Viral Photos: ট্রোলের ভয়ে প্লাস্টিক সার্জারি বা লুকোচুরি নয়, কঠিন পরিশ্রমেই মেদ ঝরিয়ে বোল্ড অর্জুন, জানুন কীভাবে

Arjun Kapoor: রাতারাতি পাল্টে ফেলার চেষ্টা প্লাস্টিক সার্জারিকেও বেছে নেননি তিনি। বরং টানা ১৫ মাস ধরে তিনি কঠোর পরিশ্রম করেছিলেন। লকডাউনই হয়েছিল কাল।

Viral Photos: ট্রোলের ভয়ে প্লাস্টিক সার্জারি বা লুকোচুরি নয়, কঠিন পরিশ্রমেই মেদ ঝরিয়ে বোল্ড অর্জুন, জানুন কীভাবে
Jayita Chandra

|

May 17, 2022 | 4:45 PM

সিনে দুনিয়ায় কাজ করার সঙ্গে নিজের শরীর নিয়ে সৌন্দর্য ধরে রাখার চেষ্টা করাটা একটা সেলেবের কাছে ভীষণ সহজ এক প্রসঙ্গ। প্রতিটা ধাপে ধাপে যেভাবে নিজেকে পার্ফেক্ট করে তুলে ধরার চেষ্টায় মরিয়া থাকেন সকলে, সেই তালিকাতে নাম লিখিয়ে ভাইরাল হওয়ার পক্ষপাতী কোনওদিনই ছিলেন না অর্জুন কাপুর। কারণ একটাই, তিনি ট্রোল বা ফিল্টারে বিশ্বাসী নন। তাঁর শরীরে ছিল বাড়তি মেদ, যা নিয়ে কোনও দিন লুকোচুরি করেননি অর্জুন কাপুর। বা রাতারাতি পাল্টে ফেলার চেষ্টা প্লাস্টিক সার্জারিকেও বেছে নেননি তিনি। বরং টানা ১৫ মাস ধরে তিনি কঠোর পরিশ্রম করেছিলেন। লকডাউনই হয়েছিল কাল।

কোন পথে নিজেকে পুরোনো লুকে ফেরাবেন তা নিয়ে সাময়িক চিন্তা হলেও তিনি আশা ছাড়েননি। কারণ শৈশবে তিনি ছিলেন বেশ মোটা। যে ছবি আজও ভক্তদের হাতে হাতে ফেরে নেট দুনিয়ার পাতায়। ২০২১ এর ফেব্রুয়ারী থেকে শুরু করে ২০২২-এর মে মাস পর্যন্ত তিনি শরীরচর্চায় নজর দিয়েছিলেন। আগের ছবি ও বর্তমান ছবি শেয়ার করে তিনি লিখলেন, আমি গর্বিত যে আমি সঠিক ট্র্যাকে ছিলাম। প্রথমটায় ভাবনা গ্রাস করলেও এখন আমার ভাবতে ভাল লাগে যে আমি গত ১৫ মাস এই পদ্ধতির মধ্যে দিয়ে গিয়েছি, এবং নিজেকে ধরে রাখতে পেরেছি। আশা করব এটা এমনই থাকবে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ায় দেও এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, তিনি নিজেরে ভাল ও খারাপ দুই দিকই সবার সামনে উন্মুক্ত রাখতে পছন্দ করে। যদি তিনি কেবল ভালটাই দেখান, আর খারাপ দিকটা চেপে রাখেন, তবে কোথাও গিয়ে বিষয়টা ভুয়ো হয়ে যায়। আমি তাদের তালিকাতে পরি না, যাঁরা একটা ফেক ইমেজ বানিয়ে মানুষকে অনুপ্রাণিত করেন তাঁদের জীবন দ্বারা।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla