Petrol Price Today: ওপেককে শিক্ষা দিতে ও জ্বালানি তেলের দাম নিয়ন্ত্রণে বড় পদক্ষেপ মোদী সরকারের

Petrol Price Today: রিজার্ভ ভাণ্ডার থেকে অপরিশোধিত তেল বার করার পর ঘরোয়া বাজারে তা ৭ দিনে সরবরাহ করা যেতে পারে। এর ফলে তেলের দাম কম করতে সাহায্য হবে। একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে ভারতের এই পদক্ষেপের ফলে বিশ্বের বাকি দেশগুলিও নিজেদের তেল ভাণ্ডার থেকে অপরিশোধিত তেল রিলিজ করতে পারে।

Petrol Price Today: ওপেককে শিক্ষা দিতে ও জ্বালানি তেলের দাম নিয়ন্ত্রণে বড় পদক্ষেপ মোদী সরকারের
ফাইল চিত্র

কলকাতা: দীপাবলির একদিন আগেই পেট্রোল ডিজেলের দাম কমাতে পেট্রোপণ্যের উপর এক্সাইজ ডিউটি কম করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। সরকারের তরফে পেট্রোলের উপর ৫ টাকা এবং ডিজেলের উপর ১০ টাকা প্রতি লিটার এক্সাইজ ডিউটি কম করা হয়েছিল। পাশাপাশি বেশকিছু রাজ্যও নিজেদের স্তরে এই দুই পেট্রোপণ্যের উপর ভ্যাটও কম করেছে। রাজ্য এবং কেন্দ্র সরকারের তরফে কর ছাড় দিলেও পশ্চিমবঙ্গ সহ একাধিক রাজ্যে এখনও পেট্রোল ডিজেলের দাম সেঞ্চুরির ঘরেই রয়েছে। পেট্রোল ডিজেলের এই আকাশছোঁয়া দামের প্রভাব পড়েছে অন্যান্য জিনিসের উপরও। ফলে দাম বেড়েছে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনসপত্রেরও। একই অবস্থা আমেরিকাতেও। সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী মার্কিন মুলুকেও হু হু করে দাম বেড়েছে পেট্রোলের। গত অক্টোবরেই মার্কিন দেশে পেট্রোলের দাম ছাড়িয়েছিল প্রতি ব্যারেল ৮৫ ডলার।

যার ফলে পেট্রোলের দাম নিয়ন্ত্রণ করতে নতুন রণনীতি তৈরি করতে হয়েছিল বাইডেন সরকারকেও। মার্কিন সরকারের তরফে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ করতে অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ইউএস স্ট্র্যাটেজিক পেট্রোলিয়াম রিজার্ভ (SPR) নিয়ে ভাবনা চিন্তা শুরু হয়েছে।

ইউএস স্ট্র্যাটেজিক পেট্রোলিয়াম রিজার্ভ কী?

এসপিআর অথবা ইউএস স্ট্র্যাটেজিক পেট্রোলিয়াম রিজার্ভ প্রথম তৈরি হয় ১৯৭৫ সালে। যু্দ্ধকালীন পরিস্থিতি অথবা অন্যান্য আপাতকালীন পরিস্থিতিতে জ্বালানি তেলের দাম কম করতেই মার্কিন সরকারের তরফে এই এসপিআর তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। আরবের তেল নিষিদ্ধ হওয়ার পর বেড়ে গিয়েছিল তেলের দাম, যার ফলে সেই সময় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিপুল আর্থিক লোকসান হয়। সেই সময় আপাতকালীন পরিস্থিতিতে তেলের দাম নিয়ন্ত্রণ করতে এসপিআর ব্যাবহার করা হয়েছিল সে দেশের সরকারি তরফে।

কী রণনীতিতে কাজ করবে বাইডেন সরকার

ইউএস স্ট্র্যাটেজিক পেট্রোলিয়াম রিজার্ভ রয়েছে আমেরিকার রিফাইনিং এবং পেট্রোকেমিক্যালসের কাছে। প্রত্যেকদিন তাদের কাছে ৪৪ লাখ ব্যারেল অপরিশোধিত তেল পাঠানো হয়। যদি প্রয়োজন পরে এবং মার্কিন রাষ্ট্রপতি চান তাহলে এই মজুত করা তেল মাত্র ১৩ দিনের ভেতরই পৌঁছনো সম্ভব হয় মার্কিন বাজারে। এই তেল অনলাইনে নিলাম করা হয় এবং তেল কোম্পানিগুলি সে ব্যাপারে হিসেব কষে। তেল কোম্পানিগুলি সরকারের কাছ থেকে সেই অপরিশোধিত তেল নেয় এবং প্রয়োজন মিটে গেলে তা সুদ সহ আবার ফেরতও দেয়।

আমেরিকা ছাড়াও এই মজুদ তেলের ভাণ্ডার রয়েছে ইন্টারন্যাশনাল এনার্জি এজেন্সির ২৯টি সদস্য দেশের কাছে। যার মধ্যে রয়েছে ব্রিটেন, জাপান এবং অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশ। এই দেশগুলি ৯০ দিনের মতো তেল আমদানির সমতুল্য তেল মজুত রাখতে পারে তাদের ভাণ্ডারে। ভারত এবং চিনের কাছেও রয়েছে এমন অপরিশোধিত তেলের ভাণ্ডার। প্রসঙ্গত চিন এবং আমেরিকার পর তৃতীয় দেশ হিসেবে জাপানের কাছে সবচেয়ে বেশি অপরিশোধিত তেলের মজুদ ভাণ্ডার রয়েছে।

কেন্দ্রীয় সরকারের বড় পদক্ষেপ

সম্প্রতি আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম কমেছে। ব্রেন্ট ক্রুড অয়েলের দাম ০.০৬ শতাংশ কমে ৮২.২০ ডলার প্রতি ব্যারেল হয়ে গিয়েছে। অন্যদিকে WTI অপরিশোধিত তেলের দাম ০.১০ শতাংশ কমে প্রতি ব্যারেলের দাম হয়েছে ৭৮.৩১ ডলার। অন্যদিকে করোনা পরবর্তী সময়ে আবারও জ্বালানি তেলের চাহিদা বেড়েছে। কিন্তু মধ্য প্রাচ্যের তেল উৎপাদনকারী দেশগুলির সংগঠন ওপেক উৎপাদনের হার এবং সরবরাহ বাড়াতে রাজি নয়। ভারত, আমেরিকা এবং চিন বহুবার অনুরোধ করলেও সরবরাহ বাড়াতে রাজি হয়নি ওপেক।

ভারত নিজেদের অপরিশোধিত তেলের ভাণ্ডার থেকে ৫০ লাখ ব্যারেল অপরিশোধিত তেল বার করতে পারে। এই পদক্ষেপ ঘরোয়া বাজারে পেট্রোল ডিজেলের দাম কম করতে নেওয়া হচ্ছে। রিজার্ভ ভাণ্ডার থেকে অপরিশোধিত তেল বার করার পর ঘরোয়া বাজারে তা ৭ দিনে সরবরাহ করা যেতে পারে। এর ফলে তেলের দাম কম করতে সাহায্য হবে। একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে ভারতের এই পদক্ষেপের ফলে বিশ্বের বাকি দেশগুলিও নিজেদের তেল ভাণ্ডার থেকে অপরিশোধিত তেল রিলিজ করতে পারে। সরবরাহ বাড়লে তেলের দাম কমতে পারে।

দেশের চার মহানগরে পেট্রোল ডিজেলের দাম

এদিন কলকাতায় পেট্রোলের দাম প্রতি লিটার ১০৪.৬৭ টাকা অন্যদিকে ডিজেলের দাম প্রতি লিটার ৮৯.৭৯ টাকা।রাজধানী দিল্লিতে এদিন পেট্রোলের দাম প্রতি লিটার ১০৩.৯৭ টাকা এবং ডিজেলের দাম প্রতি লিটার ৮৬.৬৭ টাকা। দেশের অর্থনৈতিক রাজধানী বলে পরিচিত মুম্বইতে এদিন পেট্রোলের দাম প্রতি লিটার ১০৯.৯৮ টাকা এবং ডিজেল ৯৪.১৪ টাকা। চেন্নাইতে পেট্রোলের দাম প্রতি লিটার ১০১.৪০ টাকা এবং ডিজেলের দাম প্রতি লিটার ৯১.৪৩ টাকা।

আরও পড়ুন: Greta Electric Scooters: দেশি গ্রেটা চারটি নতুন ইলেকট্রিক স্কুটার নিয়ে এল, দাম শুরু হচ্ছে ৬০ হাজার টাকা থেকে

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla