Sattu: তাপমাত্রার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে হিট স্ট্রোকের ঝুঁকি! কোন পানীয়তে ভরসা রাখবেন?

Summer Drinks: গরমের দিনেও শরীরকে ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে এই পানীয়। গরমে তাৎক্ষণিক শীতল প্রভাব ফেলে শরীরে।

Sattu: তাপমাত্রার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে হিট স্ট্রোকের ঝুঁকি! কোন পানীয়তে ভরসা রাখবেন?
গরমের হাত থেকে বাঁচতে ছাতুর শরবতে চুমুক দিন...
Image Credit source: istockphoto.com
TV9 Bangla Digital

| Edited By: megha

Apr 25, 2022 | 4:26 PM

Health Drinks: তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছে গিয়েছে। এই গরমে বেঁচে দায় হয়ে পড়েছে। তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে হিট স্ট্রোকের (Heat Stroke) ঝুঁকি। সুস্থ থাকতে একমাত্র দাওয়াই হাইড্রেশন (Hydration Tips)। এই অবস্থায় কোনও ভাবেই শরীরকে ডিহাইড্রেটেড হতে দেওয়া যাবে না। এর জন্য প্রচুর পরিমাণে জল পান করতে হবে। এর সঙ্গেও এমন কিছু শরবত পান করুন যেটা শরীরে জলের চাহিদা পূরণ করবে এবং শক্তি জোগাবে। বাজারে একাধিক হেলথ ড্রিংক্স পাওয়া যায়। কিন্তু সেই সব প্রিসার্ভ‌ ড্রিংক্সের চেয়ে ভাল হয় যদি আপনি ভাজা কোনও শরবত পান করেন। এর জন্য সেরা হল ছাতুর শরবত। ছাতু আপনি অনেক ভাবে খেতে পারেন। কিন্তু গরমে ছাতু (Sattu) খাওয়ার উপকারিতাগুলি কী-কী, তা জানেন?

ছাতুর মধ্যে রয়েছে আয়রন, সোডিয়াম, ফাইবার, প্রোটিন এবং ম্যাগনেসিয়াম। অন্যদিকে, ছাতু প্রোটিনের একটি ভাল উৎস, বিশেষ করে যাঁরা নিরামিষ খাবার খান এবং যাঁরা একটি ভেষজ প্রোটিন শেক খুঁজছেন তাদের জন্য। ছাতু দিয়ে তৈরি প্রোটিন শেকও আপনার পেশীর ওজন বাড়াতে সহায়তা করে।

গরমে ছাতুর শরবত পান করলে হ্রাস পায় হিট স্ট্রোকের ঝুঁকি। গরমের দিনেও শরীরকে ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে এই পানীয়। গরমে তাৎক্ষণিক শীতল প্রভাব ফেলে শরীরে। তাছাড়া খালি পেটে এক গ্লাস ছাতুর শরবত পান করলে সারাটা দিন আপনি ফুরফুরে থাকতে পারেন। এটি আপনার মধ্যে শক্তির জোগান দেয় যার ফলে সারাদিনের কর্মেও আপনি এনার্জি পান।

ছাতুর শরবত খেলে শরীরে ভিটামিন ও মিনারেলের ভারসাম্য বজায় থাকে। খালি পেটে ছাতুর শরবত পান করলে শরীর থেকে সমস্ত টক্সিন পদার্থ বেরিয়ে যায়। নুন, আয়রন ও ফাইবারের সংমিশ্রণ হজমে সাহায্য করে। সহজেই পেট পরিষ্কার করে দেয় এবং মেটাবলিজম বৃদ্ধি করে। যার ফলে ওজনও কমে যায় সহজেই।

গবেষণায় দেখা গেছে নিয়মিত ছাতুর শরবত পান করলে দেহের ভিতরে এমন কিছু উপাদানের মাত্রা বৃদ্ধি পায় যে, তার প্রভাবে রক্তে উপস্থিত টক্সিক উপাদানে শরীর থেকে বেরিয়ে যায়। ফলে স্বাভাবিকভাবেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও শরীরে বৃদ্ধি পায়।

গ্লাইসেমিক ইনডেক্স কম হওয়ার জন্য ছাতুর শরবতে থাকা শর্করা ধীরে ধীরে রক্তে মেশে, যেখান থেকে ডায়বেটিসও নিয়ন্ত্রণে থাকে। তার সঙ্গে রক্তচাপও নিয়ন্ত্রণে থাকে। রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রাও ধীরে ধীরে কমে যায় এবং এই সব কারণে হার্টও সুস্থ থাকে।

ঋতুস্রাব চলাকালীন মহিলারা শারীরিক ভাবে দুর্বল হয়ে পড়েন। এই সময় তাঁদের শরীরে বেশি করে ভিটামিন ও মিনারেলের প্রয়োজন হয়। এই সময় যদি ছাতুর শরবত পান করা যায় তাহলে ঋতুস্রাব চলাকালীন যে সব শারীরিক সমস্যা দেখা দেয় তা অনায়াসে প্রতিরোধ করা যায়।

আরও পড়ুন: রোজ রাতে এক পেগ ছাড়া চলে না? সাবধান, মারাত্মক ভুল করছেন

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla