Didir Doot: বারুইপুরে দিদির দূত বিধানসভার স্পিকার, দলীয় কর্মীরা শোনালেন পানীয় জলের সমস্যা

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: অংশুমান গোস্বামী

Updated on: Jan 23, 2023 | 7:28 AM

Biman Banerjee: তৃণমূলকর্মীদের তোলা সমস্যার কথা মেনে নিয়েছেন বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। পানীয় জলের সংকট সমাধানের আশ্বাসও দিয়েছেন তিনি।

Didir Doot: বারুইপুরে দিদির দূত বিধানসভার স্পিকার, দলীয় কর্মীরা শোনালেন পানীয় জলের সমস্যা

বারুইপুর: দিদির সুরক্ষা কবচ কর্মসূচিতে দিদির দূত হিসাবে জেলায় জেলায় উপস্থিত হচ্ছেন তৃণমূলের বিধায়ক-সাংসদরা। জনসংযোগের পাশাপাশি মানুষের অভাব-অভিযোগের কথাও শুনতে হচ্ছে তাঁদের। কোথাও কোথাও বিক্ষোভের মুখেও পড়তে হচ্ছে। এ বার পানীয় জলের সংকট নিয়ে ক্ষোভের মুখে পড়লেন বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। দিদির দূত হয়ে রবিবার বারুইপুর পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত শিখরবালি ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় প্রচারে গিয়েছিলেন বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। এই এলাকা তাঁর বিধানসভা কেন্দ্রের অধীনেই পড়ে। বিধায়কের সঙ্গে রবিবার ছিলেন জেলা পরিষদ সদস্য থেকে গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান ও অন্যান্য জনপ্রতিনিধি থেকে দলের কর্মীরা। চন্দনপুকুর এলাকায় দলের কর্মীরাই বিধায়ক তথা অধ্যক্ষকে হাতের নাগালে পেয়েই অভিযোগ করলেন পানীয় জলের তীব্র সংকটের বিষয়ে।

মূলত ওই এলাকায় থাকা একটি খাল দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে সংস্কার করা হয়নি। ফলে এক দিকে যেমন নিকাশি সমস্যা তেমনি অধিকাংশ টিউবয়েল বিকল হয়ে যাওয়ার কারণেই সেই সমস্ত টিউবয়েল থেকে জল ওঠে না। আর পাইপলাইন দ্বারা আর্সেনিক মুক্ত পানীয় জল পান না এলাকার হাজার হাজার বাসিন্দারা। ওই গ্রাম পঞ্চায়েতের চন্দনপুকুর, দুর্গাপুর, বাগদহ ও ধন্যবেড়িয়া এই চারটি গ্রামের বাসিন্দারা পানীয় জল সংকটে ভুগছেনবলে অভিযোগ। গ্রামবাসীদের আরও অভিযোগ ওখানে মাটি মাফিয়ারা বেআইনিভাবে মাটির গাড়ি চলাচল করার ফলেই রাস্তা প্রতিদিনই ভেঙে যাচ্ছে। এবং সেই অভিযোগ গ্রাম পঞ্চায়েত থেকে শুরু করে বিভিন্ন প্রশাসনিক দপ্তরে জানানো সত্ত্বেও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। সেই অভিযোগই এ দিন পঙ্কজ কুমার পুরকাইত ও সোমনাথ পুরকাইত নামের দুই তৃণমূলকর্মী একেবারে সরাসরি বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রকাশ্যেই জানান।

তৃণমূলকর্মীদের তোলা সমস্যার কথা মেনে নিয়েছেন বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। পানীয় জলের সংকট সমাধানের আশ্বাসও দিয়েছেন তিনি। প্রচুর কাজের মধ্যেও কিছু কাজ বাকি থেকে যায় বলে দাবি তাঁর। এ নিয়ে তিনি বলেছেন, “মানুষের সঙ্গে কথা বলে আমি বুঝেছি মানুষের প্রত্যাশা আছে। সুযোগ সুবিধা অনেক পেয়েছে। কিছু সমস্যা রয়েছে। সব সমস্যার সমাধান হবে। মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী যে প্রকল্পের উদ্বোধন করেছেন, তার কাজ হচ্ছে। সেই কাজ শেষ হলে পানীয় জলের সমস্যাও মিটে যাবে।”

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla