‘নয়া নিয়মে চরম ক্ষতির মুখে পড়বে ছোট ব্যবসায়ীরা’, কেন্দ্রের দ্বারস্থ ই-কমার্স সংস্থাগুলি

ঈপ্সা চ্যাটার্জী

ঈপ্সা চ্যাটার্জী |

Updated on: Jul 04, 2021 | 12:01 PM

New E-Commerce Rules: শনিবার অ্যামাজনের প্রতিনিধিরা জানান, করোনা সংক্রমণের কারণে ছোট ব্যবসাগুলি বিপুল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। নতুন নিয়মে বিক্রেতাদের উপর ব্যপক প্রভাব পড়বে।

'নয়া নিয়মে চরম ক্ষতির মুখে পড়বে ছোট ব্যবসায়ীরা', কেন্দ্রের দ্বারস্থ ই-কমার্স সংস্থাগুলি
ফাইল চিত্র

নয়া দিল্লি: কেন্দ্রের প্রস্তাবিত নয়া ই-কমার্স নিয়ম (E-Commerce Rule) নিয়ে বেজায় চিন্তিত অ্যামাজন (Amazon), টাটা(Tata)-র মতো সংস্থা। গত মাসেই কেন্দ্রের তরফে ই-কমার্স সাইটগুলির নিয়মে যে পরিবর্তন আনার কথা বলা হয়েছে, তাতে ব্যাবসায় চরম ক্ষতি হতে পারে বলেই আশঙ্কা সংস্থাগুলির। এর প্রেক্ষিতেই শনিবার অ্যামাজন ও টাটার প্রতিনিধিরা সরকারি আধিকারিকদের সঙ্গে দেখা করেন বলে সূত্রের খবর।

শনিবারই ক্রেতাসুরক্ষা মন্ত্রকের (Consumer ministry) সঙ্গেও বৈঠক ছিল ই-কমার্স সংস্থাগুলির। সেই বৈঠকেও সংস্থাগুলির প্রতিনিধিরা প্রস্তাবিত নিয়ম নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন এবং ৬ জুলাইয়ের মধ্যে সংস্থাগুলির কাছ থেকে যে জবাব চাওয়া হয়েছিল, তার জন্য অতিরিক্ত কিছু সময় চাওয়া হয়।

গত ২১ জুন কেন্দ্রের তরফে ই-কমার্স সাইটগুলিতে একাধিক পরিবর্তন আনার প্রস্তাব দেওয়া হয়। অনলাইনে পণ্যের ফ্ল্যাশ সেল বন্ধ, তৃতীয় পক্ষ হিসাবে কাদের গণ্য করা হবে এবং কেন্দ্রের নিয়ম অনুসরণের জন্য কমপ্লায়েন্স অফিসার নিয়োগের প্রস্তাব দেওয়া হয়। আগামী ৬ জুলাইয়ের মধ্যে এই নিয়মগুলি সম্পর্কে লিখিত জবাব দিতে বলা হয় সংস্থাগুলিকে। কেন্দ্রের দাবি, বর্তমান পদ্ধতিতে ক্রেতার পছন্দকে গুরুত্ব দেওয়া হয় না। এ ছাড়াও ফ্ল্যাশ সেলের মাধ্যমে ঘুরপথে ওই প্রোডাক্ট বেশি দামে কিনতে হয় ক্রেতাকে।

শনিবার অ্যামাজনের প্রতিনিধিরা জানান, করোনা সংক্রমণের কারণে ছোট ব্যবসাগুলি বিপুল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। নতুন নিয়মে বিক্রেতাদের উপর ব্যপক প্রভাব পড়বে। নয়া নিয়মে সংস্থাগুলিকে বিক্রেতা হিসাবে অন্য কোনও সংস্থার নাম উল্লেখেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ই-কমার্সগুলি বিক্রেতার কাছ থেকে কোনও পণ্য কিনে তা ওয়েবসাইটে বিক্রি করে। নতুন নিয়ম কার্যকর হলে বিশেষভাবে সমস্যায় পড়বে অ্যামাজন।

অন্যদিকে, টাটা সন্সের তরফেও জানানো হয়, নয়া নিয়ম অত্যন্ত জটিল। এরফলে অন্য কোনও সংস্থার সঙ্গে চুক্তি থাকলেও সেই সংস্থার পণ্য ওয়েবসাইটে বিক্রি করা যাবে না। উদাহরণ হিসাবে টাটার সঙ্গে স্টারবাকস সংস্থার চুক্তির কথাও উল্লেখ করা হয়।

সূত্র মতে, ক্রেতাসুরক্ষা দফতর সংস্থাগুলিকে জানিয়েছে যে, এই নতুন নিয়ম ক্রেতাদের সুরক্ষার জন্যই আনা হচ্ছে। ই-কমার্স সাইট নিয়ে অন্যান্য দেশের মতো কঠিন আইনও নেই ভারতে। শীঘ্রই কেন্দ্রের তরফে বিদেশি বিনিয়োগ নিয়ে একটি বিবৃতি জারি করা হবে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী পিযুষ গোয়েল।

আরও পড়ুন: রাসায়নিক প্ল্যান্টে বিস্ফোরণ, আগুনে ঝলসে আহত ৫

⇜ TV9 EXCLUSIVE: না পড়লেই নয় ⇝

১০ লক্ষ টাকার ‘স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড’ কারা পাবেন? কী ভাবে করবেন আবেদন?

ডায়েরির পাতার ভাঁজে আডবাণী, যশবন্তদের নাম, কী সেই ‘হাওয়ালা-জৈন’ মামলা?

সরষের ভেতরেই ভূত! ১ বছরে রান্নার তেলের দাম বাড়ল ৬৩ টাকা, কীভাবে?

কোভ্যাক্সিন তৈরিতে বাছুরের প্লাজমা? আসল সত্যিটা জানুন

ভেনেজুয়েলায় ১ টাকায় পেট্রল, ভারতে ১০২! নেপথ্যে কার কারসাজি?

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla