কিছুই যায় না ফেলা জিরো ওয়েস্ট শপে

সার্কুলার ইকোনমি হল অর্থনৈতিক উন্নয়নের প্রকৃতিবান্ধব সেই ধারা, যাতে শক্তির সংরক্ষণ হয় সম্পূর্ণ রূপে। এই শো রুমটা গড়ে উঠেছে সেই সব বর্জ্য জিনিস দিয়ে যা ত্রাসের মত হয়ে উঠেছে সাম্প্রতিক কালে।


নিউটাউনের জিরো ওয়েস্ট শপ একটা সার্কুলার ইকোনমি বা চক্রাকার অর্থনীতিকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে। সার্কুলার ইকোনমি হল অর্থনৈতিক উন্নয়নের প্রকৃতিবান্ধব সেই ধারা, যাতে শক্তির সংরক্ষণ হয় সম্পূর্ণ রূপে। এই শো রুমটা গড়ে উঠেছে সেই সব বর্জ্য জিনিস দিয়ে যা ত্রাসের মত হয়ে উঠেছে সাম্প্রতিক কালে। জলের বোতল, রঙের কৌটো, খবরের কাগজ, প্লাস্টিক আর ফেলে দেওয়া জিনিসপত্র দিয়ে তৈরি হয়েছে এই সুন্দর উপহারের জিনিসগুলো। সর্বোচ্চ ৩০০০ থেকে সর্বনিম্ন ২০ টাকার আইটেম আছে এখানে। জামার হাতা দিয়ে জলের বোতল নেওয়ার ব্যাগ, প্যান্ট দিয়ে তৈরি মোবাইল হোল্ডার বা খবরের কাগজ থেকে তৈরি ব্যাগ, টোস্টার দিয়ে তৈরি পেন স্ট্যান্ড দেখে তাকে লাগে। কাচের বোতলের তৈরি ঝাড়বাতির আলো ছড়িয়ে যায়। স্থানীয় মানুষজন তাদের গার্হস্থ বর্জ্য এনে জমা দিচ্ছেন এই দোকানে। আর সেখান থেকে দুই স্বনির্ভর গোষ্ঠীর কাছে চলে যাচ্ছে সেই জিনিসপত্র। ওই স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলারা তাঁদের সৃষ্টিশীলতা দিয়ে তৈরি করছেন সুন্দর সব জিনিস।