কয়লা পাচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছিলেন, রাস্তার ধার থেকে উদ্ধার সিভিক ভলেন্টিয়ারের রক্তাক্ত দেহ

খড়্গপুরের (Kharagpur) হীরাডি থেকে ওই সিভিক ভলেন্টিয়ারের দেহ উদ্ধার হয়।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 11:39 AM, 4 May 2021
কয়লা পাচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছিলেন, রাস্তার ধার থেকে উদ্ধার সিভিক ভলেন্টিয়ারের রক্তাক্ত দেহ
নিজস্ব চিত্র

খড়্গপুর: রাস্তার ধার থেকে সিভিক ভলেন্টিয়ারের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল। খড়্গপুরের (Kharagpur) হীরাডি থেকে ওই সিভিক ভলেন্টিয়ারের দেহ উদ্ধার হয়। মৃতের নাম সুভাষ রায়।

খড়গপুর লোকাল থানা সূত্রে জানা গিয়েছে, সুভাষ রায় সোমবারও কাজে এসেছিলেন। রাতের ডিউটি সেরে ফিরছিলেন তিনি। মঙ্গলবার সকালে হীরাডিতে রাস্তার পাশে তাঁর মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। পরিবারের অভিযোগ, তাঁকে খুন করে রাস্তার ধারে ফেলে দেওয়া হয়েছে।

খড়্গপুরের এসডিপিও দীপক সরকার সহ লোকাল থানার পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য খড়্গপুর মহকুমা হাসপাতাল পাঠিয়েছে। পরিবারের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে এই এলাকায় কয়লা পাচারের কাজ চলত। সেই কাজে অনেকবার বাধা দেন সুভাষ। এমনকি সোমবার কয়লা পাচারকারীদের হুমকির মুখেও পড়েছিলেন সুভাষ। প্রাণনাশের হুমকিও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। সেকথা বাড়িতেও জানিয়েছিলেন সুভাষ। কিন্তু সাহসী, এক রোখা সুভাষ হুমকিতে বিশেষ আমল দেননি। কয়লা পাচারের প্রতিবাদ করাতেই তাঁকে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুন: ভাঙড়ে অব্যাহত হিংসা! তৃণমূল কর্মীদের বাড়ি ভাঙচুর, বোমাবাজির অভিযোগ

উল্লেখ্য, কয়লা পাচারের তদন্তে নেমে এখন জাল গোটানোর চেষ্টা করছেন সিবিআই-ইডি আধিকারিকরা। উঠে এসেছে বড় বড় মাথা, প্রভাবশালীদের নাম। সেই ঘটনার প্রেক্ষিতেই এহেন অভিযোগ বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন তদন্তকারীরা। পরিবারের অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এর পিছনে অন্য কোনও কারণ রয়েছে কিনা, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।