অন্নপূর্ণার এক্সটেন্ডেড সংসার

সাড়ে চার জনের সংসারে এখন পাত পড়ছে আরও পনেরো জনের-দু'বেলা। ঠিক পাত পড়ছে বললে ভুল হবে। পাত পৌঁছে যাচ্ছে বাড়ি-বাড়ি। মধ্য বয়সী দম্পতির উদ্যোগ।


স্ত্রীর রান্না স্বামী পৌঁছে দিচ্ছেন করোনা রোগীর বাড়ি-বাড়ি। অন্নপূর্ণার এক্সটেন্ডেড সংসার। সাড়ে চার জনের সংসারে এখন পাত পড়ছে আরও পনেরো জনের-দু’বেলা। ঠিক পাত পড়ছে বললে ভুল হবে। পাত পৌঁছে যাচ্ছে বাড়ি-বাড়ি। মধ্য বয়সী দম্পতির উদ্যোগ। গিন্নি রাঁধছেন, আর সেই লাঞ্চ-ডিনার কর্তা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পৌঁছে দিচ্ছেন আইসোলেশনে থাকা করোনা রোগীদের কাছে। ফোন নম্বর ছড়িয়ে দিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। উত্তর কলকাতার বিস্তীর্ণ অঞ্চলে তাঁরা প্রতিদিন দু’বেলা আপাতত ১৫ জনের লাঞ্চ-ডিনার পৌঁছে দিচ্ছেন। পুরোটাই বিনামূল্যে। কর্তা সকালে বাজার করেন। কিনে আনেন সবজি থেকে মাছ সবকিছুই। গিন্নি সামলান হেঁসেল। বাড়িতে আছেন দুই দুই প্রবীণ: বাবা-মা। তারা অবশ্য ভয় না-পেয়ে সমর্থন করছেন ছেলে-বৌমার এই কাজকে। এমনকি এই কাজে বাবা-মার সঙ্গে হাত লাগিয়েছে ক্লাস।