PM Narendra Modi: ‘ভারতের উন্নতিতে কয়েকজনের কষ্ট হচ্ছে…’, নাম না করে কাকে কটাক্ষ করলেন প্রধানমন্ত্রী?

PM Modi Attacks Rahul Gandhi: কারোর নাম না করেই প্রধানমন্ত্রী মোদী আক্রমণ করে বলেন, "ভারতের গণতন্ত্র ও এর প্রতিষ্ঠানগুলির সাফল্য কয়েকজনকে কষ্ট দিচ্ছে। সেই কারণেই তাঁরা আক্রমণ করছে।

PM Narendra Modi: 'ভারতের উন্নতিতে কয়েকজনের কষ্ট হচ্ছে...', নাম না করে কাকে কটাক্ষ করলেন প্রধানমন্ত্রী?
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।
Follow Us:
| Edited By: | Updated on: Mar 19, 2023 | 7:36 AM

নয়া দিল্লি: “দেশের উন্নতিতে ইর্ষায়িত অনেকে, সেই কারণেই সমালোচনা-আক্রমণ”, শনিবার এই কথা বলেই বিরোধীদের আক্রমণ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM Narendra Modi)। শনিবার একটি সংবাদমাধ্যমের আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। সেখানেই তিনি বলেন, “ভারতের গণতন্ত্র এবং এর প্রতিষ্ঠানের সাফল্য কয়েকজনকে কষ্ট দিচ্ছে। আর সেই কারণেই তারা আক্রমণ করছে”। প্রধানমন্ত্রী কারোর নাম উল্লেখ না করলেও, তিনি যে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী(Rahul Gandhi)-কেই আক্রমণ করেছেন, তা বলার প্রয়োজন রাখে না। সম্প্রতিই লন্ডনের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি অনুষ্ঠানে গিয়ে ভারতের গণতন্ত্র (Democracy) নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন রাহুল গান্ধী। তাঁর ওই মন্তব্য়কে হাতিয়ার করেই সমালোচনায় সরব হয়েছে বিজেপি (BJP)। দিন কয়েক আগেই প্রধানমন্ত্রী মোদী রাহুল গান্ধীর সমালোচনা করেছিলেন। শনিবার নাম না করেই ফের একবার তাঁর সমালোচনায় সরব হলেন প্রধানমন্ত্রী।

শনিবার ইন্ডিয়া টুডে-র কনক্লেভে যোগ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, “যখন দেশ আত্মবিশ্বাসে পরিপূর্ণ এবং বিশ্বের বুদ্ধিজীবীরাও ভারতকে নিয়ে আশাবাদী, সেই সময়ে দেশকে খাটো করে দেখানো এবং দেশের নীতিবোধে আঘাতের মতো ঘটনাও ঘটছে। যখন শুভ কিছু হয়, তখন আমাদের ঐতিহ্য় হল তাতে কালো টিকা লাগানো। তাই যখন দেশে একাধিক শুভ কাজ হচ্ছে, তখন কিছুজন দায়িত্ব নিয়েছেন এই কালো টিকা লাগানোর।”

কারোর নাম না করেই প্রধানমন্ত্রী মোদী আক্রমণ করে বলেন, “ভারতের গণতন্ত্র ও এর প্রতিষ্ঠানগুলির সাফল্য কয়েকজনকে কষ্ট দিচ্ছে। সেই কারণেই তারা আক্রমণ করছে। যতই আঘাত করুক না কেন, আমাদের দেশ এগিয়েই যাবে এবং নিজের লক্ষ্য অর্জন করবে।”
প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, “আগে দুর্নীতির খবর শিরোনামে থাকত। এখন দুর্নীতিগ্রস্থদের হাত মেলানোর খবর শিরোনামে আসে। আজ গোটা বিশ্ব ভারতের অবস্থা নিয়ে প্রশংসা করছে। আর এটা সম্ভব হয়েছে প্রতিশ্রুতি ও পারফরম্যান্সে বদল আনার কারণেই।ভারত গোটা বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে গণতন্ত্র কীভাবে পরিচালন করতে হয়। আজ ভারত বিশ্বের অন্যতম দ্রুততার সঙ্গে বৃদ্ধি পাওয়া অর্থনীতিতে পরিণত হয়েছে। স্মার্টফোনের ডেটা ব্যবহারের দিক থেকেও বিশ্বে এক নম্বর স্থানে রয়েছে ভারত। বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম মোবাইল প্রস্তুতকারক ও তৃতীয় বৃহত্তম স্টার্টআপের বাস্তুতন্ত্র ভারত।”
উল্লেখ্য, সম্প্রতিই কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী ব্রিটেন সফরে গিয়ে ভারতের গণতন্ত্র নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন। তাঁর এই মন্তব্যকে ঘিরেই বিজেপি সরব হয়েছে। সংসদে তাঁকে ক্ষমা চাইতে হবে, এই দাবি জানিয়েছে বিজেপি।