Video: ‘ছুঁয়ো না ছুঁয়ো না মুঝে’, ‘ডোন্ট টাচ’ বিতর্কে গান গাইলেন কুণাল

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: জয়দীপ দাস

Updated on: Sep 15, 2022 | 6:14 PM

Kunal Ghosh: ‘ছুঁয়ো না ছুঁয়ো না মুঝে’, ‘ডোন্ট টাচ’ বিতর্কে শুভেন্দুর বিরুদ্ধে তোপ দাগতে গিয়ে গান গাইলেন কুণাল।

Video:  ‘ছুঁয়ো না ছুঁয়ো না মুঝে’, ‘ডোন্ট টাচ’ বিতর্কে গান গাইলেন কুণাল

কলকাতা: “ডোন্ট টাচ মাই বডি। ইউ আর লেডি, আই অ্যাম মেলস। একজন মহিলা পুলিশ কর্মী হয়ে আমার গায়ে হাত দিচ্ছেন কেন? আমি গায়ে হাত দিতে দেব না।” রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর এই মন্তব্য নিয়ে বিগত কয়েকদিন ধরে জোরদার চাপানউতর চলছে রাজনৈতিক মহলে। ১৩ সেপ্টেম্বর বিজেপির নবান্ন অভিযানের দিন এক মহিলা পুলিশকে গায়ে হাত দিতে নিষেধ করতে গিয়ে এ কথা বলেছিলেন শুভেন্দু। তারপরই তাঁর বিরুদ্ধে লাগাতার আক্রমণ শানাতে দেখা গিয়েছে তৃণমূল নেতাদের। বুধবার তীব্র আক্রমণ করেছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এবার ময়দানে নামলেন তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। ‘ডোন্ট টাচ’ বিতর্কে শুভেন্দুর বিরুদ্ধে তোপ দাগতে গিয়ে গাইলেন গান।  

বৃহস্পতিবার সাংবাদিক সম্মেলনে কুণাল বলেন, “পুলিশের আবার মহিলা-পুরুষের কী আছে! শুভেন্দু চাপে পড়ে গিয়েছে।” এ কথা বলেই কুণালের গলায় শোনা যায়, ‘ছুঁয়ো না ছুঁয়ো না মুঝে’ গানের কলি। দু কলি গেয়েই ফের তীব্র আক্রমণ শানিয়ে কুণাল বলেন, “আজ থেকে ৮-৯ বছর আগে মহিলা পুলিশ দিয়ে এক সময় ঘিরে রাখা হয়েছিল আমায়। তাতে কী হয়েছে। বলছে চক্রান্ত করে আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। কিসের চক্রান্ত!” কুণাল আরও বলেন, “সেদিন বলেছিলেন জ্ঞানবন্ত সিং এসেছিলেন। জ্ঞানবন্ত সিং ইশারা করেছিলেন। আরে জ্ঞানবন্ত ছুটিতে। ওই দিন জ্ঞানবন্ত ওখানে ছিলেন না। শুভেন্দু ভূত দেখছে। পুরুষকে মহিলা দেখছে। মহিলাকে পুরুষ দেখছে।”

এদিকে বুধবারই আবার এই ইস্যুতে শুভেন্দুকে তোপ দাগতে দেখা গিয়েছিল তৃণমূলের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। চাঁচাছোলা ভাষায় কটাক্ষবাণ শানিয়ে তিনি বলেন, “উনি বলছেন আই অ্যাম মেলস। ইউ আর লেডি। আবার লালবাজারে গিয়ে লাইভ করে বলেছেন মহিলাদের আমরা মা দুর্গার চোখে দেখি। তাহলে মহিলাদের আপনি যদি মা দুর্গা হিসাবে দেখেন তাহলে মা দুর্গা আপনাকে কাঁধে হাত দিয়ে, পিঠে হাত দিয়ে পুলিশের ভ্যানে নিয়ে যাচ্ছেন এতে আপত্তি কিসের?”

এই খবরটিও পড়ুন

আজ ডোন্ট টাচ নিয়ে শুভেন্দু দাবি করেন, সে দিন রাস্তায় তিনজন আইপিএস অফিসার ছিলেন, শতাধিক কনস্টেবল ছিলেন, তা সত্ত্বেও তাঁকে ধরতে এসেছিলেন মহিলা পুলিশ কনস্টেবল। শুভেন্দুর দাবি, প্রত্যেক ক্রিয়ারই প্রতিক্রিয়া আছে। সেই হিসেবে তিনিও যদি সে দিন কোনও প্রতিক্রিয়া দিতেন, তাহলে তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক ধারায় মামলা হতে পারত। এমনকী নিজে হেঁটে প্রিজন ভ্যানে না গেলে মহিলা পুলিশের সঙ্গে হাতাহাতি হতে পারত বলেও দাবি করেছেন তিনি।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla