Extra Marital Affair: রগরগে পরকিয়ায় ‘পথের কাঁটা’ স্বামী, প্রেমিকের সঙ্গে প্ল্যান করে স্ত্রী সেরেও ফেলেছিলেন কাজটা! কিন্তু ২ সপ্তাহ পর…

Crime News: পুলিশ জানিয়েছে, বাস্ত্রালের গ্যালাক্সি কোরাল সোসাইটির বাসিন্দা শৈলেশ প্রজাপতি (৪৩) নিয়মিত প্রাতঃভ্রমণে বেরোতেন। গত ২৪ জুনও মর্নিং ওয়াকে যান।

Extra Marital Affair: রগরগে পরকিয়ায় 'পথের কাঁটা' স্বামী, প্রেমিকের সঙ্গে প্ল্যান করে স্ত্রী সেরেও ফেলেছিলেন কাজটা! কিন্তু ২ সপ্তাহ পর...
স্বামী খুনের অভিযোগে গ্রেফতার স্ত্রী। প্রতীকী চিত্র।
TV9 Bangla Digital

| Edited By: সায়নী জোয়ারদার

Jul 05, 2022 | 9:11 PM

আহমেদাবাদ: পথদুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে স্বামীর। পুলিশি তদন্তে এমনটাই জানিয়েছিলেন স্ত্রী। কিন্তু তথ্যতালাশে নেমে বেশ কিছু অসঙ্গতি নজরে আসে তদন্তকারীদের। তাঁরা বুঝেছিলেন, এই মৃত্যুর পরতে পরতে লুকিয়ে রয়েছে রহস্য। কিন্তু সে রহস্যজাল যে এতটা গভীর, প্রায় ২ সপ্তাহ পর নিহতের স্ত্রীকে গ্রেফতার করতেই দিনের আলোর মতো স্পষ্ট হয়। জানা যায়, এই ঘটনার পিছনে লুকিয়ে স্ত্রীর পরকিয়া। আহমেদাবাদের এই ঘটনা।

পুলিশ জানিয়েছে, বাস্ত্রালের গ্যালাক্সি কোরাল সোসাইটির বাসিন্দা শৈলেশ প্রজাপতি (৪৩) নিয়মিত প্রাতঃভ্রমণে বেরোতেন। গত ২৪ জুনও মর্নিং ওয়াকে যান। সকাল ৬টা নাগাদ বাস্ত্রাল রোডের RAF ক্যাম্পের সামনে একটি সাদা পিকআপ ট্রাক এসে তাঁকে ধাক্কা মারে। মৃত্যু হয় তাঁর। এই ঘটনার দু’সপ্তাহ পর সোমবার গ্রেফতার করা হয় শৈলেশের স্ত্রী সারদা প্রজাপতি (৪০) ওরফে স্বাতীকে। অভিযোগ, স্বাতীর সঙ্গে তাঁর এক বন্ধু নিতিন প্রজাপতির (৪৬) বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক তৈরি হয়। রগরগে সেই সম্পর্কে পথের কাঁটা হয়ে উঠেছিলেন শৈলেশ। এরপরই তাঁরা অভিযোগ, স্বাতী ও তাঁর প্রেমিক ঠিক করেন শৈলেশকে সরাতে হবে। এরপরই শুরু হয় নানা পরিকল্পনা।

সোমবার আহমেদাবাদ পুলিশের ডিটেকশন অব ক্রাইম ব্রাঞ্চ বা ডিসিবি (DCB) স্বাতী ও নিতিন দু’জনকেই গ্রেফতার করেছে। স্বাতীর বিরুদ্ধে স্বামীকে খুনের অভিযোগ করা হয়েছে। পুলিশের মতে, এটা সাধারণ পথদুর্ঘটনা নয়, ‘কনট্র্যাক্ট কিলিং’। পুলিশ সূত্রে খবর, এই ঘটনার জন্য স্বাতী ও নিতিন ১০ লক্ষ টাকা খরচ করেন। ইয়াসিন ওরফে কানিও নামে এক ব্যক্তিকে এই কাজের বরাত দেওয়া হয়েছিল বলেও অভিযোগ উঠেছে। ইয়াসিন আবার গোমতীপুরের বাসিন্দা।

এই খবরটিও পড়ুন

আহমেদাবাদ ডিসিবির এক কর্তা জানান, “এই মৃত্যুর ঘটনায় অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয় ট্র্যাফিক পুলিশ স্টেশনে। যদিও বেশ কিছু ভিডিয়ো আমরা দেখি, যেখানে ওই ট্রাকের গতি সন্দেহজনক ছিল। ওই লোকটির সামনে আসতেই গাড়ির গতি বেড়ে যায়। তদন্তে জানা গিয়েছে সারদা ওরফে স্বাতী ও নিতিন সম্পর্কে রয়েছেন। গত আড়াই বছর ধরে তাঁদের সম্পর্ক চলছে। শৈলেশ তাঁদের মধ্যে বাধা হয়ে উঠেছিল।”

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla