Swiggy And TVS Motors: এবার টিভিএস-এর ইলেকট্রিক স্কুটার নিয়ে খাবার ডেলিভারি করবেন সুইগি ডেলিভারি পার্টনাররা!

অ্যামাজন, ফ্লিপকার্ট এবং সুইগি-র প্রতিযোগী জ়োম্যাটো-র মতো তিন নামজাদা সংস্থা ইতিমধ্যেই প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছে যে, ২০৩০ সালের মধ্যে সংস্থাগুলির ডেলিভারি ইউনিট সম্পূর্ণ ভাবে ইলেকট্রিক ভেহিকল দ্বারা প্রতিস্থাপিত হবে। সেই তালিকায় নতুন নাম সুইগি।

Swiggy And TVS Motors: এবার টিভিএস-এর ইলেকট্রিক স্কুটার নিয়ে খাবার ডেলিভারি করবেন সুইগি ডেলিভারি পার্টনাররা!
প্রতীকী ছবি

স্ট্র্যাটেজিক পার্টনারশিপে আবদ্ধ হল ফুড ডেলিভারি জায়ান্ট সুইগি (Swiggy) এবং দেশের অন্যতম জনপ্রিয় গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থা টিভিএস মোটরস (TVS Motors)। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সুইগি-র ডেলিভারি ইউনিটে টিভিএস-এর ইলেকট্রিক দু’চাকা গাড়ি যোগ করা হবে। আর টিভিএস-এর সেই সব ইলেকট্রিক স্কুটার বা মোটরসাইকেল নিয়ে সুইগির ডেলিভারি বয়-রা দেশের বিভিন্ন প্রান্তে খাবার ডেলিভার করবেন। মূলত এই কারণেই গাঁটছড়া বেঁধেছে সুইগি এবং টিভিএস মোটরস-এর (Swiggy And TVS Motors Partnership) মতো জনপ্রিয় দুই সংস্থা। যদিও দ্রুত খাবারদাবার ডেলিভারি করার জন্য টিভিএস মোটরস-এর ইলেকট্রিক বাইকগুলি ঠিক কতটা কার্যকর, তা পরীক্ষা করে দেখবে সুইগি। প্রসঙ্গত, দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সব মিলিয়ে এই মুহূর্তে মোট ২ লক্ষ ডেলিভারি পার্টনার সুইগি-র হয়ে কাজ করেন।

এই পার্টনারশিপের লক্ষ্য নিয়ে সুইগি-র ভাইস প্রেসিডেন্ট অপারেশনস মিহির রাজেশ শাহ বলছেন, “আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছি যে, ২০২৫ সালের মধ্যে ইলেকট্রিক ভেহিকলে করে প্রতিদিন ৮০০,০০ লক্ষ কিলোমিটার কভার করব।” পাশাপাশি এই পার্টনারশিপের ফলে ব্যাপক ভাবে উপকৃত হতে চলেছে টিভিএস মোটরসও। ২০২২ সালের মার্চের মধ্যে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে টিভিএস আইকিউব ইলেকট্রিক দু’চাকা গাড়িটি ছড়িয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে অত্যন্ত কার্যকারী হবে এই স্ট্র্যাটেজিক পার্টনারশিপ। এই ইলেকট্রিক স্কুটার বর্তমানে দেশের ৩৫টি শহরে উপলব্ধ। সেই তালিকায় রয়েছে দিল্লি, বেঙ্গালুরু, চেন্নাই, পুণে এবং কোচির মতো একাধিক শহর।

সুইগি এবং টিভিএস মোটরস-এর এই কৌশলগত অংশিদারিত্বের একটি সমঝোতা স্মারক বা মউ ইতিমধ্যেই স্বাক্ষরিত হয়েছে। টিভিএস মোটর কোম্পানির ফিউচার মোবিলিটি ডিপার্টমেন্টের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মানু সাক্সেনা বলছেন, “সুইগির সঙ্গে আমাদের এই অংশিদারিত্বের বিষয়টি শেষ-মাইল পর্যন্ত খাবার ডেলিভারির পরিষেবার ক্ষেত্রে গতিশীলতার বিদ্যুতায়নকে শক্তিশালী করার জন্য একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। পাশাপাশি এই পার্টনারশিপ গ্রাহককুলের মধ্যে ইলেকট্রিক ভেহিকল সম্পর্কে একটা পজিটিভ ভাবধারা তৈরি করতেও সাহায্য করবে আগামী দিনে।”

অ্যামাজন, ফ্লিপকার্ট এবং সুইগি-র প্রতিযোগী জ়োম্যাটো-র মতো তিন নামজাদা সংস্থা ইতিমধ্যেই প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়েছে যে, ২০৩০ সালের মধ্যে সংস্থাগুলির ডেলিভারি ইউনিট সম্পূর্ণ ভাবে ইলেকট্রিক ভেহিকল দ্বারা প্রতিস্থাপিত হবে। অর্থাৎ প্রত্যেক ডেলিভারি পার্টনারের কাছে থাকবে একটি ইলেকট্রিক মোটরসাইকেল বা স্কুটার। ২০২১ সালের জুনে জ়োম্যাটো-র প্রতিষ্ঠাতা এবং চিফ এগজ়িকিউটিভ অফিসার দীপিন্দর গোয়েল একটি ব্লগ পোস্টে লিখেছিলেন, ডেলিভারি ইউনিট ১০০ শতাংশ ইলেকট্রিক যানবাহনে প্রতিস্থাপিত করা সহজ কাজ নয়। তবে খাবার ডেলিভারি ব্যবসায় লম্বা রেসের ঘোড়া হতে গেলে ইলেকট্রিক যানবাহনকে গ্রহণ করা ছাড়া যে দ্বিতীয় আর কোনও উপায় নেই, সে কথাটাও হাবেভাবে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন গোয়েল।

দিল্লি, বেঙ্গালুরু এবং মুম্বইতে এই মুহূর্তে ইলেকট্রিক বাইক ও স্কুটারের মাধ্যমেই খাবার ডেলিভারি করে থাকেন জ়োম্যাটো-র ডেলিভারি পার্টনাররা। দীপিন্দর গোয়েল জানিয়েছিলেন, সীমিত ব্যাটারি রেঞ্জ, চার্জিং পরিকাঠামোর অভাব, উচ্চতর অগ্রিম খরচা – মূলত এই তিনটি বড় চ্যালেঞ্জের কারণে ইলেকট্রিক যানবাহন আমরা দেশের সমস্ত ডেলিভারি ইউনিটে পৌঁছে দিতে পারছি না।

আরও পড়ুন: টেসলা-র প্রথম গাড়ি ভারতে কবে আসছে? আপডেট দিলেন খোদ এলন মাস্ক

আরও পড়ুন: ২৬ বছর পর ভারতে ইয়েজ়দি-র কামব্যাক! নতুন ৩ মোটরসাইকেলের দাম ও ফিচার্স দেখে নিন

আরও পড়ুন: ধুলো জমা পুরনো সাইকেলটা বদলে E-Cycle পাওয়ার দুর্দান্ত সুযোগ! গোজ়িরো মোবিলিটির এই অফার সম্পর্কে জেনে নিন

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla