Air Condition: ২ টন AC-তে বিদ্যুতের খরচ কত হয় জানেন? বিল কমানোর উপায়গুলো জেনে নিন

Air Condition: এসি কীভাবে ব্যবহার করছেন, সেটাও একটা বিষয়। একটানা ব্যবহার করলে বেশি বিদ্যুৎ খরচ হয়। মাঝে মাঝে বন্ধ করে রাখলে খরচও কমবে। এমনই আরও বেশ কয়েকটি বিষয়ের ওপর নির্ভর করে, কত হতে পারে বিদ্যুতের বিল।

Air Condition: ২ টন AC-তে বিদ্যুতের খরচ কত হয় জানেন? বিল কমানোর উপায়গুলো জেনে নিন
গরমে বাড়ছে এসি-র ব্যবহারImage Credit source: Pixabay
Follow Us:
| Updated on: Apr 21, 2024 | 6:54 PM

কলকাতা: রাজ্যে তাপমাত্রা ৪০-এর ঘর পার করেছে। দুপুরে বাড়ি থেকে বেরনো তো দূরের কথা, ঘরের ভিতরেও টেকা দায় হয়ে উঠেছে। ঘরে ঘরে লাগানো হচ্ছে এসি। কিন্তু এসি লাগালেই তো হল না, বিদ্যুতের খরচও প্রচুর।

একটি ২ টনের এসি-র জন্য এক ঘণ্টায় কত বিদ্যুৎ খরচ হয়, তা নির্ভর করে কয়েকটি বিষয়ের উপর-

১. এসির এনার্জি এফিশিয়েন্ট রেটিং (EER): ইইআর(EER) রেটিং যত বেশি হবে, এসি তত বেশি কার্যকরী হবে এবং কম বিদ্যুৎ খরচ হবে।

২. ঘরের তাপমাত্রা: ঘর গরম হলে, ঠাণ্ডা করতে এসি-র ওপর চাপ পড়ে। তাই সে ক্ষেত্রে বেশি বিদ্যুৎ খরচ হবে।

৩. ঘরের আকার: একটি ছোট ঘর ঠাণ্ডা করতে যত বিদ্যুৎ খরচ হয়, বড় ঘরের ক্ষেত্রে খরচ অনেক বেশি। তাই ঘর বড় হলে বিদ্যুৎও পুড়বে বেশি।

৪. এসি ব্যবহার: এসি কীভাবে ব্যবহার করছেন, সেটাও একটা বিষয়। একটানা ব্যবহার করলে বেশি বিদ্যুৎ খরচ হয়। মাঝে মাঝে বন্ধ করে রাখলে খরচও কমবে।

৫. ভারতে ২ টন AC-র গড় বিদ্যুৎ খরচ ঘণ্টায় ১৫০০ থেকে ২৫০০ ওয়াট। অর্থাৎ এটি এক ঘণ্টায় দেড় থেকে ২ ইউনিট বিদ্যুৎ খরচ করতে পারে।

তাহলে খরচ হবে কত?

১. ১.৫ টন এসি: প্রতি ঘন্টায় ১২০০ থেকে ১৮০০ ওয়াট (প্রতি ঘন্টায় ১.২ থেকে ১.৮ ইউনিট বিদ্যুৎ খরচ হয়)।

২. ২ টন এসি: প্রতি ঘন্টায় ১৫০০ থেকে ২৫০০ ওয়াট (প্রতি ঘন্টায় ১.৫ থেকে ২.৫ ইউনিট বিদ্যুৎ খরচ হয়।)

৩. ৫ টন এসি: প্রতি ঘন্টায় ১৮০০ থেকে ৩০০০ ওয়াট (প্রতি ঘন্টায় ১.৮ থেকে ৩ ইউনিট বিদ্যুৎ খরচ হয়।)

তবে এগুলি একটা আনুমানিক পরিসংখ্যান। উল্লেখ করা বিষয়গুলির উপর নির্ভর করে এসি-র বিদ্যুৎ খরচও পরিবর্তিত হতে পারে।

এসি-র বিদ্যুৎ খরচ কমাতে কী কী ব্যবস্থা নিতে পারেন:

১. ইইআর (EER) রেটিং বেশি আছে, এমন একটি এসি কিনুন।

২. ঘরের তাপমাত্রা ২৪ থেকে ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে রাখুন।

৩. ঘরে না থাকলে এসি বন্ধ করতে ভুলবেন না।

৪. সূর্যের তাপ এড়াতে পর্দা ও জানালা বন্ধ রাখুন। নিয়মিত এসি সার্ভিসিং করান।

এই ব্যবস্থাগুলির মাধ্যমে আপনি আপনার বিদ্যুৎ বিল কমাতে পারেন।