Stunning Images Of Universe: মৃত্যু পথযাত্রী এক তারার শেষ নৃত্য! অকল্পনীয় ছবি ধরা পড়ল নাসার জেমস ওয়েব টেলিস্কোপে, দেখুন

James Webb Space Telescope: বিগ ব্যাংয়ের পরবর্তী মহাজাগতিক দুনিয়ার প্রথম ছবিটি প্রকাশ করার পর এবার পরবর্তী সেটের কয়েকটি চিত্তাকর্ষক ছব প্রকাশ করল নাসা। নেবুলা নামক একটি তারার ছবি উঠেছে, যাকে অপমৃত্যুর আগে নাচতে দেখা গিয়েছে।

Stunning Images Of Universe: মৃত্যু পথযাত্রী এক তারার শেষ নৃত্য! অকল্পনীয় ছবি ধরা পড়ল নাসার জেমস ওয়েব টেলিস্কোপে, দেখুন
ওয়েব টেলিস্কোপ থেকে তোলা মৃত্যু পথযাত্রী নেবুলার ছবি।
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Sayantan Mukherjee

Jul 13, 2022 | 3:35 PM

পৃথিবীর জন্মের আগে কেমন ছিল এই মহাবিশ্ব? তারই ছবি তুলতে নাসা সর্বশক্তিমান টেলিস্কোপ জেমস ওয়েবকে পাঠিয়েছে মহাকাশে। আর সেই জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপ দ্বারা তোলা প্রথম সেটের ছবিটি হোয়াইট হাউস থেকে প্রকাশ করেছিলেন খোদ মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এবার পরবর্তী ছবিগুলি প্রকাশ করা হল নাসার পক্ষ থেকে। সেই ছবিগুলি প্রকাশ করার পর নাসা অ্যাডমিনিস্ট্রেটর বিল নেলসন বলছেন, “প্রতিটি চিত্রই একটি নতুন আবিষ্কার। প্রতিটি ছবিই মানব সভ্যতাকে মহাবিশ্বের এমন একটি দৃশ্য দেখিয়েছে, যা আগে কখনও দেখা যায়নি।”

মঙ্গলবার একটি ছবিতে দূরবর্তী গ্যাস প্ল্যানেটের বায়ুমণ্ডলে জলীয় বাষ্প দেখানো হয়েছে। স্পেকট্রোস্কোপি – আলোর একটি বিশ্লেষণ যা বিশদ তথ্য প্রকাশ করে – WASP-96 b গ্রহের ছিল। 2014 সালে এটি আবিষ্কৃত হয়েছিল। পৃথিবী থেকে প্রায় 1,150 আলোকবর্ষ দূরে WASP-96 b বৃহস্পতির প্রায় অর্ধেক ভর এবং মাত্র 3 থেকে 4 দিনে তার তারার চারপাশে জ়িপ করে। ছবিটি ট্যুইট করে নাসা লিখছে, “প্রথমবারের মতো, আমরা এই এক্সোপ্ল্যানেটের বায়ুমণ্ডলে মেঘের প্রমাণ খুঁজে পেয়েছি।”

নাসার বিজ্ঞানী নিকোল কোলোন এই বিষয়ে বলছেন, “একটি গ্রহ এবং তার বায়ুমণ্ডল যখন তারার সামনে দিয়ে যায় তখন কী ঘটে তার প্রভাব আমরা দেখেছি এই ছবির মধ্যে দিয়ে। তারার আলো বায়ুমণ্ডলের মধ্য দিয়ে ফিল্টার করে এবং আপনি এটিকে আলোর তরঙ্গদৈর্ঘ্যে ভেঙে দিতে পারে।” আরও যোগ করে তিনি বলছেন, “আপনি যেটা দেখতে পাচ্ছেন, তা আসলে ধাক্কা দেওয়া এবং নড়াচড়া করা। এটা আসলে বায়ুমণ্ডলে জলীয় বাষ্পের উপস্থিতি নির্দেশ করে।”

ওয়েব আর একটি অবিশ্বাস্যকর ছবি তুলে নিয়ে এসেছে। তা হল একটি তারার অপমৃত্যুর পূর্ব মুহূর্ত। তারাটির নাম প্ল্যানেটারি নেবুলা এনজিসি 3132। এই তারাটির আরও একটি নাম রয়েছে সাউদার্ন রিং নেবুলা। মহাকাশে এই তারাটির অপমৃত্যু হয়েছে। আর সেই মৃত্যুর আগে শেষ বারের মতো সে যেন উদ্দাম নৃত্যে মেতেছে। সেই ছবিই তুলে নিয়ে এসেছে জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে, মহাকাশে তারা বা নক্ষত্ররা যেখানে স্থির, সেখানে একটা তারা কীভাবে নাচতে পারে? সেই ঘটনাটির ব্যাখ্যাও করেছে নাসা। বলা হচ্ছে, পৃথিবী থেকে প্রায় 2,500 আলোকবর্ষ দূরে এই সাউদার্ন নেবুলার অবস্থান। কিন্তু সেই তারাই ক্রমান্বয়ে ফিকে হতে থেকেছে। জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপ যে ছবিটি তুলেছে, তাতে দেখা গিয়েছে নেবুলার মাঝখান থেকে গ্যাস আর ধোঁয়া ঠিক যেন গোল গোল আকারে বেরিয়ে আসছে। ঠিক যেন মনে হচ্ছে, ধোঁয়ার আংটি তৈরি হয়েছে মহাকাশে। নাসা এই মহাজাগতিক ঘটনাকে বলছে, ‘ডায়িং স্টার্স ফাইনাল ডান্স’ বা মৃত্যু পথযাত্রী এক তারার শেষ নৃত্য।

এই খবরটিও পড়ুন

জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ একটি গ্যালাক্সি ক্লাস্টারের ছবিও তুলেছে। নাসার তরফে এই গ্যালাক্সি ক্লাস্টারের ছবি প্রকাশ করে বলা হচ্ছে, “স্টিফেন্স কুইন্টেটের ঘন ধুলোর মধ্যে উঁকি মারা একটি বিশাল গ্যালাক্সি ক্লাস্টার যাতে বিরাট শকওয়েভ এবং জোয়ারের লেজ দেখা যাচ্ছে। এটি আসলে গ্যালাকটিক বিবর্তনের সামনের সারির আসন।”

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla