e-Auction: নীরজের জ্যাভেলিন নয়, সবথেকে দামী লভলিনার বক্সিং গ্লাভসই, নিলামে কত দাম উঠল জানেন?

Olympian Lovlina Borgohain's gloves gets Highest Bid in e-Auction: শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া এই ই-নিলামে সবথেকে বেশি দর উঠেছে টোকিয়ো অলিম্পিকে ব্রোঞ্জ পদকজয়ী লভলিনা বোরগোহিন (Lovlina Borghoain)-র বক্সিং গ্লাভসের।

e-Auction: নীরজের জ্যাভেলিন নয়, সবথেকে দামী লভলিনার বক্সিং গ্লাভসই, নিলামে কত দাম উঠল জানেন?
নিলামে উঠেছে নীরজ-সিন্ধুদের জ্যাভলিন-ব্যাডমিন্টন।

নয়া দিল্লি: সোনার ছেলে নীরজ(Neeraj Chopra)-কে হারিয়ে দিলেন ব্রোঞ্চ পদকজয়ী লভলিনা (Lovlina Borghoain)। কোনও প্রতিযোগিতায় নয়, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী(Narendra Modi)-র ৭১ তম জন্মদিন ও প্রশাসনিক পদে ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে কেন্দ্রীয় সরকার ও বিজেপির তরফে যে বিশেষ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে, তার মধ্যে অন্যতম হল সংস্কৃতি মন্ত্রকের ই-নিলাম (e-Auction)।

শুক্রবার থেকেই শুরু হয়েছে এই নিলাম প্রক্রিয়া, যেখানে অলিম্পিক ও প্যারা অলিম্পকে পদকজয়ীদের ব্যবহৃত বিভিন্ন সামগ্রী নিলামে তোলা হচ্ছে। এই নিলাম থেকে যে টাকা উঠবে তা নমামি গঙ্গা প্রকল্পের (Namami Ganga Project) উন্নয়নের কাজে লাগানো হবে। তবে করোনার কথা মাথায় রেখে পুরো নিলাম প্রক্রিয়া হবে অনলাইনে।

অলিম্পিক ও প্যারা অলিম্পিক থেকে পদক অর্জন করে দেশে ফেরার পর ভারতের অ্যাথলিট ও প্যারা অ্যাথলিটদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে নীরজ-সিন্ধুরা প্রধানমন্ত্রী মোদীর হাতে উপহার হিসেবে তুলে দিয়েছিলেন টোকিওয় তাঁদের পদক জয়কারী জ্যাভলিন-ব্যাডমিন্টন। সেই সময়ই কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে জানানো হয়েছিল, ভারতীয় অ্যাথলিটদের দেওয়া এই উপহারগুলি নিলামে তোলা হবে।

শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া এই ই-নিলামে সবথেকে বেশি দর উঠেছে টোকিয়ো অলিম্পিকে ব্রোঞ্জ পদকজয়ী লভলিনা বোরগোহিনের বক্সিং গ্লাভসের। ৮০ লক্ষ টাকা দর ধরা হয়েছিল এই গ্লাভসের, সর্বোচ্চ দর উঠেছে ১ কোটি ৯২ লক্ষ টাকা।

অলিম্পিকে যে জ্যাভেলিন ছুঁড়ে সোনার পদক জিতে নিয়েছিলেন নীরজ চোপড়া, তার দর মূল্য রাখা হয়েছিল ১ কোটি টাকা।  সেই জ্যাভেলিনের সর্বোচ্চ দর উঠেছে ১কোটি ৫৫ লক্ষ টাকা।

প্যারা অলিম্পিকে কৃষ্ণা নাগার ও এস এল ইয়াথিরাজের ব্যাডমিন্টন ও  অলিম্পিকে ভবানী দেবীর ব্যবহৃত তরবারির দাম উঠেছিল ১০ কোটি টাকা, পরে বিকেলে জানা যায়, ভুয়ো দর হাঁকা হয়েছিল।  কৃষ্ণা নাগার ও এস এল ইয়াথিরাজের ব্যাডমিন্টন বিক্রি হয়েছে যথাক্রমে ৮০ লক্ষ ও ৫০ লক্ষ টাকায়। ভবানী দেবীর ব্যবহৃত তরবারির দাম ৬০ লক্ষ টাকা ধার্য করা হয়েছিল, সেই দামেই বিক্রি হতে চলেছে এটি।

টোকিয়ো প্যারা অলিম্পিকে সোনার পদকজয়ী সুমিত আন্তিলের স্বাক্ষর করা জ্যাভেলিনটির দর রাখা হয়েছিল ১ কোটি টাকা। এর সর্বোচ্চ দর হাঁকা হয়েছে ১ কোটি ৮ হাজার টাকা। প্যারাঅলিম্পিকে মনিশ নারওয়াল যে শার্প শুটিং চশমাটি পরে সোনা জিতেছিলেন, তা প্রথমে ৯৫.৯৪ লক্ষ টাকা দর উঠলেও শেষে ২০ লক্ষ টাকায় বিক্রি হয়।

পিভি সিন্ধুর ব়্যাকেট ও ব্যাগটি ৯০.০২ লক্ষ টাকায় বিক্রি হয়েছে, এর দর রাখা হয়েছিল ৮০ লক্ষ টাকা। প্রথমদিনেই মোট ১৩৩০টি স্মারক নিলামে তোলা হয়। তবে লক্ষ বা কোটি টাকার জিনিসই নয়, স্বল্প মূল্যের  নানা সামগ্রীও নিলামে উঠেছে। সব থেকে কম দামের সামগ্রী ছিল একটি হাতির শে-পিস, যার দর ছিল ২০০ টাকা।

অলিম্পিক ও প্যারা অলিম্পিকে পদক বিজেতাদের ব্যবহৃত বিভিন্ন সামগ্রী ছাড়াও অযোধ্যা মন্দির, চারধাম, রুদ্রাক্ষ কনভেনশন সেন্টারের ক্ষুদ্র সংস্করণ বা রেপ্লিকা, বিভিন্ন চিত্রকলা, ভাষ্কর্য, পোশাক ইত্যাদি নিলামের অংশ। কাঠের তৈরি অযোধ্যা মন্দিরের একটি রেপ্লিকার দাম এখনও অবধি ৩ লক্ষ টাকা উঠেছে। বারাণসীর রুদ্রাক্ষ কনভেনশন সেন্টারের প্রতিমূর্তির দাম উঠেছে ৪০ লক্ষ টাকা।

https://pmmementos.gov.in- এই ওয়েবসাইটে ক্লিক করেই অনলাইন নিলামে অংশ নিতে পারেন যে কোনও ব্যক্তি বা সংগঠন। ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে আগামী ৭ অক্টোবর অবধি এই নিলাম চলবে।

আরও পড়ুন: West Bengal Police: যোগী রাজ্যে বাংলার পুলিশকে হেনস্থার অভিযোগ, সংবাদসংস্থার টুইটে শুরু রাজনৈতিক তরজা 

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla