Arpita Mukherjee: কাউন্সিলরের থেকে কেনা প্রপার্টিতেই পার্লার করেছিলেন অর্পিতা! জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়লেন প্রসেনজিৎ দাস

Arpita Mukherjee: পাটুলিতে অর্পিতার নামে থাকা ওই নেল আর্ট পার্লার সিল করে দেওয়া হয়েছে এ দিন। শহরের একাধিক জায়গায় চালানো হয় তল্লাশি।

Arpita Mukherjee: কাউন্সিলরের থেকে কেনা প্রপার্টিতেই পার্লার করেছিলেন অর্পিতা! জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়লেন প্রসেনজিৎ দাস
কাউন্সিলরকে জিজ্ঞাসাবাদ করল ইডি
TV9 Bangla Digital

| Edited By: tannistha bhandari

Aug 02, 2022 | 7:51 PM

কলকাতা : অর্পিতার নামে থাকা একাধিক ব্যবসার মধ্যে অন্যতম নেল আর্ট পার্লার। শহরের একাধিক জায়গায় এমন নেল আর্ট পার্লারের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে, যার মালকিন অর্পিতা। মাঝে মধ্যে সেখানে যেতেনও তিনি। আপাতত অর্পিতার গ্রেফতারির পর ঝাঁপ পড়েছে সে সব পার্লারে। মঙ্গলবার এমনই একটি পার্লার সিল করে দিলেন ইডি আধিকারিকেরা। পাটুলির ওই পার্লারে তল্লাশি চালাতে গিয়ে এ দিন তাঁরা জিজ্ঞাসাবাদ করেন স্থানীয় কাউন্সিলর প্রসেনজিৎ দাসকেও। বেশ কয়েক ঘণ্টা পর পার্লার সিল করে দিয়ে বেরিয়ে যান তাঁরা।

দক্ষিণ কলকাতার পাটুলিতে একটি ফ্ল্যাটের নীচে রয়েছে অর্পিতার সেই পার্লার। ‘ম্যাজিক টাচ’ নামে ওই পার্লারে এ দিন হানা দেন ইডি আধিকারিকেরা। প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা সেখানে তল্লাশি চালানো হয়। এ দিন ইডি ডেকে পাঠিয়েছিল ওই এলাকার অর্থাৎ ১০০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রসেনজিৎ দাসকে। তিনি তল্লাশির সময় পার্লারে উপস্থিত ছিলেন। বেশ কিছুক্ষণ তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন ইডি আধিকারিকেরা। ওই পার্লারের সব নথি, হার্ড ডিস্ক, বিল সংগ্রহ করেছেন তাঁরা। কারা ওই পার্লারে আসত, সেই তালিকা রয়েছে পার্লারের একটি নোটবুকে। সেই তালিকাও নিয়ে গিয়েছে ইডি।

কেন জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়তে হল প্রসেনজিৎ দাসকে? কাউন্সিলর জানান, তাঁর কাছ থেকে একটি প্রপার্টি কিনেছিলেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। তদন্তে তারই ঠিকানা মেলে। সেই জন্য মঙ্গলবার সার্চ ওয়ারেন্ট নিয়ে সেখানে গিয়েছিলেন আধিকারিকেরা। তিনি বলেন, ‘যেহেতু আমার থেকে প্রপার্টি নিয়েছিলেন, তা সম্পর্কে জানার জন্য আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল ইডি।’ স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত পুরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর নির্বাচিত হন প্রসেজিৎ দাস। আগে প্রোমোটারি করতেন তিনি। যে বিল্ডিং-এর নীচে ওই পার্লার, সেটিও  প্রসেজিৎ দাসের বানানো বলেই জানা গিয়েছে।

তবে শুধু পাটুলি নয়, এ দিন পার্থ-অর্পিতার সঙ্গে সংযোগ রয়েছে, এমন একাধিক জায়গায় তল্লাশি চালিয়েছে ইডি। বরানগরের একটি নেল আর্ট পার্লারেও গিয়েছিলেন আধিকারিকেরা। এ ছাড়া, মাদুরদহ, কেন্দুয়া, লেক রোড, পণ্ডিতিয়া রোডের ফ্ল্যাটেও তাঁরা তল্লাশি চালান।

এ দিকে, পণ্ডিতিয়া রোডের অভিজাত আবাসনের ফ্ল্যাটের চাবি না থাকায় বেশ কয়েক ঘণ্টা পরও প্রবেশ করতে পারেননি ইডি আধিকারিকেরা। তাঁরা চাইছেন, কোনও আইনি জটিলতা না রেখেই তল্লাশি চালাতে। চাবি বানানোর লোকও ডেকে এনেছেন তাঁরা। ঘটনাস্থলে রয়েছে রবীন্দ্র সরোবর থানার পুলিশ।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla