কার্ফুর প্রথম রাত, পুলিশের নাকের ডগা দিয়ে হাওড়া ব্রিজে ছুটল পরপর বাইক-গাড়ি

বেপরোয়া গতিতে একের পর এক বাইক ও গাড়ি ছুটতে দেখা গেল। আরোহীদের মুখে নেই মাস্ক, মাথায় নেই হেলমেট।

কার্ফুর প্রথম রাত, পুলিশের নাকের ডগা দিয়ে হাওড়া ব্রিজে ছুটল পরপর বাইক-গাড়ি
হাওড়া ব্রিজে ছুটছে বাইক (নিজস্ব চিত্র)

কলকাতা: গত কাল থেকে রাজ্যে শুরু হয়েছে নতুন কোভিড বিধি। বাজার, দোকানের সময় বেঁধে দেওয়ার পাশাপাশি জারি হয়েছে নাইট কার্ফু (Night Curfew)। রবিবার রাতে ছিল নাইট কার্ফুর প্রথম দিন। আর সেই সরকারি নির্দেশের  অমান্য করেই চলল বাইকের দাপাদাপি। বিধি ভঙ্গের এ্ই ছবি দেখা গেল হাওড়া ব্রিজে (Howrah Bridge)। অনেক ক্ষেত্রে নাকা চেকিংয়েও নিষ্ক্রিয় ভূমিকায় দেখা গেল কর্তব্যরত পুলিশকে।

করোনা সংক্রমণে রাশ টানতে রাজ্য জুড়ে ১৫ মে সকাল ৬টা থেকে ৩০ মে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত কার্যত লকডাউন জারি করেছে রাজ্য সরকার। রাত ৯’টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত জারি করা হয়েছে নাইট কার্ফু। সেই আইন অনুযায়ী, ওই সময়ের মধ্যে কেউ রাস্তায় বেরতে পারবেন না। বিধি মানা হচ্ছে কিনা, তার ওপর নজরদারি চালাতে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় রাস্তায় রাস্তায় চলছে পুলিশের নাকা চেকিং। অথচ উল্টো ছবি ধরা পড়ল হাওড়া ব্রিজে।

আরও পড়ুন: ৩৬ ঘণ্টায় ১২ লক্ষের বিল! করোনায় মৃতের পরিবারের কপালে হাত

রবিবার নাইট কার্ফুর প্রথম দিনেই মাঝরাতে হাওড়া ব্রিজের ওপর দেখা গেল, যানবাহনের গতি নিয়ন্ত্রণে দেওয়া হয়েছে গার্ডরেল। কর্তব্যরত পুলিশও উপস্থিত সেখানে। আর পুলিশের সামনে দিয়েই একের পর এক বেপরোয়া গতিতে চারচাকা এবং দুই বা ততোধিক আরোহী নিয়ে ছুটল বাইক। মাস্ক ও হেলমেট বিহীন অবস্থায় বেপরোয়া গতিতে লকডাউন আইন এবং ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করলেও কোন পদক্ষেপই নিতে দেখা যায়নি কর্তব্যরত পুলিশ কর্মীদেরকেও। যদিও পুলিশের দাবি, নিয়ম মেনেই চেকিং করছে তারা।