Rohtang Pass: পর্যটন শিল্পে আবারও ভাঁটা! বন্ধ করা হল হিমাচলের জনপ্রিয় রোটাং পাস

চলতি বছরে উত্তরাখণ্ড ও হিমাচল প্রদেশ সাক্ষী হয় প্রকৃতির তাণ্ডবেরও। সময়ের আগেই অক্টোবর মাসে বরফে ঢাকা পড়েছিল এই দুই রাজ্যে। এই প্রাকৃতিক দুর্যোগে প্রাণ হারিয়েছেন স্থানীয় সহ বহু পর্যটক।

Rohtang Pass: পর্যটন শিল্পে আবারও ভাঁটা! বন্ধ করা হল হিমাচলের জনপ্রিয় রোটাং পাস
রোটাং পাস, হিমাচল প্রদেশ

শীতের ছুটি পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই সবাই তৈরি হয়ে যায় ব্যাগ গুছিয়ে। শীতের সময়, তাই তুষারপাত দেখার দৃশ্য কোনওভাবেই মিস করা চলে না। এই সময় অনেকেই মানালি রুটে বেড়াতে যান। বরফের সঙ্গে অ্যাডভেঞ্চার, যা এই রুটের বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রে অন্বেষণ করা যায়। আর মানালি থেকে কয়েক কিলোমিটারের দূরত্বে রয়েছে রোটাংপাস। সেখানেও আপনি বরফ ও প্যারা রাইডিংয়ের মত নানা অ্যাডভেঞ্চার করতে পারেন। কিন্তু এই বছর আপনার আর যাওয়া হবে না রোটাং পাস।

হিমাচল প্রদেশ সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে পর্যটকদের জন্য বন্ধ করা হল রোটাংপাস। ২০২১ এ তো আর নয়ই, বছর শুরুতেও খুলবে না রোটাং পাস। ২০২২ সালের এপ্রিলের শেষে খুলতে পারে রোটাং পাস। তার আগে অবধি পর্যটকদের যাওয়া নিষিদ্ধ ওই জায়গায়।

চলতি বছরে উত্তরাখণ্ড ও হিমাচল প্রদেশ সাক্ষী হয় প্রকৃতির তাণ্ডবেরও। সময়ের আগেই অক্টোবর মাসে বরফে ঢাকা পড়েছিল এই দুই রাজ্যে। এই প্রাকৃতিক দুর্যোগে প্রাণ হারিয়েছেন স্থানীয় সহ বহু পর্যটক। নিরুদ্দেশ হয়েছিল একাধিক ট্রেকিং দল। রাতারাতি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল বিভিন্ন সড়ক পথ। এই পরিস্থিতিকে সামাল দিতে উত্তরাখণ্ড সরকার নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল চার ধাম যাত্রায়। অন্যদিকে, হিমাচল প্রদেশের সরকারও স্পিতি ভ্যালির রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছিল পর্যটকদের জন্য।

এখন রোটাং পাসও বন্ধ করে দিল হিমাচল প্রদেশ সরকার। কারণ যদিও একটাই। আবহাওয়া ভাল নয়। রাস্তা অত্যন্ত পিচ্ছিল হয়ে রয়েছে এখনও। ওই রাস্তা গাড়ি চললে যে কোনও মুহূর্তে ঘটতে পারে কোনও দুর্ঘটনা। তাই এই বিষয়কে মাথায় রেখেই পর্যটনদের জন্য বন্ধ করা হয়েছে রোটাং পাস। এমনকি জানা গিয়েছে, এর জন্য রোটাং পাসের অনলাইন পারমিটও বন্ধ থাকবে।

রাজ্য সরকারের তরফ থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে এই বিষয়ে। সেখানে স্পষ্টভাবে জানানো হয়েছে যে, পরবর্তী আদেশ না দেওয়া পর্যন্ত কোঠি গ্রাম ছাড়িয়ে রোটাং পাসের দিকে সব ধরনের যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ। এর আগে, বর্ডার রোডস অর্গানাইজেশন (বিআরও) প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে বেসামরিক নাগরিকদের জন্য পাস বন্ধ করার পরামর্শও দেয়। বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে যে যেহেতু অনেক জায়গায় জল হিমায়িত থাকে, তাই রাস্তাগুলি নির্দিষ্ট যে কোনও পয়েন্টে পিচ্ছিল হতে পারে।

হিমাচলের যেখানেই আপনি বেড়াতে যান না কেন, আপনাকে পাড় করতেই হবে এই পাস। ১৩,০৫০ ফুট উচ্চতায় অবস্থিত এই পাস একটি গুরুত্বপূর্ণ প্যাসেজ যা কুলু উপত্যকাকে হিমাচল প্রদেশের লাহুল এবং স্পিতি উপত্যকার সঙ্গে সংযুক্ত করে। যেহেতু এই পাস এখন বন্ধ তাই মানালির আগে যাওয়াটা সম্ভব নয়। অন্যদিকে, ২ নভেম্বর থেকেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে মানালি-লেহ হাইওয়ে। তবে অটল টানেলের মাধ্যমে ভারতীয় সেনাবাহিনী, পুলিশ এবং জরুরী পরিষেবা যানবাহনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: করোনার আতঙ্কের মধ্যেই শুরু হচ্ছে বিখ্যাত চেরি ব্লসম উত্‍সব!

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla