Pakistan PM: পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর কুর্সিতে কে বসছেন? বেনজির সিদ্ধান্ত বিলাওয়াল ও নওয়াজের দলের

US: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সর্বদা পাকিস্তানের পাশে রয়েছে বলে বিবৃতি দিল হোয়াইট হাউস। মার্কিন স্বরাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার। তিনি জানান, "পাকিস্তানের জনগণ যাকেই তাদের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য বেছে নেবে, আমরা সেই সরকারের সঙ্গেই কাজ করব।"

Pakistan PM: পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর কুর্সিতে কে বসছেন? বেনজির সিদ্ধান্ত বিলাওয়াল ও নওয়াজের দলের
বিলাওয়াল ভুট্টো ও নওয়াজ শরিফ। ফাইল ছবি।
Follow Us:
| Updated on: Feb 13, 2024 | 8:39 AM

ইসলামাবাদ: নওয়াজ শরিফ ও বিলাওয়াল ভুট্টোর দলই অবশেষে জোটবদ্ধ হয়ে পাকিস্তানে সরকার গড়তে চলেছে। পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (PML-N) এবং পাকিস্তান পিপলস পার্টি (PPP)-র তরফে জোট সরকার গড়ার বিষয়টি রবিবার চূড়ান্ত হলেও প্রধানমন্ত্রীর কুর্সিতে কে বসবেন, তা নিয়ে জল্পনা চলছিল। নওয়াজ শরিফ এবং বিলওয়াল ভুট্টো- রাজনৈতিক দিক থেকে অভিজ্ঞ দুজনেই এই কুর্সির সমান দাবিদার হয়ে উঠেছিলেন। দীর্ঘ আলোচনার পর অবশেষে জল্পনার অবসান ঘটল। অর্ধেক সময় করে দুই দলের তরফেই প্রধানমন্ত্রী করা হবে বলে সূত্রের খবর। তবে PML-N-এর তরফে প্রধানমন্ত্রীর কুর্সিতে নওয়াজ শরিফ বসবেন নাকি তাঁর ভাই শেহবাজ শরিফ ফিরে আসবেন, তা এখনও দলের তরফে স্পষ্ট করা হয়নি। অন্যদিকে, যে দলই সরকার গড়ুক না কেন, পাকিস্তানের প্রতি পূর্ণ সমর্থন থাকবে বলে জানিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

জানা গিয়েছে, রবিবার লাহোলে বিলওয়ালের বাড়িতে PML-N এবং PPP-র প্রথম বৈঠক হয়। সেই রুদ্ধদ্বার বৈঠকে ছিলেন শাহবাজ শরিফ, আসিফ আলি জারদারি এবং শেহবাজ শরিফ। জোট সরকার গড়ার বিষয়টি নিয়ে তাঁদের মধ্যে দীর্ঘ আলোচনা হয়। কে প্রধানমন্ত্রী হবেন, সে বিষয়েও দীর্ঘ আলোচনা হয়। অবশেষে দুই দলের প্রধানই অর্ধেক সময়ের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কুর্সিতে বসার ব্যাপারে সম্মত হয়েছেন।

এদিকে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সাহায্য নাম করে আদতে পাকিস্তানের নাগরিকদের সাহায্য করছে না বলে ভোটের আগে থেকে অভিযোগ তুলেছিলেন পিটিআই প্রধান ইমরান খান। তবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সর্বদা পাকিস্তানের পাশে রয়েছে বলে বিবৃতি দিল হোয়াইট হাউস। মার্কিন স্বরাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার জানান, “আমি মনে করি না পাকিস্তানে এখনও নতুন সরকার গঠিত হয়েছে। আমি বিশ্বাস করি, সরকার গঠনের বিষয়ে এখনও আলোচনা চলছে। তবে নির্বাচনের আগে আমরা যে বিষয়গুলি বলেছি, সেটা আবার আমরা স্পষ্ট করে বলতে চাই যে, পাকিস্তানের জনগণ যাকেই তাদের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য বেছে নেবে, আমরা সেই সরকারের সঙ্গেই কাজ করব।”

এই খবরটিও পড়ুন

এদিকে, ভোটে রিগিংয়ের অভিযোগ তুলেছে ইমরানের দল পিটিআই। পেশোয়ারে পুনর্নির্বাচনের দাবিতে পেশোয়ার-হাইওয়ে অবরোধও করে তারা। এব্যাপারে মার্কিন মুখপাত্র জানান, ভোটে রিগিং হয়েছে কিনা সে বিষয়ে তদন্ত করা হবে।