Tokyo Olympics 2020: অলিম্পিকে ব্যর্থ, তিন ধাপে ময়না তদন্তে শুটিং ফেডারেশন

এই ময়না তদন্তে শুধু যে শুটারদের পারফরম্যান্স স্ক্যানারের নিচে তা নয়। কোচ থেকে কর্তা সবার কাজই খুঁটিয়ে দেখা হবে।

Tokyo Olympics 2020: অলিম্পিকে ব্যর্থ, তিন ধাপে ময়না তদন্তে শুটিং ফেডারেশন
Tokyo Olympics 2020: অলিম্পিকে ব্যর্থ, তিন ধাপে ময়না তদন্তে শুটিং ফেডারেশন (সৌজন্যে-টুইটার)

নয়াদিল্লি: অনেক প্রত্যাশা নিয়ে অলিম্পিকে (Olympics) পাড়ি দিয়েছিল ১৫ সদস্যের ভারতীয় শুটিং (Shooting) দল। কিন্তু রিওর পর আবারও খালি হাতেই দেশে ফিরেছেন শুটাররা। এই পারফরম্যান্স একেবারেই হালকা ভাবে নিচ্ছে না জাতীয় শুটিং ফেডারেশন। তিন ধাপে এই ব্যর্থতার ময়না তদন্ত শুরু করে দিয়েছে শুটিং ফেডারেশন (Shooting Federation of India)। জানিয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্তা।

এই ময়না তদন্তে শুধু যে শুটারদের পারফরম্যান্স স্ক্যানারের নিচে তা নয়। কোচ থেকে কর্তা সবার কাজই খুঁটিয়ে দেখা হবে। তিন ধাপের প্রথম ধাপে আছেন শুটাররা। অলিম্পিকের আগে দুরন্ত ছন্দে থেকেও গেমসের মঞ্চে কেন খারাপ পারফরম্যান্স তার উত্তর চাওয়া হবে। দ্বিতীয় ধাপে আছেন কোচ ও সাপোর্ট স্টাফরা। তৃতীয় ধাপে কথা বলা হবে শুটিং ফেডারেশেনর কর্তাদের সঙ্গে।

শুটার, কোচ ও সাপোর্ট স্টাফদের পারফরম্যান্সের ময়না তদন্তের দায়িত্বে থাকছেন ন্যাশনাল রাইফেল অ্যাসোশিয়েসনের সভাপতি, সচিব ও সেক্রেটারি জেনারেল। মনু ভাকের (Manu Bhaker) ও তাঁর ব্যক্তিগত কোচ যশপাল রানার আচরণও প্রশ্নের মুখে। ২০০৮ সালে অভিবন বিন্দ্রা শুটিংয়ে সোনা জিতেছিলেন। ২০১২ সালে রুপো বিজয় কুমারের। কিন্তু ২০১৬ রিও অলিম্পিক এবং ২০২১ টোকিও অলিম্পিকে খালি হাতেই ফিরতে হয়েছে ভারতীয় শুটারদের।

আরও পড়ুন: NEERAJ CHOPRA : ১৬ থেকে ২ নম্বরে নীরজ

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla