‘মাসির বাড়ি বেড়াতে যাবে?’, কিশোরীকে ‘ভুলিয়ে’ ৫০ হাজার টাকায় ‘বিক্রি’!

Crime News: অভিযোগ, এরপর, প্রমীলা ওই কিশোরীকে সোজা বিহারে নিয়ে গিয়ে এক প্রভাবশালী ব্যক্তির কাছে ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি করেন। তারপর, অবশ্য অনেকদিন গ্রামে ফেরেননি প্রমীলা। 

'মাসির বাড়ি বেড়াতে যাবে?', কিশোরীকে 'ভুলিয়ে' ৫০ হাজার টাকায় 'বিক্রি'!
সেই কিশোরী, নিজস্ব চিত্র

জলপাইগুড়ি: ভিনরাজ্যে মাসির বাড়িতে বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার নাম করে এক কিশোরীকে ৫০হাজার টাকায় বিক্রির (Human Trafficking) অভিযোগ উঠল প্রতিবেশী মহিলার বিরুদ্ধে। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ডুয়ার্সের গয়েরকাটায়। অভিযুক্ত মহিলার নাম প্রমীলা রায়। জানা গিয়েছে তিনি গয়েরকাটারই একটি আইসিডিএস সেন্টারের কর্মী। ওই কিশোরীকেও উদ্ধার করা হয়েছে।

ওই কিশোরীর পরিবারের অভিযোগ, মাসখানেক আগে তাঁদের প্রতিবেশী অভিযুক্ত প্রমীলা কিশোরীকে মাসির বাড়ি বেড়াতে নিয়ে যাবেন বলে নিজের কাছে নিয়ে যান। প্রতিবেশী বলে কেউ সন্দেহ করেননি। অভিযোগ, এরপর, প্রমীলা ওই কিশোরীকে সোজা বিহারে নিয়ে গিয়ে এক প্রভাবশালী ব্যক্তির কাছে ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি করেন। তারপর, অবশ্য অনেকদিন গ্রামে ফেরেননি প্রমীলা।

এদিকে দীর্ঘদিন কিশোরীর কোনও খোঁজখবর না পেয়ে তার সন্ধানে বের হয় পরিবারের লোকজন। তখনও প্রমীলার খোঁজ  মেলেনি বলেই অভিযোগ। শেষ পর্যন্ত সন্ধান পেয়ে বিহারের ওই প্রভাবশালী ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগ করতে সক্ষম হয়  কিশোরীর পরিবার। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে সেই কিশোরীকে অবশেষে পরিবারের হাতে তুলে দেয় ওই ব্যক্তি।

কিশোরীর কথায়, “আমায় মাসির বাড়ি বেড়াতে নিয়ে যাবে বলে নিয়ে গিয়েছিল প্রমীলা দিদি। পরে আমায় বিক্রি করে দেয় একটা লোকের কাছে। সেখানে ওই লোকটা আমায় জোর করে নাচাতো। আমি নাচব না বললে মারধর করত। অশালীন আচরণ করত। এরপর আমার মাসি আর জামাইবাবু আমায় ওখান থেকে নিয়ে আসে।”

যদিও, ঘটনায় মূল অভিযুক্ত প্রমীলা রায়ের দাবি, তাঁর তত্‍পরতায় মেয়েটিকে উদ্ধার করা হয়েছে। এখন তাঁকে মিথ্যা ফাঁসানো হচ্ছে বলেই অভিযোগ প্রমীলার। অন্যদিকে, এলাকার পঞ্চায়েত সদস্য গোপাল চক্রবর্তী জানান, অভিযুক্ত প্রমীলা দেবী ওই কিশোরীকে বিহারে বিক্রি করে দেন। খবর পেয়ে তাঁর অনুগামীরাই গিয়ে পুলিশের সঙ্গে কথা বলে কিশোরীকে উদ্ধার করেন এবং প্রমীলাকে গ্রেফতার করা হয়।  ডুয়ার্সের পুলিশ সূ্ত্রে খবর, অভিযুক্ত মহিলাকে আটক করা হয়েছে। শুক্রবার তাঁকে জলপাইগুড়ি জেলা আদালতে তোলা হবে। এর পেছনে কোনও নারীচক্র পাচারের যোগ রয়েছে কি না তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আরও পড়ুন: মাঝসমুদ্রে আচমকা টান, জালে যা উঠল তাতে চক্ষু চড়কগাছ দিঘার মত্‍স্যজীবীদের!

 

 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla