‘বুদ্ধদেব কোথাকার ছেলে ছিলেন?’ ‘বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়’ নিয়ে কটাক্ষ অশোকের

'গতকালও দেখলাম কলকাতায় এক সাংসদের বাড়ি। অবাক হয়ে গিয়েছি। সেই বাড়ি পাহারা দিতে কত পুলিশ থাকে সেখানে!' কটাক্ষ অশোক ভট্টাচার্য (Ashok Bhattacharya)'র

  • TV9 Bangla
  • Published On - 17:48 PM, 22 Feb 2021
'বুদ্ধদেব কোথাকার ছেলে ছিলেন?' 'বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়' নিয়ে কটাক্ষ অশোকের
ফাইল ফটো

শিলিগুড়ি: ভোটমুখী বাংলায় নিত্যনতুন ক্যাম্পেন নিয়ে আসছে রাজ্যের শাসক দল। সেই সঙ্গে একুশের ভোটে তৃণমূলের (TMC) নয়া স্লোগানও তৈরি হয়ে গিয়েছে। রীতিমতো কর্পোরেট ধাঁচে ‘বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়’ স্লোগান লঞ্চ করেছেন তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব। যা নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করলেন শিলিগুড়ির সিপিএম বিধায়ক (CPM MLA) অশোক ভট্টাচার্য (Ashok Bhattacharya)। তাঁর কথায়, বিধানচন্দ্র রায় বাংলার মানুষ ছিলেন। বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যও তাই। উনি (পড়ুন মমতা) যে বাঙালি তা নিয়ে সন্দেহ আছে নাকি?

এখানেই থামেননি রাজ্যের প্রাক্তন পুরমন্ত্রী। তাঁর কথায়, ‘শুনেছি একটা স্লোগান লিখতে কয়েক কোটি টাকা নেন পিকে (প্রশান্ত কিশোর)। কিন্তু এ কেমন স্লোগান? বলা হচ্ছে বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়। উনি যে বাঙালি তা নিয়ে সন্দেহ আছে নাকি?’ অশোকবাবুর কটাক্ষ, শুধু এই কথা বলার জন্য পিকেকে এত টাকা দেওয়ার কি প্রয়োজন ছিল? এই স্লোগান যে কেউ লিখে দিতে পারেন। এরপরেই সিপিএম বিধায়কের মন্তব্য, ‘বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য কি অন্যের ছেলে ছিলেন? নাকি আমরা অন্য জায়গা থেকে এসে ভোটে লড়াই করছি?

আরও পড়ুন: ‘ভাঙড় আমি ছাড়ব না’, সেই পুরনো মেজাজে আরও বেশি ‘আত্মপ্রত্যয়ী’ আব্বাস

প্রসঙ্গত, তৃণমূলের নয়া স্লোগানকে বর্ধমানের সভা থেকে রবিবার কটাক্ষ করেন সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র। তাঁর কথায়, বাংলার দিদি ভোটের আগে মেয়ে হতে চাইছেন। কিন্তু বাংলার মেয়ে ঐশী ঘোষ, মীনাক্ষী মুখার্জিরা। উনি ভাইপোর পিসি। আর এদিন শিলিগুড়ি থেকে অশোক ভট্টাচার্যের কটাক্ষ, একটা দলের কতবার স্লোগান পরিবর্তন হয়!

 

এদিন দুর্নীতি প্রসঙ্গেও তৃণমূলকে একহাত নেন অশোকবাবু। কয়লাকাণ্ড, গরু পাচার কাণ্ড নিয়ে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি। এই প্রেক্ষিতে ধূপগুড়ির তৃণমূল বিধায়কের বিরুদ্ধে উঠেছে কয়েক লক্ষ টাকা প্রতারণার অভিযোগ। এ নিয়ে অশোকবাবুর প্রতিক্রিয়া, ‘সংবাদপত্রে প্রকাশিত খবরে দেখছি ধূপগুড়ির তৃণমূল বিধায়ক চাকরি দেওয়ায় নাম করে বহু মানুষের কাছ থেকে অর্থ নিয়েছেন। এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছি। মন্ত্রীদের বিরুদ্ধেও তো একই অভিযোগ উঠছে।’ বাম বিধায়ক যোগ করেন, ‘গতকালও দেখলাম কলকাতায় এক সাংসদের বাড়ি। অবাক হয়ে গিয়েছি। সেই বাড়ি পাহারা দিতে কত পুলিশ থাকে সেখানে!’

আরও পড়ুন: চাকরির নামে ৮৩ লক্ষ টাকা প্রতারণায় অভিযুক্ত তৃণমূল বিধায়ক!

তৃণমূল সরকারকে কটাক্ষ করে অশোক ভট্টাচার্যের মন্তব্য, প্রফুল্লচন্দ্র রায়, বিধান চন্দ্র রায় থেকে জ্যোতি বসু বা বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য, কারও মন্ত্রিসভার বিরুদ্ধে কখনও এভাবে এত অভিযোগ এসেছে নাকি? এখন অধিকাংশ মন্ত্রী, নেতা তথা মুখ্যমন্ত্রীর পরিবারের বিরুদ্ধেও নানা অভিযোগ। এরপরেই তাঁর প্রত্যয়ী বার্তা, বিজেপি বা তৃণমূল নয়, এসবের বিরুদ্ধে মানুষ বাম-কংগ্রেস জোটকেই ক্ষমতায় আনবে।