নীতীশকে ‘ক্লান্ত’, ‘দুর্বল’ মুখ্যমন্ত্রী বলে কটাক্ষ একদা সৈনিক পিকে-র

বিহারের মুখ্যমন্ত্রী পদে ষষ্ঠবার শপথ নেওয়ার পরই প্রশান্ত কিশোরের কাছে মোক্ষম খোঁচা খেলেন নীতীশ কুমার (Nitish Kumar)। টানা চতুর্থবার নীতীশ পাটনার মসনদে বসার পর জেডিইউ-র প্রাক্তন সেকেন্ড ইন কমান্ড পিকে তাঁকে টুইট-বার্তায় অভিনন্দন জানিয়েছেন। তবে সেই টুইটে নীতীশের প্রতি তাচ্ছিল্য ও বিদ্রুপ প্রকাশ পেয়েছে ভোটকুশলীর। নীতীশ কুমারকে 'ক্লান্ত' এবং 'রাজনৈতিকভাবে দুর্বল' বলে কটাক্ষ করেছেন তিনি।

নীতীশকে 'ক্লান্ত', 'দুর্বল' মুখ্যমন্ত্রী বলে কটাক্ষ একদা সৈনিক পিকে-র
Patna: Bihar Chief Minister and JD-U chief Nitish Kumar with election strategist Prashant Kishor during a programme where the latter joined JD-U, in Patna on Sept 16, 2018. Kishor, 41-year-old former UN official, who founded the Indian Political Action Committee (I-Pac), was tasked with running the JD-U's campaign during the 2015 Bihar polls after he parted ways with the Bharatiya Janata Party (BJP). (Photo: IANS)
tista roychowdhury

|

Nov 17, 2020 | 8:54 AM

TV9 বাংলা ডিজিটাল: বিহারের মুখ্যমন্ত্রী পদে ষষ্ঠবার শপথ নেওয়ার পরই প্রশান্ত কিশোরের কাছে মোক্ষম খোঁচা খেলেন নীতীশ কুমার (Nitish Kumar)। টানা চতুর্থবার নীতীশ পাটনার মসনদে বসার পর জেডিইউ-র প্রাক্তন সেকেন্ড ইন কমান্ড পিকে তাঁকে টুইট-বার্তায় অভিনন্দন জানিয়েছেন। তবে সেই টুইটে নীতীশের প্রতি তাচ্ছিল্য ও বিদ্রুপ প্রকাশ পেয়েছে ভোটকুশলীর। নীতীশ কুমারকে ‘ক্লান্ত’ এবং ‘রাজনৈতিকভাবে দুর্বল’ বলে কটাক্ষ করেছেন তিনি।

এক সময় জেডিইউ-র সহ-সভাপতি ছিলেন প্রশান্ত কিশোর (Prashant Kishor)। কিন্তু সিএএ (CAA) এবং এনআরসি (NRC) ইস্যুতে তিনি প্রত্যক্ষভাবে মোদী সরকারের বিরোধিতা করেছিলেন। অন্যদিকে সেই সময় জোটসঙ্গী হওয়ার কারণে নীতীশ সরাসরি সিএএ বিরুদ্ধ অবস্থান নিতে পারেননি। তবে এনআরসি না লাগু করার বিষয়ে অনড় ছিলেন তিনি। এমনই এক ডামাডোল পরিস্থিতির মধ্যে পিকে-নীতীশ দ্বন্দ্ব তীব্র আকার ধারণ করে। জেডিইউ থেকে প্রশান্ত কিশোরকে বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নেন নীতীশ। তারপর গঙ্গা দিয়ে অনেক জল বয়ে গিয়েছে। গত কয়েকমাসে একাধিকবার নীতীশ কুমারকে বিজেপির ‘গৃহপালিত’ মুখ্যমন্ত্রী বলেও ইঙ্গিত করেছেন প্রশান্ত।

তবে বিহার নির্বাচন চলার সময় একবারও কোনও রাজনৈতিক মন্তব্য করতে শোনা যায়নি প্রশান্তকে। শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান শেষে অবশেষে মুখ খুললেন তিনি। যেখানে চার বারের পূর্ণ সময়ের বিহারের মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি তাঁর বিদ্রুপ ও তাচ্ছিল্য প্রকাশ পেয়েছে। টুইট করে প্রশান্ত কিশোর লিখেছেন, ‘বিজেপি মনোনীত মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার জন্য নীতীশ কুমারজী-কে অভিনন্দন। একজন ক্লান্ত ও রাজনৈতিকভাবে দুর্বল মুখ্যমন্ত্রীকে পেয়ে বিহারকে আরও কয়েক বছর হতাশাজনক প্রশাসনের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।’

প্রশান্ত কিশোরের পাশাপাশি বর্তমান এলজেপি (LJP) প্রধান চিরাগ পাসোয়ানও (Chirag Paswan) বিদ্রুপ মিশ্রিত অভিনন্দন জানিয়েছেন নীতীশ কুমারকে। আগাগোড়া নীতীশ-বিরোধী এই যুবনেতা সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, ‘আবারও মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার জন্য নীতীশ কুমারকে অভিনন্দন। আশা করি সরকার মেয়াদ পুরো করবে এবং আপনি এনডিএ-র মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে চালিয়ে যাবেন।’

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla