দেব

দেব

জন্মগত নাম দীপক অধিকারী। তবে আমজনতার কাছে তিনি পরিচিত দেব হিসেবেই। বাংলার প্রথমসারির অভিনেতা তিনি। এ ছাড়াও তাঁর অপর পরিচয় তিনি ঘাটালের তৃণমূল সাংসদ। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলে কংগ্রেসের হয়ে অংশ নিয়ে ব্যাপক ভোটে জয়লাভ করেছিলেন তিনি। ছোটবেলা তাঁর কেটেছে মামাবাড়ি চন্দ্রকোণায়। এর পর বাবার ব্যবসার কারণে মুম্বই চলে যান দেব। বান্দ্রার পুরোষত্তম হাই স্কুল ও পরবর্তীতে পুনের বিদ্যাপিঠ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডিপ্লোমা কোর্স করেন। ছোট থেকেই ইচ্ছা ছিল অভিনেতা হওয়ার। নমিত কাপুরের অভিনয় স্কুল থেকে প্রশিক্ষণও নেন তিনি। সিনে দুনিয়ার সঙ্গে তাঁর প্রথম হাতেখড়ি আব্বাস-মস্তানের ‘টারজান, দ্য ওয়ান্ডার কার’-এর মধ্যে দিয়ে। ওই ছবিতে তিনি কাজ করেছিলেন অবজারভার হিসেবে। মুম্বইয়ে সে ভাবে নিজেকে মেলে ধরতে না পারার পর দেব ফিরে আসেন কলকাতায়। টলিউডে তাঁর ডেবিউ ছবি ‘অগ্নিশপথ’। সেই ছবি যদিও ফ্লপ হয়। তবে দেবের জীবনে মোড় ঘুরিয়ে দেওয়া ছবি হল ‘আই লাভ ইউ’। রবি কিনাগী পরিচালিত ওই ছবির মাধ্যমেই দেবের জন্ম হয় সুপারস্টার হিসেবে। এর পর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। রাজ চক্রবর্তীর ‘চ্যালেঞ্জ’ থেকে শুরু করে ‘সেদিন দেখা হয়েছিল’, ‘পাগলু’, ‘পরাণ যায় জ্বলিয়া রে’, ‘রোমিও’ , ‘রঙবাজ’, ‘দুই পৃথিবী’ নানা ছবির মাধ্যমে টলিউডে নিজের জায়গা পাকা করে নেন তিনি। তাঁর উচ্চারণ নিয়ে কম কটাক্ষের মুখোমুখি হতে হয়নি তাঁকে। যদিও ‘চাঁদের পাহাড়’, ‘বুনো হাঁস’, ‘জুলফিকর’, ‘অ্যামাজন অভিযান’, ‘প্রজাপতি’, ‘বাঘাযতীন’, ‘প্রধান’-এর মধ্যে দিয়ে নিজেকে প্রমাণ করেছেন দেব। তৃনমূল সাংসদ হলেও অন্য দলের নেতা ও কর্মীদের সঙ্গে সদ্ভাব বজায় রাখায় বিশ্বাসী তিনি।

Read More

Suvendu Adhikari: ‘দেবের নামে হিরণকে কী বলেছে আমিও ফাঁস করে দেব’, অভিষেকের পাল্টা হুঁশিয়ারি শুভেন্দুর

BJP-TMC: ঘাটালে তৃতীয়বারের জন্য ভোটে লড়ছেন দেব। তৃণমূলের বিদায়ী সাংসদ তিনি। অন্যদিকে বিজেপি এই কেন্দ্রে প্রার্থী করেছে হিরণকে। যিনি খড়গপুরের বিজেপি বিধায়ক। এক সময় শোনা গিয়েছিল, কলকাতায় অভিষেকের ক্যামাক স্ট্রিটের অফিসে যান হিরণ। এ নিয়ে যথেষ্ট জলঘোলা হয়।

Dev-Abhishek: ‘তুমি অভিমানী হচ্ছ কেন?’ অভিষেকের প্রশ্নে দেব বলেছিলেন…

Ghatal: অভিষেক জানান তিনি দেবকে বলেছিলেন, "এরা মানুষের বাড়ির টাকা আটকে রাখে, কোনওদিন কৃষকের স্বার্থে ঘাটাল মাস্টার প্ল্যান করবে না। আমি মুখ্যমন্ত্রীকে বললাম, দেব যা বলছেন ন্যায়সঙ্গত। আমরা যদি ঘাটাল মাস্টার প্ল্যানের জন্য কেন্দ্রের উপর নির্ভর করি ১০০ বছরেও তা হবে না।"

UPDATE Abhishek Banerjee: ‘আমরাই করব ঘাটাল মাস্টার প্ল্যান’, দেবকে পাশে নিয়ে বললেন অভিষেক

Ghatal: অভিষেক বলেন, ঘাটাল মাস্টার প্ল্যান রাজ্যই করবে, কেন্দ্রের টাকা আর আমাদের লাগবে না। আর এবারও বাড়ির ক্ষেত্রে যে পঞ্চায়েত, যে বিধানসভা থেকে বাংলার লড়াইয়ে মানুষ বাংলার হাত শক্তিশালী করবেন, সেখানকার যাঁরা বাড়ির জন্য আবেদন করেছেন ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রথম ইনস্টলমেন্টের টাকা তাঁদের অ্যাকাউন্টে ঢুকে যাবে। বাংলার সরকার দেবে।

Ghatal: অভিষেকের রোড শোয়ের আগের সন্ধ্যায় ঘাটালে বিজেপিতে ভাঙন, মানলেনই না বিধায়ক

Ghatal: রবিবার ঘাটালের প্রার্থী দেবের সমর্থনে রোড শো করবেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তার আগে শনিবার সন্ধ্যায় ঘাটাল ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস কার্যালয়ে ঘাটালের প্রাক্তন বিধায়ক শঙ্কর দোলইয়ের হাত ধরে ঘাটাল ব্লকের সুলতানপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ২৫ জন যোগদান করেন।

Dev: সেলফি নয়, দেবের কাছে সেতু চাইলেন ঘাটালের মহিলারা

Dev: ঘাটাল ও দাসপুরের মধ্যে দিয়ে বয়ে গিয়েছে শিলাবতী নদী। নদীর একপ্রান্তে ঘাটালের শিলারাজনগর-সহ ঘাটালের একাধিক গ্রাম। আবার অপরপ্রান্তে রয়েছে দাসপুরের গাদিঘাট-সহ একাধিক গ্রাম। ঘাটাল ও দাসপুরের একাধিক গ্রামের সংযোগ স্থাপনকারী শিলাবতী নদীর উপর থাকা বাঁশের সাঁকো।

Dev: ‘চারদিনে যদি এরকম নোংরামো শুরু করে…’ হিরণকে এভাবেই জবাব দিলেন দেব

Dev: দেব আরও বলেন, "তাহলে কি ধরে নেব এখন দু'মাসের মধ্যে কোনও দুর্ঘটনা হলে সেটা দেব করছে বলা হবে? আমার সৌজন্যতা আমার দুর্বলতা নয় কিন্তু। আমি চাইলে হিরণকে বলতেও পারি। তবে ঘাটালের মানুষও বুঝতে পারছে। গত ১০ বছর ঘাটাল লোকসভাকে শান্তিপূর্ণভাবে রেখেছি। শান্তির মেসেজ দিয়েছি।"

Dev in Ghatal: ভোট প্রচারের মাঝেই ঘাটাল মাস্টারপ্ল্যান নিয়ে বড় ‘আপডেট’ দিলেন দেব

Dev in Ghatal: এদিন প্রচারে গিয়ে দেব জানান, আর শুধুমাত্র প্রতিশ্রুতির পর্যায়ে নেই ঘাটাল মাস্টারপ্ল্যান। তা বাস্তবায়িত করার প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে। দেব বলেন, "আমি এবার ভোটে দাঁড়াতাম না। এটা একদম সত্যি। কেবলমাত্র মুখ্যমন্ত্রীর জন্যই দাঁড়িয়েছি ঘাটাল মাস্টারপ্ল্যানের কথা ভেবে।"

TMC Candidate Dev: ৫০ লক্ষ টাকা দেবেন বলেছিলেন দেব! কোথায় গেল? ভোটের আগে পড়ল পোস্টার

TMC Candidate Dev: টাকা যে এখনও পর্যন্ত দেব স্কুল কর্তৃপক্ষকে দেননি, তা স্বীকার করছেন স্কুল পরিচালন কমিটি ও স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা। সেই কারণেই বিজেপি দাবি করেছে যে, দেব কথা রাখেননি। কয়েকদিন আগে প্রচারে এই নিয়ে প্রশ্নের মুখে পড়তে হলে দেব বলেন, বিষয়টি মাথায় আছে। টাকা দেওয়ার আশ্বাসও দেন তিনি।

Hiran vs Dev: ‘দেবের নির্দেশে কোল খালি হয়েছে মায়ের’, বিস্ফোরক হিরণ

Hiran vs Dev: আজ পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যান হিরণ। সেই সময় কার্যত তাঁর পা ধরে কান্নাকাটি শুরু করেন মৃতের মা। সংবাদ মাধ্যমের সামনে তিনি বলেন, "কী বলব বাবা। আমরা তো গরিব মানুষ। খেটে খাই। আমার ছেলে বিজেপি করত। সেই সময় তৃণমূলের লোকজন অনেকবার ধমকিয়েছিল।

Dev: ‘কাউকে ছোট না করেও বড় হওয়া যায়…’, দেবের মুখে কিসের ইঙ্গিত?

Dev: একে সাংসদ, তার উপর টলিউডের নামজাদা স্টার। দেবকে দেখতে গ্রাম-বাংলার মানুষের উৎসাহের অন্ত নেই। প্রচারে বের হতেই রোজই দেখা যাচ্ছে সেই ছবি। এদিনও দাসপুরে দেবকে দেখতে উপচে পড়ল ভিড়।