Recipe: উত্‍সবের দিনগুলিতে স্বাস্থ্যকর মিষ্টি হিসেবে বানিয়ে ফেলুন ওটস ও হানি বল! রইল দুরন্ত ও সহজ রেসিপিটি…

শিশুদের ক্ষেত্রে এক গ্লাস গরম দুধের সঙ্গে দুটি স্বাস্থ্যকর ওটস-হানি বল দিলে এর থেকে সুস্বাদু ও স্বাস্থ্যকর ব্রেকফাস্ট কিছু হয় না।

Recipe: উত্‍সবের দিনগুলিতে স্বাস্থ্যকর মিষ্টি হিসেবে বানিয়ে ফেলুন ওটস ও হানি বল! রইল দুরন্ত ও সহজ রেসিপিটি...
ছবিটি প্রতীকী

খাবারের শেষে কিংবা যথন তখন মিষ্টির প্রতি একটা আলাদা অনুভব করেন! ফ্রিজ খুলে ঠান্ডা কোনও মিষ্টি ২-৩ টি মুখে চলে যায় অনায়াসে। একপ্রকার অস্বাস্থ্যকর খাবার খাচ্ছেন জেনেও নিজের লোভ সামলানো যায় না। তবে এই সমস্যা অনেকরই। এমন ক্রেভিং কাটাতে বাড়িতে রাখুন কিছু স্বাস্থ্যকর মিষ্টি জাতীয় খাবার, যা স্ন্যাকস হিসেবেও আপনি টিফিনে খেতে পারেন। বড়দের জন্য তো বটেই, শিশুদের জন্যও উপকারী ওটস ও হানি বল। স্বাস্থ্যকর তো বটেই, খুব সহজেও বানানো যায় এই রেসিপিটি। উত্‍সবের মরসুমে চা টাইম স্ন্যাকস হিসেবেও এটি খাওয়া যেতে পারে। পিকনিক, রোড ট্রিপের মতো প্ল্যানিংয়েক সঙ্গী হিসেবে ব্যাগের মধ্যে রাখা যায় অনায়াসে। এয়ার টাইট পাত্রের মধ্যে এটি সংরক্ষণ করা সম্ভব। শিশুদের ক্ষেত্রে এক গ্লাস গরম দুধের সঙ্গে দুটি স্বাস্থ্যকর ওটস-হানি বল দিলে এর থেকে সুস্বাদু ও স্বাস্থ্যকর ব্রেকফাস্ট কিছু হয় না। কয়েক মিনিটের মধ্যে এই সহজ রেসিপিটি বানাবেন কীভাবে, দেখে নিন এখানে…

কী কী লাগবে

২ ১/২ কাপ ওটস, আধ কাপ কিসমিস, আধ চা চামচ দারচিনি পাউডার, ২ টেবিলস্পুন কনডেন্সন্ড মিল্ক, ১ চা চামচ ভ্যানিলা এসেন্স, আধ কাপ কুমড়োর বীজ, ২ টেবিলস্পুন সূর্যমুখী বীজ, ১ কাপ মধু, আধ কাপ সরু করে কাটা আমন্ড, ১/৪ কাপ জল

কীভাবে তৈরি করবেন

গ্রেন্ডারের ওটস, কুমড়োর বীজ একসঙ্গে দিয়ে ব্লেন্ড করে নিন। পাউডারের মতো হয়ে গেলে একটি পাত্রের মধ্যে রেখে দিন। এবার একটি বড় পাত্রের মধ্যে ওটস ও কুমড়োর বীজ গুঁড়োর সঙ্গে কিসমিস, সূর্যমু্খী বীজ, দারচিনি পাউডার যোগ করে মিশিয়ে নিন।

এবার তাতে সরু করে কুচি কুচি করা আমন্ড, মধু, কনডেন্সন্ড মিল্ক ও ভ্যানিলা এসেন্স যোগ করুন। এবার সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এরপর একটি ডো বানিয়ে তা থেকে ছোট ছোট বল তৈরি করুন।

ওটস ও কুমড়োর বীজের পাউডার অল্প হলেও আগে একটু রেখে দিলে ভাল হয়। কারণ বল তৈরি করা পর সেগুলি এই পাউডারের মধ্যে একবার বুলিয়ে নিন। দেখতে সুন্দর লাগবে। তৈরি হয়ে গেলে ফ্রিজের মধ্যে ৩০ মিনিট রেখে দিন। ফ্রিজের মধ্যে স্টোর করে রেখে দিতে পারেন। ঠান্ডা ঠান্ডা খেতে বেশি ভাল লাগবে।

আরও পড়ুন: Mutton Curry Recipe: এবার মটন কারিতে আনুন ট্যুইস্ট! ছুটির দিনে পাতে পড়ুক নয়া স্বাদের রেসিপি

 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla