তিন পরিচালক, সত্যজিতের চার গল্পে ‘রে’: ২৫ জুন নেটফ্লিক্স পর্দায়

অভিষেক চৌবে, ভাসান বালা এবং বঙ্গসন্তান সৃজিত মুখোপাধ্যায়। ২৫ জুন নেটফ্লিক্সের উপস্থাপনায় ওটিটি পর্দায় আসতে চলেছে ‘রে’।

তিন পরিচালক, সত্যজিতের চার গল্পে 'রে': ২৫ জুন নেটফ্লিক্স পর্দায়
'রে'

দুটো শব্দই যথেষ্ট। সত্যজিৎ রায়। বাংলা সিনেমার চিত্রপট যিনি বদলে দিয়েছিলেন এখ ঝলকে। শতাব্দীর সেরা ফিল্মমেকার যাঁর দেখানো পথে হেঁটে চলেছেন আজকের বাঙালি পরিচালকরা। তাঁর নামের উইকিপিডিয়া পেজে লেখা, পরিচালক, চিত্রনাট্যকার, ডকুমেন্টারি ফিল্ম মেকার, লেখক, প্রাবন্ধিক, গীতিকার, পত্রিকা সম্পাদক, চিত্রকর, ক্যালিগ্রাফার এবং সুরকার। তাঁর জন্মদিনের একশো বছর পেরনোর পরও আড্ডা থেকে আলোচনায় তাঁর নাম উঠবে না, এ যেন কল্পনাতীত।

 

আরও পড়ুন ‘অ্যারেস্ট রণদীপ হুডা’ টুইটারে ভাইরাল! এর কারণ কী?

 

তাঁকে ঘিরে আজ তিন পরিচালকের সিনেমা উদযাপন। অভিষেক চৌবে, ভাসান বালা এবং বঙ্গসন্তান সৃজিত মুখোপাধ্যায়। ২৫ জুন নেটফ্লিক্সের উপস্থাপনায় ওটিটি পর্দায় আসতে চলেছে ‘রে’। সত্যজিতের ছোট গল্প নিয়ে তৈরি এখ অ্যান্থলজি। সে টিজারই রিলিজ হল আজ। ইউটিউবে টিজারের বিবরণীতে লেখা— ‘সত্যজিৎ রায়ের দূরদর্শীতায় বাঁধা, প্রেম, লালসা, বিশ্বাসঘাতকতা এবং সত্যের চার গল্প’। অনসম্বল কাস্টিংয়ে সাজানো ‘রে’। রয়েছেন মনোজ বাজপেয়ী, গজরাজ রাও, আলি ফজল, শ্বেতা বসু প্রসাদ, অনিন্দিতা বোস, কে কে মেনন, বিদিতা বাগ, দিব্যেন্দু ভট্টাচার্য, হর্ষবর্ধন কাপুর, রাধিকা মদন, চন্দন রায় সান্যাল, আকাঙক্ষা রঞ্জন কাপুর প্রমুখ।

 

 

প্রথম পর্বের নাম ‘হাঙ্গামা হ্যায় কিউ বরপা’, পরিচালনায় অভিষেক চৌবে এবং অভিনয় করেছেন মনোজ বাজপেয়ী ও গজরাজ রাও। দ্বিতীয় এবং তৃতীয়টির পরিচালনায় সৃজিত মুখোপাধ্যায়। ‘ফরগেট মি নট’ এবং ‘বহুরূপিয়া’। ‘ফরগেট মি নট’-এ রয়েছেন আলি ফজল ও শ্বেতা বসু প্রসাদ। ‘বহুপ্রিয়া’-তে রয়েছেন কে কে মেনন এবং বিদিতা বাগ। চতুর্থ পর্বে রয়েছেন হর্ষবর্ধন কাপুর পরিচালনায় রয়েছেন ভাসান বালা। পর্বের নাম ‘স্পটলাইট’।