BJP Leader Join TMC: ভোটের আগে ফুল বদলানো শুভেন্দু ঘনিষ্ঠর হাতে ফের ‘ঘাসফুল’ গুঁজে দলে টানলেন মদন!

Murshidabad: দলবদলু গৌতম রায় জানান, ভোটের আগে বুঝে বিজেপিতে গিয়েছিলাম।

BJP Leader Join TMC: ভোটের আগে ফুল বদলানো শুভেন্দু ঘনিষ্ঠর হাতে ফের 'ঘাসফুল' গুঁজে দলে টানলেন মদন!
মদন মিত্রের হাত ধরে তৃণমূলে যোগদান (নিজস্ব ছবি)

মুর্শিদাবাদ: সামনে পুরভোট। তার আগে ফের দলবদল জেলায়। পদ্ম শিবিরে আবারও ভাঙন। মদন মিত্রের (Madan Mitra) হাত ধরে তৃণমূলে ফিরলেন শুভেন্দু অনুগামী বলে পরিচিত কান্দি পৌরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান গৌতম রায়।

দলবদলের আগে হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপ ছাড়ার রোগ বিজেপির (BJP) আজকের নয়। সায়ন্তন বসু শুরুটা করে দিলেও একে-একে বিভিন্ন জেলার বিভিন্ন নেতা কর্মীরা সেদিনের পর থেকে সেই ট্রেন্ড কিন্তু বজায় রেখেছেন! তবে মুর্শিদাবাদের ক্ষেত্রে এমনটা কিন্তু হয়নি। গ্রুপ ছাড়ার আগেই দলকে ছেড়ে দিলেন বিজেপি নেতারা।

সোমবার পদ্ম ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করেন মুর্শিদাবাদের সাংগঠনিক দক্ষিণ জেলা সম্পাদক তপন চন্দ্র। তার ৪৮ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই, বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিলেন একদা শুভেন্দু (Suvendu Adhikari) ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত কান্দি বিধানসভার বিজেপি নেতা গৌতম রায় ও প্রাক্তন কাউন্সিলর গুরুপ্রসাদ মুখার্জি, ও চন্দন হাজরা।

দেখে নেওয়া যাক ইতিহাস

২০০১ সাল। বিধানসভা নির্বাচন আসছে। ঠিক সেই সময় একই ভাবে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীদের দলবলের হিড়িক বাড়তে থাকে। তখন যদিও ঘাসফুল ছেড়ে পদ্মে যোগদানের হিড়িক পড়ে যায়। সেই সময় শুভেন্দু অধিকারীর হাত ধরে বিজেপিতে যোগদান করেন গৌতম রায়, গুরুপ্রসাদ মুখার্জিরা। এবার বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে হেরে যান গৌতম রায়। তারপর থেকেই কয়েক মাস তাঁকে বিজেপির কোনও কর্মসূচিতে আর দেখা যায়নি। জলঘোলা হয়েছিল ঠিক তখন থেকেই।

আর তারপর ভোট হয়েছে। ফের রাজ্যের শাসনভার গিয়েছে তৃণমূলের কাছে। নদী থেকে বয়ে গিয়েছে অনেক জল। এতদিন পর আজ কলকাতায় গিয়ে মদন মিত্রের হাত ধরে তৃণমূলে যোগদান করেন গৌতম বাবু। দলবদলে ফের নিজের দলে ফিরে এলেন তিনি।

পুনরায় তৃণমূলে যোগ দিয়ে কী বললেন তৃণমূল নেতা?

গৌতম রায় জানান, “ভোটের আগে ভুল বুঝেছিলাম। তাই ভুল করে বিজেপিতে চলে গিয়েছিলাম। তবে এখন বুঝতে পেরেছি। যদি মানুষের উন্নয়ন করতে হয় তাহলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আর অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরেই উন্নয়ন করতে হবে। একমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হলেন উন্নয়নের কান্ডারী।”

এদিকে বিজেপি নেতা গৌরীশঙ্কর ঘোষ বলেন, “বিগত বিধানসভা নির্বাচনের পূর্বে তারা দলবদলে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে এসেছিলেন।এখন যেহেতু বিজেপি ক্ষমতায় আসতে পারেনি সেই কারণে এরা দলত্যাগ করেছে। ক্ষমতার মোহে তারা এসেছে। এর থেকেই বোঝা যাচ্ছে এরা সুবিধাবাদী রাজনীতি করে। সুবিধা নিতেই বিজেপিতে এসেছিলেন। সুবিধা না পাওয়ায় তাই তৃণমূলে ফিরে যাচ্ছেন।”

আরও পড়ুন: Covid in West Bengal: কেন্দ্রের উদ্বেগের তালিকায় রাজ্য, দিল্লি-মুম্বইকে ছাপিয়ে পজিটিভিটি রেট সর্বোচ্চ বাংলায়

আরও পড়ুন: Sushmita Dev on opposition: বিরোধীদের উচিৎ নরেন্দ্র মোদীর ‘বিকল্প মুখ’ তুলে ধরা, মত সুস্মিতা দেবের

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla