Goa Assembly Election 2022: ফের গোয়ায় অভিষেক, ৩ দিনের সফরে সংগঠনে নজর

Goa Assembly Election 2022: ফের গোয়ায় অভিষেক, ৩ দিনের সফরে সংগঠনে নজর
গোয়া সফরে অভিষেক, ফাইল ছবি

Abhishek Banerjee in Goa: কংগ্রেস কার্যত প্রায় একা লড়ার সিদ্ধান্তই নিয়েছে। অন্যদিকে, তৃণমূল আবার পাশে পাচ্ছে উদ্ধব ঠাকরে, সঞ্জয় রাউতদের। ভোটমুখী গোয়ায় শিবসেনা এবং তৃণমূল একসঙ্গে নির্বাচনী লড়াইয়ের ময়দানে নামতে চলেছে

TV9 Bangla Digital

| Edited By: tista roychowdhury

Jan 22, 2022 | 8:06 PM

কলকাতা ও পানাজি:  সামনেই গোয়া বিধানসভা নির্বাচন। সপ্তাহ না পেরতেই ফের সৈকত-রাজ্যে (Goa) যাচ্ছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামিকাল অর্থাৎ ২৩ জানুয়ারি গোয়ায় রওনা হবেন তিনি। সূত্রের খবর, ২৩ জানুয়ারি থেকে ২৬ জানুয়ারি গোয়ায় থাকবেন অভিষেক (Abhishek Banerjee)।

তৃণমূলে সূত্রে খবর, আগামী ২৩ জানুয়ারি গোয়া যাওয়ার পর একাধিক দলীয় বৈঠক সারবেন অভিষেক। রয়েছে একাধিক সাংগঠনিক কর্মসূচিও। শোনা যাচ্ছে, এই তিনদিনেই গোয়ায় দ্বিতীয় দফার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করতে পারে তৃণমূল। ফলে, সেক্ষেত্রে অভিষেকের উপস্থিতি যে গুরুত্বপূর্ণ তা বলার অপেক্ষা রাখে না। ইতিমধ্যেই প্রথম দফার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছে তৃণমূল।

তালিকায় রয়েছেন  লুইজিনহো ফেলারিও, চার্চিল অ্যালেমাও, কিরণ কেন্দালকর। এছাড়াও এই ১১ আসনে প্রথম প্রার্থী তালিকায় আছেন সন্দীপ অর্জুন ভজরকর, জগদীশ ভবে, সামিল ভলভাইকার, গণপৎ গাঁওকর, গিলবার্ট মারিয়ানো, জোস আর ক্যাব্রল, জর্সন ফার্নান্ডেজ।

এখানেই  শেষ নয়, সদ্যই জোট নিয়ে কংগ্রেস নেত্রী সনিয়া গান্ধীকে এসএমএস করেছেন খোধদ তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু কংগ্রেসের তরফে এখনও এ নিয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি। তৃণমূলের তরফে এ বিষয়ে কেউ মুখ খুলতে চাননি। কানাঘুষো শোনা গিয়েছে, খোদ রাহুল গান্ধীও ওই জোটে আগ্রহী নন। এ প্রসঙ্গে, জাতীয় কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিংহ সূর্যেওয়াল জানিয়েছেন, এ বিষয়ে তিনি অবগত নন। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশের অভিমত, এ বিষয়ে বিশেষ মন্তব্য করতে রাজি নয় হাত শিবির।

গোয়াতেই অভিষেক কংগ্রেসের বিরুদ্ধে স্পষ্ট তোপ দেগে বলেছিলেন, “কংগ্রেসকে সমর্থন করার অর্থ বিজেপিকে ভোট দেওয়া। কংগ্রেসকে ভোট দিলে বিজেপির ভোটব্যাঙ্ক বাড়বে। তাতে গোয়ায় বিজেপিকে উৎখাত করা যাবে না।” অভিষেকের মন্তব্যের পাল্টা বক্তব্য প্রকাশ করেছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। তাঁর কথায়, “আগেভাগেই হারের দায় সেরে রাখছে। জানে, যে হেরে যাবে। একা লড়ার ক্ষমতা নেই। তাই দায় কংগ্রেসের ঘাড়ে চাপাচ্ছে।  এদিকে, বাংলার লুটের টাকা গোয়ায় নিয়ে গিয়ে কংগ্রেসেরই নেতাদের ভাঙিয়ে দল বাড়াচ্ছে।”

কংগ্রেস কার্যত প্রায় একা লড়ার সিদ্ধান্তই নিয়েছে। অন্যদিকে, তৃণমূল আবার পাশে পাচ্ছে উদ্ধব ঠাকরে, সঞ্জয় রাউতদের। ভোটমুখী গোয়ায় শিবসেনা এবং তৃণমূল একসঙ্গে নির্বাচনী লড়াইয়ের ময়দানে নামতে চলেছে। তৃণমূলের সঙ্গে জোট বাঁধার কথা ইতিমধ্যেই ঘোষণা করে দিয়েছে শিবসেনা।

শিবসেনার তরফে ইতিমধ্যেই গোয়ার নির্বাচনের জন্য নয়টি বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে দেওয়া হয়েছে। শিবসেনার তরফে সঞ্জয় রাউত খোদ ঘোষণা করেছেন, তাঁদের দল তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করে আসন্ন নির্বাচনে লড়বে।

ফলে, সব মিলিয়ে আগামী ২৩ থেকে ২৬ জানুয়ারি অভিষেকের গোয়া সফর বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশ। যদিও অভিষেকের গোয়া সফরকে বিশেষ পাত্তা দিতে নারাজ গেরুয়া শিবির। বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষের দাবি, গোয়ায় ‘সিজন ছুটি’ কাটাতে যাচ্ছেন অভিষেক। তৃণমূল গোয়ায় কোনও ক্ষমতা পাবে না।

উল্লেখ্য, আগামী মাসেই গোয়ায় বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। ১৪ ফেব্রুয়ারি ভোট বাক্সে নিজেদের মতামত দেবেন গোয়াবাসী। ১০ মার্চ চূড়ান্ত ফলাফল জানা যাবে।

আরও পড়ুন: Opposition Parties on School Reopening: ‘খেলা-মেলা সবই চলছে…স্কুল খুলবে না কেন?’

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA