Exclusive Anik Dutta: তৃণমূল নেত্রী সায়নী ঘোষকে কেন বেছেছিলেন বিজয়ার চরিত্রে? জানালেন অনীক

Sayani Ghosh: রাজ্যের শাসকের ‘অপছন্দের পাত্র’ হওয়াতেই অনীকের ছবিতে ‘কোপ’ পড়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু অনীকের এই ছবিতে বিজয়ার চরিত্রে অভিনয় করেছেন সায়নী ঘোষ। টলি অভিনেত্রী সায়নী এখন তৃণমূল শিবিরে। রাজ্য যুব তৃণমূলের সভানেত্রীও তিনি।

Exclusive Anik Dutta: তৃণমূল নেত্রী সায়নী ঘোষকে কেন বেছেছিলেন বিজয়ার চরিত্রে? জানালেন অনীক
'অপরাজিত' ছবিতে সায়নী ভালো কাজ করছেন বলে মনে করেন অনীক দত্ত
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Angshuman Goswami

May 22, 2022 | 7:55 PM

কলকাতা: অনীক দত্তের পরিচালিত ‘অপরাজিত’ (২০২২) ছবিটি জায়গা পায়নি নন্দনের মতো প্রেক্ষাগৃহে। সত্যজিৎ রায়ের জন্মশতবার্ষিকীতে বানানো সিনেমা নন্দনের মতো প্রেক্ষাগৃহে জায়গা না পাওয়া নিয়ে ছড়িয়েছিল বিতর্ক। রাজ্যের শাসকের ‘অপছন্দের পাত্র’ হওয়াতেই অনীকের ছবিতে ‘কোপ’ পড়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু অনীকের এই ছবিতে বিজয়ার চরিত্রে অভিনয় করেছেন সায়নী ঘোষ। টলি অভিনেত্রী সায়নী এখন তৃণমূল শিবিরে। রাজ্য যুব তৃণমূলের সভানেত্রীও তিনি। আসানসোল দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্র থেকে ঘাসফুটের টিকিটে লড়াই করে হেরেছেন। যদিও অপরাজিত ছবি নন্দনে না দেখানো নিয়ে প্রতিক্রিয়াও দিয়েছিলেন তিনি। যদিও সেই প্রতিক্রিয়ার ব্যাপারে সায়নীর সঙ্গে কোনও কথা তাঁর হয়নি বলে দাবি অনীকের। কিন্তু সায়নীকে এই ছবিতে কেন বেছেছিলেন তিনি, তা নিজেই জানিয়েছেন টিভি৯ বাংলায়।

সায়নী ঘোষকেই বিজয়ার চরিত্রের জন্য উপযুক্ত ভেবেছিলেন ‘অপরাজিত’ (২০২২)-এর পরিচালক। তবে এই চরিত্রের জন্য যখন সায়নীর কথা ভেবেছিলেন অনীক তখন তৃণমূলে যোগ দেননি সায়নী। তবে তার পর সায়নী তৃণমূলে যোগ দিলেও নিজের মনোভাবের পরিবর্তন করেননি অনীক। তৃণমূল নেত্রী সায়নীকেই এই চরিত্রে অভিনয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন নিজের ছবির জন্য সরকারি প্রেক্ষাগৃহ না পাওয়া অনীক। সেই কাজ সায়নী যে ভালভাবেই করেছেন, তাও জানিয়েছেন ‘ভূতের ভবিষ্যত’-এর পরিচালক। এ ব্যাপারে অনীক টিভি৯ বাংলার সাক্ষাৎকারে বলেছেন, “এই চরিত্রের জন্য সায়নীকেই বেস্ট বলে মনে হয়েছিল আমার। আমি যখন ভেবেছিলাম তখন ও রাজনীতিতে ঢোকেনি। যত দিনে আমি ওকে বলেছি, তখন ও রাজনীতিতে যোগ দিয়েছে। কিন্তু কাজটা ও করবে বলেছিল। এত ভালো কাজ করেছে ও, আমি খুব খুশি।“ রাজনীতি ও অভিনয় ২টো আলাদা পেশা। কাজের ক্ষেত্রে যে কোনও পেশাদারের এই পরিণতবোধ থাকা উচিত বলেই মনে করেন অনীক।

সত্যজিৎ রায়ের উপর নির্মিত তাঁর অভিনীত ছবি জায়গা পায়নি নন্দনে। এ নিয়ে বিতর্ক ছড়াতেই নেটিজেনরা সায়নীর অবস্থান নিয়ে প্রশ্ন তোলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তখন সংবাদমাধ্যমে সায়নী বলেছিলেন, “ছবিটা কেবল অনীক দত্তের ছবি হিসাবে নয়, সত্যজিৎ রায়ের ছবি হিসাবে দেখছি। সেই পরিচালক যিনি বাংলাকে বিশ্বের দরবারে তুলে নিয়ে গিয়েছিলেন। তাঁর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে ‘অপরাজিত’ বানানো। সেই ছবি নন্দনে জায়গা পেল না। এটা আমায় সবচেয়ে বেশি আঘাত দিচ্ছে। নন্দন কর্তৃপক্ষের এই পদক্ষেপ মানতে খুবই কষ্ট হচ্ছে। আমি এ বারেও অনীকদার পাশেই।“

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla