দেখুন গ্যালারি: বলিউডে বাইরে থেকে এসেও রাজ করছেন যাঁরা

সম্প্রতি অভিনেত্রী তাপসী পান্নু লঞ্চ করলেন তাঁর প্রযোজনা সংস্থা 'আউটসাইডার্স ফিল্মস'। নামেই তিনি স্পষ্ট করেছেন অনেককিছু। 'আউটসাইডার্স'—টিনসেল টাউনে বাইরে থেকে এসে পাকাপাকি জায়গা করে নিতে চান যাঁরা, সেই প্রতিভাবানদের জন্য এই প্ল্যাটফর্ম। তিনি নিজেকেও একজন বাইরের ব্যক্তি বলেই পরিচয় দিয়েছেন। তাপসীর মতো আরও অনেকেই আছেন, যাঁরা পরিবারের পরিচিতির জন্য নয়, কিংবা কোনও গডফাদার ছাড়াই রাজ করছেন হিন্দি সিনেমার জগতে। দেখুন ছবিতে -

1/7
শাহরুখ খান—বলিউডে তিনজন খান। কিন্তু 'কিং' একজনই। তিনি কিং খান শাহরুখ। ছোটবেলায় খেলাধূলা করতে ভালবাসতেন। চোট পাওয়ায় খেলা ছাড়তে হয়েছিল তাঁকে। তারপর আসে অভিনয়ের অফার। 'ফৌজি' সিরিয়ালে কাজের সুযোগ পান। মুম্বই শহরে পা রাখেন শাহরুখ। এক সন্ধ্যায় রাস্তার একটি দোকানে বিরিয়ানি খাচ্ছিলেন। প্রযোজক বিবেক ভাসওয়ানি এসে আলাপ করেন শাহরুখের সঙ্গে। সিনেমায় অভিনয় করার অফার দেন তাঁকে। পরের দিন তাঁকে জিপি সিপ্পির কাছে নিয়ে যান। একদিনে পাঁচটি ছবিতে সই করেছিলেন শাহরুখ।
শাহরুখ খান—বলিউডে তিনজন খান। কিন্তু 'কিং' একজনই। তিনি কিং খান শাহরুখ। ছোটবেলায় খেলাধূলা করতে ভালবাসতেন। চোট পাওয়ায় খেলা ছাড়তে হয়েছিল তাঁকে। তারপর আসে অভিনয়ের অফার। 'ফৌজি' সিরিয়ালে কাজের সুযোগ পান। মুম্বই শহরে পা রাখেন শাহরুখ। এক সন্ধ্যায় রাস্তার একটি দোকানে বিরিয়ানি খাচ্ছিলেন। প্রযোজক বিবেক ভাসওয়ানি এসে আলাপ করেন শাহরুখের সঙ্গে। সিনেমায় অভিনয় করার অফার দেন তাঁকে। পরের দিন তাঁকে জিপি সিপ্পির কাছে নিয়ে যান। একদিনে পাঁচটি ছবিতে সই করেছিলেন শাহরুখ।
2/7
অক্ষয় কুমার—হিন্দি সিনেমার স্তম্ভ বলা হয় অক্ষয়কে। কেরিয়ারের শুরুতে তেমন দাগ না কাটলেও পরবর্তী সময়ে নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করেছেন। একসময় ব্যাংককের রেস্তরাঁয় কাজ করতেন 'ইন্টারন্যাশনাল খিলাড়ি'। সেই জায়গা থেকে আজ তিনি বলিউডের বড় নাম। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় মাস্টারক্লাসের কথাও ঘোষণা করেছেন অক্ষয়। কেরিয়ারের শুরুর দিকের একটি ঘটনা শেয়ার করেছেন অক্ষয় নিজেই। একবার ফ্লোরে যেতে দেরি হয়েছিল তাঁর। সেই অপরাধে তাঁকে শুনতে হয়েছিল, তিনি এই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করার যোগ্য ব্যক্তি নন। সেদিন বিকেলেই এক মেকআপ আর্টিস্ট তাঁকে নিয়ে যান নটরাজ স্টুডিয়োতে। প্রযোজক প্রমোদ চক্রবর্তী তাঁকে প্রথম অভিনয়ের অফার করেছিলেন। ছবির নাম 'দিদার'। তারপর আর পিছন ফিরে তাকাননি অক্ষয়।
অক্ষয় কুমার—হিন্দি সিনেমার স্তম্ভ বলা হয় অক্ষয়কে। কেরিয়ারের শুরুতে তেমন দাগ না কাটলেও পরবর্তী সময়ে নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করেছেন। একসময় ব্যাংককের রেস্তরাঁয় কাজ করতেন 'ইন্টারন্যাশনাল খিলাড়ি'। সেই জায়গা থেকে আজ তিনি বলিউডের বড় নাম। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় মাস্টারক্লাসের কথাও ঘোষণা করেছেন অক্ষয়। কেরিয়ারের শুরুর দিকের একটি ঘটনা শেয়ার করেছেন অক্ষয় নিজেই। একবার ফ্লোরে যেতে দেরি হয়েছিল তাঁর। সেই অপরাধে তাঁকে শুনতে হয়েছিল, তিনি এই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করার যোগ্য ব্যক্তি নন। সেদিন বিকেলেই এক মেকআপ আর্টিস্ট তাঁকে নিয়ে যান নটরাজ স্টুডিয়োতে। প্রযোজক প্রমোদ চক্রবর্তী তাঁকে প্রথম অভিনয়ের অফার করেছিলেন। ছবির নাম 'দিদার'। তারপর আর পিছন ফিরে তাকাননি অক্ষয়।
3/7
রণবীর সিং—নিজেকে একজন বর্ন এন্টারটেইনার মনে করেন রণবীর সিং। কিন্তু কোনওদিনও ভাবেননি ছবিতে অভিনয় করবেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইন্ডিয়ানা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক রণবীর সেখানে একটি কফি শপে ওয়েটারের কাজ করতেন। দেশে ফিরে কপি রাইটারের কাজ শুরু করেছিলেন। ভাগ্য সহায় ছিল, তাই ছবিতে সহকারী পরিচালক হওয়ার সুযোগ পান। বহু অডিশন দিয়েছেন। শেষমেশ, 'ব্যান্ড বাজা বারাত'-এর কাস্টিং ডিরেক্টরের নজরে আসেন। বাকিটা ইতিহাস।
রণবীর সিং—নিজেকে একজন বর্ন এন্টারটেইনার মনে করেন রণবীর সিং। কিন্তু কোনওদিনও ভাবেননি ছবিতে অভিনয় করবেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইন্ডিয়ানা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক রণবীর সেখানে একটি কফি শপে ওয়েটারের কাজ করতেন। দেশে ফিরে কপি রাইটারের কাজ শুরু করেছিলেন। ভাগ্য সহায় ছিল, তাই ছবিতে সহকারী পরিচালক হওয়ার সুযোগ পান। বহু অডিশন দিয়েছেন। শেষমেশ, 'ব্যান্ড বাজা বারাত'-এর কাস্টিং ডিরেক্টরের নজরে আসেন। বাকিটা ইতিহাস।
4/7
অনুষ্কা শর্মা—অভিনেত্রীদের মধ্যে অন্যতম সফল অনুষ্কা শর্মা। তিনি একজন সফল প্রযোজকও। কেরিয়ারের শুরুতে ছিলেন একজন মডেল। ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির নাম শুনলেই ভয় পেতেন। কিন্তু তাঁর ম্যানেজার তাঁকে সাহজ জুগিয়েছিলেন। বলেছিলেন, দরজা খোলা রাখতে। এক সময় 'রব নে বানাদি জোড়ি' ছবির অডিশন দেন। জানতেনও না, সেই ছবিটি যশরাজ ফিল্মসের ব্যানারে তৈরি হচ্ছে। এক সাক্ষাৎকারে অনুষ্কা বলেছেন, "আমাকে আদিত্য চোপড়া ছবি অফার করেছেন এটা বুঝে যে আমি সেই রোলটির জন্য ব্যাকুল ছিলাম না।"
অনুষ্কা শর্মা—অভিনেত্রীদের মধ্যে অন্যতম সফল অনুষ্কা শর্মা। তিনি একজন সফল প্রযোজকও। কেরিয়ারের শুরুতে ছিলেন একজন মডেল। ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির নাম শুনলেই ভয় পেতেন। কিন্তু তাঁর ম্যানেজার তাঁকে সাহজ জুগিয়েছিলেন। বলেছিলেন, দরজা খোলা রাখতে। এক সময় 'রব নে বানাদি জোড়ি' ছবির অডিশন দেন। জানতেনও না, সেই ছবিটি যশরাজ ফিল্মসের ব্যানারে তৈরি হচ্ছে। এক সাক্ষাৎকারে অনুষ্কা বলেছেন, "আমাকে আদিত্য চোপড়া ছবি অফার করেছেন এটা বুঝে যে আমি সেই রোলটির জন্য ব্যাকুল ছিলাম না।"
5/7
প্রিয়াঙ্কা চোপড়া—প্রাক্তন বিশ্বসুন্দরী তিনি। মাত্র ১৮ বছর বয়সে বিশ্বসুন্দরীর মুকুট উঠেছিল তাঁর মাথায়। তারপর আসে ফিল্মের অফার। কিন্তু অত কম বয়সে বুঝতেন না কোন ছবিতে সাইন করা উচিত। তাঁকে গাইড করারও কেউ ছিল না। সেই স্ট্রাগেল পিরিয়ডে বেশকিছু ছবি আটকে যায় প্রিয়াঙ্কার। হতাশায় ডুবে ফিল্ম দুনিয়া ছাড়বেন বলে ঠিক করেছিলেন। কিন্তু তারপরই মুক্তি পায় প্রিয়াঙ্কা অভিনীত 'আন্দাজ' ছবিটি। তারপর শুধুই সাফল্য।
প্রিয়াঙ্কা চোপড়া—প্রাক্তন বিশ্বসুন্দরী তিনি। মাত্র ১৮ বছর বয়সে বিশ্বসুন্দরীর মুকুট উঠেছিল তাঁর মাথায়। তারপর আসে ফিল্মের অফার। কিন্তু অত কম বয়সে বুঝতেন না কোন ছবিতে সাইন করা উচিত। তাঁকে গাইড করারও কেউ ছিল না। সেই স্ট্রাগেল পিরিয়ডে বেশকিছু ছবি আটকে যায় প্রিয়াঙ্কার। হতাশায় ডুবে ফিল্ম দুনিয়া ছাড়বেন বলে ঠিক করেছিলেন। কিন্তু তারপরই মুক্তি পায় প্রিয়াঙ্কা অভিনীত 'আন্দাজ' ছবিটি। তারপর শুধুই সাফল্য।
6/7
দীপিকা পাড়ুকোন—বিখ্যাত ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় প্রকাশ পড়ুকোনের জ্যেষ্ঠ কন্যা দীপিকা চাইলেই ব্যাডমিন্টন খেলাকে করতে পারতেন তাঁর কেরিয়ার। জাতীয় স্তরে ব্যাডমিন্টন খেলেছেন তিনিও। কিন্তু সেটাই তাঁর কাছে সবকিছু ছিল না। মা-বাবার পরামর্শে মডেলিংকে পেশা হিসেবে বেছে নেন। একসময় বহু বিজ্ঞাপনের মুখ ছিলেন দীপিকা। হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে একটি মিউজিক ভিজিয়োতে তাঁর কাজ নজর কাছে পরিচালক ও কোরিওগ্র্যাফার ফারাহ খানের। 'ওম শান্তি ওম' ছবিতে আসে অভিনয়ের সুযোগ। তারপরও হতাশা গ্রাস করে দক্ষিণী ভারতীয় দীপিকাকে। দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দিয়ে কামব্যাক করেন 'ককটেল' ছবিতে। তারপর আর তাঁকে হারানো যায়নি।
দীপিকা পাড়ুকোন—বিখ্যাত ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় প্রকাশ পড়ুকোনের জ্যেষ্ঠ কন্যা দীপিকা চাইলেই ব্যাডমিন্টন খেলাকে করতে পারতেন তাঁর কেরিয়ার। জাতীয় স্তরে ব্যাডমিন্টন খেলেছেন তিনিও। কিন্তু সেটাই তাঁর কাছে সবকিছু ছিল না। মা-বাবার পরামর্শে মডেলিংকে পেশা হিসেবে বেছে নেন। একসময় বহু বিজ্ঞাপনের মুখ ছিলেন দীপিকা। হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে একটি মিউজিক ভিজিয়োতে তাঁর কাজ নজর কাছে পরিচালক ও কোরিওগ্র্যাফার ফারাহ খানের। 'ওম শান্তি ওম' ছবিতে আসে অভিনয়ের সুযোগ। তারপরও হতাশা গ্রাস করে দক্ষিণী ভারতীয় দীপিকাকে। দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দিয়ে কামব্যাক করেন 'ককটেল' ছবিতে। তারপর আর তাঁকে হারানো যায়নি।
7/7
কঙ্গনা রানাওয়াত—মডেলিং ও ফিল্মে কাজ করার আশা নিয়ে মাত্র ১৬ বছর বয়সে বাড়ি ছেড়েছিলেন কঙ্গনা রানাওয়াত। দিল্লি এসেছিলেন মডেলিং করতে। এক এজেন্সির হয়ে মডেলিং করেন। কিছু সময় পর তাঁকে মুম্বই পাঠিয়ে দেয় সেই এজেন্সি। এক এজেন্ট তাঁকে নিয়ে যান মহেশ ভাটের অফিসে। প্রথমে 'গ্যাংস্টার' ছবির জন্য নাকচ হয়ে যান কঙ্গনা। কারণ, তাঁর বয়স। ছবিতে সিমরান চরিত্রটির জন্য আরও বেশি বয়সের একজন অভিনেত্রীকে খুঁজছিল প্রযোজনা সংস্থা। কিছুদিন পর ছবির পরিচালক অনুরাগ বসু কঙ্গনাকে ডেকে পাঠান রোলটির জন্য। সেই থেকে কঙ্গনার বলি যাত্রা শুরু। বরাবরই বলিউডে নেপোটিজম নিয়ে সরব হয়েছেন কঙ্গনা। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর তিনি আরও বেশি সরব হয়েছিলেন।
কঙ্গনা রানাওয়াত—মডেলিং ও ফিল্মে কাজ করার আশা নিয়ে মাত্র ১৬ বছর বয়সে বাড়ি ছেড়েছিলেন কঙ্গনা রানাওয়াত। দিল্লি এসেছিলেন মডেলিং করতে। এক এজেন্সির হয়ে মডেলিং করেন। কিছু সময় পর তাঁকে মুম্বই পাঠিয়ে দেয় সেই এজেন্সি। এক এজেন্ট তাঁকে নিয়ে যান মহেশ ভাটের অফিসে। প্রথমে 'গ্যাংস্টার' ছবির জন্য নাকচ হয়ে যান কঙ্গনা। কারণ, তাঁর বয়স। ছবিতে সিমরান চরিত্রটির জন্য আরও বেশি বয়সের একজন অভিনেত্রীকে খুঁজছিল প্রযোজনা সংস্থা। কিছুদিন পর ছবির পরিচালক অনুরাগ বসু কঙ্গনাকে ডেকে পাঠান রোলটির জন্য। সেই থেকে কঙ্গনার বলি যাত্রা শুরু। বরাবরই বলিউডে নেপোটিজম নিয়ে সরব হয়েছেন কঙ্গনা। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর তিনি আরও বেশি সরব হয়েছিলেন।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla