World AIDS Day: এইডস রোগীর ইমিউনিটি বাড়াতে ডায়েটে কোন কোন খাবার থাকা আবশ্যিক, জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা

World AIDS Day: এইডস রোগীর ইমিউনিটি বাড়াতে ডায়েটে কোন কোন খাবার থাকা আবশ্যিক, জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা
এই মারণ রোগে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে খাদ্য কতটা ভূমিকা পালন করে?

এই রোগের পূর্বাভাস হিসেবে কারোর কারোর জ্বর, মাথাব্যথা, ক্লান্তি, গলা ব্যথার মতো ফ্লুর মতো লক্ষণগুলি দেখা দেয়। আবার ওই লক্ষণগুলি সাধারণত সংক্রমণের এক বা দুই মাসের মধ্যে দেখা যায়। আবার অনেকের টানা দুই সপ্তাহ ধরেও হতে পারে।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: dipta das

Dec 01, 2021 | 7:57 PM

আজ বিশ্ব জুড়ে পালিত হচ্ছে জাতীয় এইডস দিবস। এই রোগ সম্পর্কে বিশেষভাবে সচেতন করার জন্যই এই দিন পালন করা হয়। বর্তমান সময়ে একটি মারাত্মক রোগ হল এইডস (acquired immune deficiency syndrome)। ইডস বা এইচআইভি “মানব প্রতিরক্ষা অভাবসৃষ্টিকারী ভাইরাস” নামক ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট একটি রোগলক্ষণ সমষ্টি। সারা পৃথিবীতে লক্ষ লক্ষ মানুষ প্রতি বছর মারণ এইডস রোগে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারান। দীর্ঘ সময় ধরে আলাদা কোনও শারীরিক সমস্যা ছাড়াই এই মারণ রোগ শরীরে জাঁকিয়ে বসে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুসারে, ২০২০ সালের শেষ পর্যন্ত খবর পাওয়া পর্যন্ত প্রায় সাড়ে তিন কোটি মানুষ মারা গিয়েছে। ২০২০ সালে, ৬৮হাজার মানুষ এইচআইভি-সম্পর্কিত কারণে মারা গিয়েছিল। প্রতি বছর নতুন করে আরও ১৮ লাখের মতো মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন। এই রোগের পূর্বাভাস হিসেবে কারোর কারোর জ্বর, মাথাব্যথা, ক্লান্তি, গলা ব্যথার মতো ফ্লুর মতো লক্ষণগুলি দেখা দেয়। আবার ওই লক্ষণগুলি সাধারণত সংক্রমণের এক বা দুই মাসের মধ্যে দেখা যায়। আবার অনেকের টানা দুই সপ্তাহ ধরেও হতে পারে।

এই মারণ রোগে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে খাদ্য কতটা ভূমিকা পালন করে?

এখনও পর্যন্ত এইডস কোনও নিরাময়ের দিশা নেই। তবে অ্যান্টিরেট্রোভাইরালের নিয়ম মেনে চললে রোগের অগ্রগতি কমিয়ে দেওয়া যেতে পারে। এছাড়া অসুস্থতার জটিলতা প্রতিরোধ করতেও সাহায্য করে। এ প্রসঙ্গে ডায়েটিশিয়ানদের পরামর্শ অনুযায়ী এইডস রোগীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি ঘটাতে খাদ্যের ভূমিকা রয়েছে। সেই অনুসারে কিছু টিপস শেয়ার করেছেন তাঁরা।

নিউট্রিশন কেয়ার ক্লিনিকের ক্লিনিকাল ডায়েটিশিয়ান ইতি জৈন জানিয়েছেন, “এইচআইভি সংক্রমণের সময়, ইমিউন সেল টার্নওভার বজায় রাখার জন্য পুষ্টির প্রয়োজনীয়তা বৃদ্ধি করা হয়। একজন এইচআইভি পজিটিভ রোগী ভিটামিন এ, ভিটামিন বি, জিঙ্ক এবং আয়রনের ঘাটতিতে ভোগেন। অ্যান্টিরেট্রোভাইরাল ওষুধগুলি এইডস রোগীদের দেওয়া হয়, এবং তারা পুষ্টির অবস্থাকে প্রভাবিত করতে পারে। অতএব, সঠিক খাওয়া সময়ের সঙ্গে উপসর্গগুলি বন্ধ করতে সাহায্য করতে পারে।

সাধারণত, একজন রোগীর প্রয়োজনীয় পুষ্টি এবং প্রয়োজনীয়তা পূরণ করতে সাহায্য করতে পারে এমন খাবারগুলিই ডায়েটে যোগ করা উচিত। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার জন্য প্রয়োজনীয় ভিটামিন ও খনিজ উপাদান হল ভিটামিন সি, ডি, ই, এ, জিঙ্ক, সেলেনিয়াম এবং আয়রন। এই পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ খাবারের মধ্যে লেবু, আঙ্গুর, কমলা এবং মৌসাম্বির মতো সব সাইট্রাস ফল অন্তর্ভুক্ত। লাল এবং হলুদ মৌসুমি ফল এবং শাকসবজি ভিটামিন এ এবং খনিজগুলির সমৃদ্ধ উত্স। যেমন, তরমুজ, পেঁপে এবং লাল, হলুদ ক্যাপসিকাম, কুমড়ো ইত্যাদি।

আয়রন গ্রহণের জন্য খাদ্যতালিকায় সবুজ শাক-সবজি অন্তর্ভুক্ত করুন। উচ্চ প্রোটিনযুক্ত খাবার এইচআইভি পজিটিভ রোগীদের ক্লান্তি ও দুর্বলতা কমাতে সাহায্য করে। যেমন ডাল, দুধ ও দুগ্ধজাত দ্রব্য, ডিম ও প্রাণিজ প্রোটিন।

অ্যানোরেক্সিয়া, বমি বমি ভাব এবং বমি হয় এই রোগে। তার জন্য কী কী করা দরকার, তা দেখে নিন একনজরে…

– ছোট আকারে এবং ঘন ঘন খাবার খান।

– বেশিক্ষণ খালি পেটে থাকা একেবারেই চলবে না।

– খাওয়ার পর শুয়ে পড়া এড়িয়ে চলুন।

– নুন, মশলা ও লেবুর মতো স্বাদ বৃদ্ধিকারী ব্যবহার করুন। রিসেপ্টরগুলিকে উদ্দীপিত করার জন্য খাবার ভালভাবে চিবিয়ে নিন এবং মুখের মধ্যে ঘোরাফেরা করুন।

– পর্যাপ্ত ক্যালোরি এবং প্রোটিন সহ একটি স্বাস্থ্যকর ওজন বজায় রাখুন

– রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা উন্নত করতে সমস্ত প্রধান খাবার যেমন ডিম, চর্বিহীন মাংস যেমন মুরগি এবং মাছ, বাদাম এবং আখরোটের মতো বাদাম, কম চর্বিযুক্ত দুগ্ধজাত পণ্য এবং মটরশুটি বা ডাল বা বিভিন্ন রঙের মৌসুমি তাজা ফল এবং শাকসবজি, প্রাকৃতিক ভিটামিনের জন্য সম্পূর্ণ শস্য এবং ভিটামিন সি, জিঙ্কের মতো খনিজগুলি অন্তর্ভুক্ত করুন ।

– তাজা খাবার বানিয়ে তারপর খান।

– প্যাকেটজাত খাবার এবং সংরক্ষিত খাবার এড়িয়ে চলুন।

– বাইরের খাবার এড়িয়ে চলুন।

– স্বাস্থ্যকর অবস্থায় খাবার রান্না করুন।

– অ্যালকোহল এবং ধূমপান এড়িয়ে চলুন।

– কাঁচা খাবার সঠিকভাবে ধুয়ে অবিলম্বে খাওয়া উচিত।

– আধঘণ্টা জল ফুটিয়ে তারপর জল পান করুন।

আরও পড়ুন: World AIDS Day: মারণ এইডসের প্রাথমিক লক্ষণগুলি জানেন? আগাম সতর্ক না হলেই বিপদ

Follow us on

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA