ভ্যান তৈরির জন্য ২৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ পেল ইভেজ
ঠিক এমনই দেখতে ইভেজ-এর ডেলিভারি ভ্যান

ভারতের ইলেকট্রিক ভেহিকল স্টার্ট-আপ ইভেজ (EVage) সম্প্রতি বড়সড় বিনিয়োগ পেল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে। ইভেজ মূলত একটি বাণিজ্যিক গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থা। এই মুহূর্তে বিভিন্ন ই-কমার্স ও লজিস্টিক্স সংস্থার জন্য ইলেকট্রিক ডেলিভারি ভ্যান (Electric Delivery Van) তৈরি করছে ইভেজ। সেই তালিকায় রয়েছে অ্যামাজনও। সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ফার্ম রেডব্লু ক্যাপিটাল-এর কাছ থেকে ২৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ পেয়েছে ভারতের এই স্টার্ট-আপ সংস্থা (Indian Start-Up)। শুক্রবার ১৫ জানুয়ারি সংস্থার তরফ থেকে একটি প্রেস বিবৃতি জারি করে এই খবরটি জানানো হয়েছে।

ইভেজ-এর প্রতিষ্ঠাতা এবং চিফ এগজ়িকিউটিভ অফিসার ইন্দরবীর সিং সংবাদমাধ্যম রয়টার্সের কাছে জানিয়েছেন, এই বিনিয়োগ উত্তর ভারতে সংস্থার কারখানা তৈরি করতে কাজে লাগবে, যেখান থেকে অন্তত ১০০০ গাড়ি ডেলিভার করা যাবে। এই মুহূর্তে সংস্থার কাছে বিপুল পরিমাণ গাড়ির অর্ডার রয়েছে। কিন্তু সংখ্যাটা খোলসা করেননি ইন্দরবীর। তবে একটা কথা পরিষ্কার করে দিলেন যে, এই মুহূর্তে তাঁর স্টার্ট-আপ একাধিক সংস্থার সঙ্গে কাজ করছে এবং তাদের মধ্যে অন্যতম হল অ্যামাজন। প্রসঙ্গত, চলতি বছরেই ওয়ান-টোন ইলেকট্রিক ভ্যান লঞ্চ করতে চলেছে ইভেজ।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতা রিভিয়ান এবং যুক্তরাজ্যে অ্যারাইভাল-এর মতো ইভেজও ক্লিনার মোবিলিটির জন্য ডেলিভারি কোম্পানিগুলির দ্বারা বিশ্বব্যাপী পরিবর্তনের উপর বাজি ধরছে। মার্কিন যে সংস্থার কাছ থেকে এই বিপুল বিনিয়োগ পেয়েছে ইভেজ, সেই রেডব্লু ক্যাপিটাল-এর জেনারেল পার্টনার ওলাফ স্যাকার্স বলছেন, “ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে বিভিন্ন গাড়ি-সহ আরও অন্যান্য ভারী পণ্য যদি বড় বড় বৈদ্যুতিক যানের মাধ্যমে পৌঁছে দেওয়া যায়, তাহলে এই অংশটি সামগ্রিক ভাবে বিদ্যুতায়নে পরিণত করার একটি বিরাট সুযোগ রয়েছে।”

ভারতে ডেলিভারির জন্য ২০২৫ সালের মধ্যেই ১০,০০০ ইলেকট্রিক ভেহিকল যোগ করা হবে বলে লক্ষ্যমাত্রা স্থির করেছে অ্যামাজন। অন্য দিকে ফ্লিপকার্ট ভারতে প্রডাক্ট ডেলিভারি করার জন্য ২০৩০ সালের মধ্যে নিজেদের ডেলিভারি ফ্লিটে ২৫,০০০ ইলেকট্রিক ভেহিকল যোগ করার টার্গেট বেঁধে নিয়েছে। এই মুহূর্তে দেশে একটিই মাত্র সংস্থা রয়েছে, যারা কমার্শিয়াল ইলেকট্রিক ভেহিকল অর্থাৎ ভ্যানের মতো বৈদ্যুতিক গাড়ি প্রস্তুত করে থাকে। আর সেটি হল ইভেজ।

পশ্চিমের দেশগুলির তুলনায় ভারত-সহ দক্ষিণ পূর্ব এশিয়া, আফ্রিকা এবং লাতিন আমেরিকার মার্কেটে ইলেকট্রিক গাড়ির দাম ও ক্যাপাসিটি, রাস্তার পরিস্থিতি এবং আবহাওয়ার উপরে বিচার করেই ইলেকট্রিক ভেহিকল সেগমেন্টে আরও বিনিয়োগ করতে উদ্যোগী হচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের বিনিয়োগকারীরা, জানালেন ওলাফ স্যাকার। তাঁর কথায়, “রিভিয়ান ও অ্যারাইভাল তাদের মার্কেটে যেমন দাপিয়ে ব্যবসা করছে, ঠিক সেই ভাবেই ইভেজ ভারতে দুর্দান্ত ব্যবসা করতে সক্ষম হবে বলেই আমাদের বিশ্বাস।”

আরও পড়ুন: ৫০সিসির এই দুই স্কুটার লঞ্চ করল হন্ডা, কম খরচে বিরাট মাইলেজ, দুরন্ত কিছু ফিচার্স

আরও পড়ুন: এবার টিভিএস-এর ইলেকট্রিক স্কুটার নিয়ে খাবার ডেলিভারি করবেন সুইগি ডেলিভারি পার্টনাররা!

আরও পড়ুন: টেসলা-র প্রথম গাড়ি ভারতে কবে আসছে? আপডেট দিলেন খোদ এলন মাস্ক

Published On - 11:05 pm, Sat, 15 January 22

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla