রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, ‘ডিজিটাল স্ট্রাইকের’ পরেও ভারতের সিংহভাগ ব্যবসায় চিন

২০২০ সালে ভারত (India) ও চিনের (China) মধ্যে ব্যবসা হয়েছে ৭ হাজার ৭৭০ কোটি ডলারের।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 16:08 PM, 23 Feb 2021
রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, 'ডিজিটাল স্ট্রাইকের' পরেও ভারতের সিংহভাগ ব্যবসায় চিন
ফাইল চিত্র

নয়া দিল্লি: ২০১৭ এবং ২০১৮ সালেও ভারতের সঙ্গে ব্যবসার সবচেয়ে এগিয়ে ছিল চিন (China)। কিন্তু ট্রাম্প (Donald Trump) আমলে ২০১৯ সালে সেই প্রথম স্থান ছিনিয়ে নেয় আমেরিকা। তারপরেও ২০২০ সালে ফের প্রথম স্থানে উঠে এল ড্রাগন। গালোয়ান সংঘর্ষ থেকে শুরু করে মোদীর ডিজিটাল স্ট্রাইক, দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কে প্রভাব ফেললেও ব্যবসা চলল বুলেট গতিতে।

২০২০ সালে ভারত ও চিনের মধ্যে ব্যবসা হয়েছে ৭ হাজার ৭৭০ কোটি ডলারের। গত বর্ষে প্রথম স্থানে থাকা আমেরিকার সঙ্গে ভারতের ব্যবসা হয়েছে ৭ হাজার ৫৯০ কোটি ডলারের। যার ফলে ২০২০ সালে ভারতের সঙ্গে ব্যবসায় প্রথম স্থানে উঠে এসেছে বেজিং। এর আগে ২০১৭ ও ২০১৮ সালেও ভারতের সঙ্গে ব্যবসায় প্রথম স্থানে ছিল চিন। কিন্তু ২০২০ সালে চিনের প্রথম স্থানে উঠে আসা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ, এই ২০২০ সালের জুন মাসেই গালোয়ানে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে জড়িয়েছিল লালফৌজ ও ভারতীয় সেনা। এরপর টিকটক-সহ প্রায় শ’খানেক চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছিল কেন্দ্র।

গতবর্ষে ভারত চিন থেকে যে পরিমাণ পণ্য আমদানি করেছে, তা আমেরিকা ও সংযুক্ত আরব আমিরশাহির মোট ভারতে রফতানির থেকেও বেশি। শুধুমাত্র চিন থেকেই ভারতে আমদানি হয়েছে ৫ হাজার ৮৭০ কোটি ডলারের পণ্য। তবে শুধু আমদানি নয়, চিনেও ভারতের রফতানি বেড়েছে। এর আগে চিনে ভারত মোট রফতানি করত ১ হাজার ৯০০ কোটি ডলারের পণ্য। সেই রফতানিও বেড়েছে ১১ শতাংশ।

আরও পড়ুন: গলছে বরফ, ব্রিকসে যোগ দিতে ভারতে আসতে পারেন জিনপিং