করোনার ঢেউয়ের জের, ফের অপরিবর্তিতই থাকল রেপো রেট

এ দিন রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর শক্তিকান্ত দাশ বলেন, "দেশের করোনা পরিস্থিতির উপর কড়া নজর রাখা হচ্ছে।"

  • TV9 Bangla
  • Published On - 11:03 AM, 7 Apr 2021
করোনার ঢেউয়ের জের, ফের অপরিবর্তিতই থাকল রেপো রেট
আরবিআই গভর্নর শক্তিকান্ত দাশ।

নয়া দিল্লি: দেশে ফের একবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে করোনা সংক্রমণ। তারই প্রভাবে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের রেপো রেট ও রিভার্স রেপো রেট অপরিবর্তিতই থাকল। বুধবার রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর শক্তিকান্ত দাশ ভিডিয়ো কনফারেন্সে জানান, কোভিড পরিস্থিতির কারণেই এই রেট অপরিবর্তিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, “দেশের অর্থনীতি যতদিন করোনাভাইরাসের প্রভাব কাটিয়ে উঠবে না, ততদিন এই সুদের হার অপরিবর্তিতই রাখা হবে।”

সোমবার রিজার্ভ ব্যাঙ্কের ঋণনীতি নিয়ে তিনদিনের বৈঠকে বসে ঋণনীতি কমিটি। সেই বৈঠকেই কমিটির সদস্যরা সকলেই পলিসি রেট অপরিবর্তিত রাখার সপক্ষেই ভোট দেন। এ দিন রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর শক্তিকান্ত দাশ বলেন, “দেশের করোনা পরিস্থিতির উপর কড়া নজর রাখা হচ্ছে। এই পরিস্থিতির উপর নির্ভর করেই দেশের অর্থনীতিতে পরিবর্তন আনা সম্ভব।”

আরবিআই গভর্নর বলেন, “সম্প্রতি ফের একবার করোনা সংক্রমণের বৃদ্ধি এবং বিভিন্ন রাজ্যে করোনা সংক্রান্ত বিধিনিষেধ জারিতে দেশের অভ্যন্তরীণ বৃদ্ধিতেও অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে। এক্ষেত্রে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক বাজারের গতিবিধিতেই সমর্থন জানাবে।”

নতুন অর্থবর্ষে জিডিপি বৃদ্ধি নিয়েও কথা বলেন আরবিআই গভর্নর। তিনি জানান, নতুন অর্থবর্ষে অর্থাৎ ২০২১-২২ অর্থবর্ষে জিডিপির আনুমানিক বৃদ্ধি ১০.৫ শতাংশ হতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে।

২০২০ সালের ২২ মে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক শেষবার রেপো রেটে পরিবর্তন এনেছিল। এরপরই দেশে করোনা সংক্রমণ জাঁকিয়ে বসায় তারপর থেকে রেপো রেট অপরিবর্তিতই রাখা হচ্ছে। বিগত ১৯ বছরে এটিই দেশের সর্বনিম্ন রেট। অন্যদিকে রিভার্স রেপো রেটও ৩.৩৫ শতাংশ অপরিবর্তিত রাখে আরবিআই। আর্থিক ক্ষেত্রে স্থিতিশীলতা না আসা অবধি এই রেটই বজায় রাখা হবে বলে জানানো হয় আরবিআই-র তরফে।

উল্লেখ্য, রিজার্ভ ব্যাঙ্ক যে হারে অন্যান্য ব্যাঙ্ককে ঋণ দেয়, তাকে রেপো রেট বলে। অন্যদিকে, যে সুদের হারে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অন্যান্য় ব্যাঙ্কের কাছ থেকে ঋণ নেয়, তাকে রিভার্স রেপো রেট বলে।

অন্যদিকে, সংক্রমণের কারণে মূল্যবৃদ্ধিরও ইঙ্গিত দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। শক্তিকান্ত দাশ জানান, ২০২০-২১ অর্থবর্ষের চতুর্থ ত্রৈমাসিকে মূল্যবৃদ্ধির হার ছিল ৫ শতাংশ। ২০২১-২২ অর্থবর্ষের প্রথম ও দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে এই হার ৫.২ শতাংশ, তৃতীয় ভাগে ৪.৪ শতাংশ ও চতুর্থ ত্রৈমাসিকে ৫.১ শতাংশে পৌঁছতে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে।  তবে আগামিদিনে বিভিন্ন পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে এই হার পরিবর্তিত হতে পারেও বলে জানান আরবিআই গভর্নর।

আরও পড়ুন: সর্বকালের রেকর্ড, দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা লক্ষাধিক, বাড়ছে মৃত্যুও