‘বাংলায় বিজেপিকে এনেছে তৃণমূল,’ মমতাকে পাল্টা আক্রমণ ওয়াইসির

"উনি নিজেকে বাঘিনী বলে দাবি করে মুসলিমদের নীচে রাখার চেষ্টা করছেন। মমতা যদি বাঘিনী হন, তবে আমিও বাঘ। আমরা খেলতে প্রস্তুত।"

  • TV9 Bangla
  • Published On - 18:45 PM, 8 Apr 2021
'বাংলায় বিজেপিকে এনেছে তৃণমূল,' মমতাকে পাল্টা আক্রমণ ওয়াইসির
ফাইল চিত্র

উত্তর দিনাজপুর: এবার তৃণমূল (TMC) কে বিজেপি (BJP)র ‘বি’ টিম বলে পাল্টা আক্রমণ শানালেন মিম (AIMIM) সুপ্রিমো আসাউদ্দিন ওয়াইসি (Asaduddin Owaisi)। বৃহস্পতিবার ইটাহারের বিধিবাড়ি এলাকায় ইটাহারের মিম প্রার্থী মোফাক্কেরুল ইসলামের সমর্থনে জনসভা করেন আসাউদ্দিন ওয়াইসি। সেখান থেকে রাজ্যের শাসক দলকে আক্রমণ করে তাঁর কটাক্ষ, “তৃণমূল মিমকে বিজেপির ‘বি’ টিম বলছে। অথচ বাংলায় ৮০ শতাংশ মুসলিম পরিবার মাসে পাঁচ হাজার, ৩৮ শতাংশ মুসলিম পরিবার মাসে আড়াই হাজার টাকা করে রোজগার করে। এছাড়া ১৩ শতাংশ মুসলিম বাসিন্দার একশো দিনের কাজের জবকার্ড রয়েছে। তাহলে বলুন, কে বিজেপির ‘বি’ টিম। বিজেপির ‘বি’ টিম তৃণমূলই।”

প্রসঙ্গত, বাংলায় বিজেপিই মিমকে এনেছে বলে একাধিকবার মন্তব্য করতে শোনা গিয়েছে তৃণমূল সুপ্রিমোকে। মমতা (Mamata Banerjee) এও অভিযোগ করেছেন টাকা দিয়ে এই দলকে বাংলার ভোটে নিয়ে আসা হয়েছে। সেই প্রসঙ্গ তুলে তৃণমূল নেত্রীকে আসাউদ্দিনের পাল্টা কটাক্ষ, “আপনি যখন অটল বিহারী বাজপেয়ীর সরকারে ছিলেন তখন কত টাকা নিয়েছিলেন?” তিনি টেনে আনেন নন্দীগ্রাম আন্দোলন প্রসঙ্গও। বলেন, নন্দীগ্রাম আন্দোলনের সময় শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) আমায় নিয়ে গিয়েছিলেন সেখানে, তখন মমতা আমায় থ্যাঙ্ক ইউ বলেছিল। তাহলে নন্দীগ্রাম আন্দোলনের সময় মমতা ব্যানার্জি আপনিই বলুন আমায় কত টাকা দিয়েছিলেন?” এরপর আসকাউদ্দিনের মুখেও ‘ভাইপো’ প্রসঙ্গ উঠে আসে।

মমতার উদ্দেশে তাঁর বার্তা,”মমতা দিদি বলছেন, আমরা নাকি বিজেপির কাছ থেকে টাকা নিয়েছি। কত টাকা নিয়েছি বলুন। যদি বলতে পারেন, তাহলে ৯০ শতাংশ টাকা ভাইপোকে পাঠিয়ে দেব।” পাল্টা তৃণমূল নেত্রীর বিরুদ্ধে বিভাজনের রাজনীতি করার অভিযোগ করে তাঁর কটাক্ষ, এ রাজ্যে সংখ্যালঘুদের ইচ্ছাকৃতভাবে পিছিয়ে রাখা হয়েছে। আসাউদ্দিনের কথায়, “উনি নিজেকে বাঘিনী বলে দাবি করে মুসলিমদের নীচে রাখার চেষ্টা করছেন। মমতা যদি বাঘিনী হন, তবে আমিও বাঘ। আমরা খেলতে প্রস্তুত।”

পাশাপাশি বিজেপি (BJP)কে কটাক্ষ করে আসাউদ্দিন বলেন, “বিজেপি বলছে, বাংলায় বাংলাদেশী ভরে গিয়েছে। তৃণমূলই তো এ রাজ্যে বিজেপিকে ঢুকিয়েছে। মমতাদি তো একসময়ে বিজেপির কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রী ছিলেন। ওঁরা একসঙ্গে চলে।”

আরও পড়ুন: ‘ভোট না দিলে উচ্ছেদ,’ গৌতম দেবের মন্তব্য প্রসঙ্গে রিপোর্ট তলব কমিশনের

বক্তব্য শেষে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তাঁর অভিযোগ, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী সংখ্যালঘুদের পায়ের ফুটবল বানিয়ে ফেলেছেন। যার জবাব মানুষ ভোটে দেবেন। এবারের নির্বাচনে রাজ্যে ৬টি আসনে লড়লেও আগামীতে সংগঠন বৃদ্ধি করে বাংলার ভোটে সক্রিয় অংশ নেবেন বলে জানান মিম প্রধান আসাউদ্দিন ওয়াইসি।