শিবসেনাকে ‘ক্রীতদাসের’ মতো দেখেছে বিজেপি, দাবি সঞ্জয় রাউতের

তাঁর দাবি, ২০১৪ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত শিবসেনাকে 'ক্রীতদাস' বানিয়ে রেখেছিল বিজেপি।

শিবসেনাকে 'ক্রীতদাসের' মতো দেখেছে বিজেপি, দাবি সঞ্জয় রাউতের
ফাইল চিত্র

মুম্বই: কয়েকদিন আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi) সঙ্গে বৈঠক করেছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্য়মন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। বৈঠকের সঙ্গে কোনও রাজনৈতিক সম্পর্ক নেই, এ কথা শিবসেনা জানালেও রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছিল ফের জোটের জল্পনা। মহারাষ্ট্রের শাসক দল সাফ জানিয়েছিল, বিজেপির সঙ্গে দূরত্ব বাড়লেও মোদীর সঙ্গে সম্পর্ক ঠিক আছে। এই আবহেই বিজেপিকে তোপ দাগলেন শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত। তাঁর দাবি, ২০১৪ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত শিবসেনাকে ‘ক্রীতদাস’ বানিয়ে রেখেছিল বিজেপি।

জলগাঁওর একটি সমাবেশে সঞ্জয় রাউত বলেন, “আগের সরকারে শিবসেনাকে ক্রীতদাস বানিয়ে রেখেছিল বিজেপি। গৌণ ভূমিকা দেওয়া হয়েছিল। আমাদের সমর্থনে বিজেপি যে ক্ষমতা পেয়েছিল, তা ব্যবহার করেই দলটাকে শেষ করে দিতে চেয়েছিল তারা।” ২০১৯ সালের নির্বাচনে বিজেপি জোট ছেড়ে জাতীয়তাবাদী কংগ্রেস ও কংগ্রেসের হাত ধরে মহা বিকাশ অঘাদি জো়টে লড়েছিল শিবসেনা। মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন উদ্ধব ঠাকরে।

সম্প্রতি ফের বিজেপির সঙ্গে জোট গড়ার গুঞ্জনের আবহে সঞ্জয়ের দাবি, মহারাষ্ট্রে সেনা মুখ্যমন্ত্রীই চাই। তিনি বলেন, “শিবসৈনিকরা কিছু না পেলেও গর্ব করে বলা যাবে নেতৃত্ব শিবসেনার হাতেই আছে। তাই মহা বিকাশ অঘাদি সরকার হয়েছিল।” এ দিকে বিজেপির সঙ্গে শিবসেনার জোট প্রসঙ্গের মাঝেই এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ারের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোর। স্বভাবতই রাজনৈতিক গুঞ্জন শুরু হয়েছে এ নিয়ে। কারণ, শিবসেনা যদি বিজেপির সঙ্গে জোটে ফিরে যায়, তাহলে এনসিপি জোটের সরকার মহারাষ্ট্রে ক্ষমতাচ্যুত হবে। সে কারণেই শরদ পাওয়ার বৈঠক করেছেন প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে। যদিও মহারাষ্ট্রের এনসিপি মন্ত্রী নবাব মলিক জানিয়েছেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক অভিজ্ঞতা শরদ পাওয়ারকে শুনিয়েছেন পিকে। তিনি কোনওভাবেই এনসিপির স্ট্র্যাটেজিস্ট হচ্ছেন না।

আরও পড়ুন: ভিডিয়ো: ‘ওর ওপর ময়লা ফেল’, মাঝ রাস্তায় বিধায়কের ‘অমানবিক’ নিদান