চলবে শুটিং, তবে করোনা রুখতে একগুচ্ছ নিয়মবিধি টেলিপাড়ায়

এ বার আর্টিস্ট ফোরামের তরফে এক নির্দেশিকা জারি করে তাতে জানান হয়, কীভাবে কোন কোন নিয়ম মেনে চলবে শুটিং। এক ঝলকে দেখে নিন সেই সব নিয়মাবলী থেকে বেশ কয়েকটি--

  • TV9 Bangla
  • Published On - 23:20 PM, 4 May 2021
চলবে শুটিং, তবে করোনা রুখতে একগুচ্ছ নিয়মবিধি টেলিপাড়ায়
প্রতীকী ছবি।

বন্ধ হচ্ছে না টেলিপাড়ার শুটিং। তবে কোভিড রুখতে মেনে চলতে হবে একগুচ্ছ নিয়ম। নিজেদের মধ্যে বৈঠকে এমনটাই সিদ্ধান্ত নিয়েছে আর্টিস্ট ফোরাম, প্রোডিউসারস গিল্ড সহ সংগঠনগুলি। এর আগে ফেডারেশনের সভাপতি স্বরূপ বিশ্বাস জানিয়েছিলেন টেকনিশিয়ানদের ফ্লোরে কী কী নিয়ম মেনে চলতে হবে, জানিয়েছিলেন র‍্যাপিড টেস্ট এবং টেকনিশিয়ানদের করোনার টিকাকরণের ব্যবস্থার কথা। এ বার আর্টিস্ট ফোরামের তরফে এক নির্দেশিকা জারি করে তাতে জানান হয়, কীভাবে কোন কোন নিয়ম মেনে চলবে শুটিং। এক ঝলকে দেখে নিন সেই সব নিয়মাবলী থেকে বেশ কয়েকটি–

* কেন্দ্রীয় বা রাজ্য সরকারের কোনও নির্দেশ না আসা পর্যন্ত চলবে শুটিং

* যদিও এই পরিস্থিতিতে ইচ্ছের বিরুদ্ধে কোনও অভিনেতাকে শুটে যোগদানের জন্য জোর দেওয়া যাবে না। প্রত্যেক শনিবার ৪ টের মধ্যে শিল্পীকে পরের সপ্তাহে তিনি কাজ করতে পারবেন কিনা তা জানাতে হবে।

*কন্ট্র্যাক্টহীন অভিনেতা-অভিনেত্রীকেও এই মুহূর্তে শুট থেকে বাদ দেওয়া একেবারেই যাবে না। যদি তিনি এই মুহূর্তে শুটিং করতে না চান তা মেনে নেওয়া হবে কিন্তু একই সঙ্গে তিনি অন্য কোনও প্রজেক্টেরও অংশ হতে পারবেন না। অন্যথায় সেই শিল্পীর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেবে আর্টিস্ট ফোরাম।

*রোটেশন পদ্ধতিতে কাজ চলবে এবং প্রজেক্টের অন্তর্গত ইচ্ছুক শিল্পীদের প্রত্যেককেই কাজে নিতে হবে। তবে শুটিং ফ্লোরে একসঙ্গে ৩৫ জনের বেশি থাকতে পারবেন না।

*একমাত্র শিল্পী বাদে মাস্ক ছাড়া কাউকে শুটিং ফ্লোরে অ্যালাও করা হবে না।

 

*মাত্র একজন শিল্পী একটি ঘরে খাবার খেতে পারবেন। সেই সময় ঘরে যদি অন্য কেউ উপস্থিত থাকেন সেক্ষেত্রে তাঁকে মাস্ক পরতে হবে।

*মেকআপের যাবতীয় সরঞ্জাম স্যানিটাইজ করা হবে। যে সমস্ত শিল্পী নিজেদের মেকআপ বহন করতে চান তাঁরা স্বাগত।
প্রত্যেক শিল্পী ব্যবহারের আগে গহনা , উইগ স্যানিটাইজ করা হবে

*লেপেলের ব্যবহার করা যাবে না। এই মুহূর্তে বুমে মাইক্রোফোনেই কাজ চালাতে হবে।

*শিল্পীদের কাছাকাছি যে সমস্ত টেকনিশিয়ান যেমন সাউণ্ড রেকর্ডিস্ট, সহযোগী পরিচালক, পরিচালক, মেকআপ আর্টিস্ট অনায়াস যাতায়াত তাঁদের ফেসশিল্ড বাধ্যতামূলক।

*রাত ৮টার মধ্যে শেষ করতে হবে শুট। আউটডোর শুট এড়িয়ে চলাই শ্রেয়। কোনও শিল্পী ১০ ঘণ্টার বেশি কাজ করবেন না একদিনে।

*দিনে একবার অন্তত শুটিং ফ্লোর স্যানিটাইজ করা বাঞ্ছনীয়। মেকআপ রুম, বাথরুম স্যানিটাইজেশন করতে হবে।
এমনভাবেই শট ডিজাইন করা হবে যাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকে।

*প্রত্যেক শিল্পীকেই টিকাকরণের জন্য আবেদন, এই কাজে সাহায্য করবে আর্টিস্ট ফোরাম