‘এক ছোবলে ছবি’ কেন বলেছিলেন? ব্যাখ্যা দিলেন মিঠুন

TV9 বাংলার মুখোমুখি হয়ে সেই জনপ্রিয় সংলাপের ব্যাখ্যা দিলেন মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty)।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 15:52 PM, 8 Apr 2021
'এক ছোবলে ছবি' কেন বলেছিলেন? ব্যাখ্যা দিলেন মিঠুন
মোদীর হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দেন মিঠুন

কলকাতা: ভোটের ঠিক আগে বিজেপিতে (BJP) যোগ দিয়ে চমক দিয়েছিলেন বাঙালির মহাগুরু মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty)। ব্রিগেডের মঞ্চে মোদীর হাত ধরে গেরুয়া শিবিরে যোগ দেন তিনি। আর সেখান থেকে ‘এক ছোবলে ছবি’ করার বার্তা দেন তিনি। সেটাই শুরু। এরপর একের রাজ্যে একের এক রোড-শো, জনসভায় দেখা যাচ্ছে তাঁকে। প্রার্থী হওয়ার জল্পনায় জল ঢাললেও পুরোদমে করছেন প্রচার। তাঁর জাত গোখরো ইমেজকে কাজে লাগাচ্ছে গেরুয়া শিবিরও। কিন্তু ভোটের ময়দানে কেই এই সংলাপ? TV9 বাংলাকে তার ব্যাখ্যা দিলেন মিঠুন।

বৃহস্পতিবার টালিগঞ্জের বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়ের সমর্থনে জনসভায় এসেছিলেন তিনি। আর সেখানেই এই বিষয়ে প্রশ্ন করা হয় তাঁকে। এমন সংলাপে তো ভয় পেয়ে যাচ্ছেন মানুষ। এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আমি পলিটিক্যাল কেরিয়ারে ছবি হওয়ার কথা বলেছি। নাম না করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ইঙ্গিত করেন তিনি। অর্থাৎ এবার পরাজিত হলে যে মমতার কেরিয়ার শেষ হয়ে যাবে, এমনটাই উল্লেখ করেন তিনি। মিঠুন চক্রবর্তী বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাকে দায়িত্ব দিয়েছেন আমি সেই দায়িত্ব পালন করছি। মিঠুন যে তাঁর ক্যারিশ্মায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তথা তৃণমূলকে বার্তা দিতে এসেছেন, সে কথাই জানান।

ব্রিগেড থেকে মিঠুন সেই সংলাপ দেওয়ার পর তা নিয়ে চর্চা হয় অনেক। বক্তব্য রাখতে উঠেই তিনি বলেছিলেন, ‘‘আমি জলঢোঁড়াও নই, বেলেবোড়াও নই। আমি জাত গোখরো। এক ছোবলে ছবি।’’ স্বাভাবিকভাবেই নির্বাচনে সেই ডায়লগ নজর কাড়ে। সেই সংলাপের পর তৃণমূল নেতা মদন মিত্র বলেছিলেন, ‘মিঠুন চক্রবর্তী আসলে জলঢোড়া, তা না হলে মোদীর পায়ে গিয়ে মাথা ঠেকাতেন না।’ উনি ভয় পেয়েছেন বলেও মন্তব্য করেন ফিরহাদ হাকিম। তিনি বলেছিলেন, “গোখরো সাপ ভয় পেয়ে ছোবল মারে, আমি জানি না উনি কিসে ভয় পেয়েছেন। নিশ্চিতভাবে কিছু ভয় কাজ করছে বলেই তিনি ছোবল মারার চেষ্টা করছেন।”\

আরও পড়ুন : মিঠুনের রোড- শোতে ‘না’, পুলিশের সঙ্গে চরম বচসা শ্রাবন্তীর! পর্ণশ্রী থানায় ধুন্ধুমার

তবে বিরোধীদের এ সব কটাক্ষে আমল দেননি মিঠুন। তিনি প্রার্থী হবেন কিনা, তা নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়। তবে, তা উড়িয়ে দেন তিনি। জনসভা থেকে সাফ জানান সুবিধে নিতে গাইলে টিকিট পেতেন তিনি। খোদ মোদীও তাঁকে ভোটে লড়ার কথা বলেছিল বলেও দাবি করেন তিনি। কিন্তু শুধু মানুষের কথা ভেবেই নতুন করে রাজনীতিতে পা রেখেছেন বলেও দাবি করেন তিনি।