Anurag Thakur: মোদী সরকারের কাছে প্রতিটি জীবন গুরুত্বপূর্ণ: অনুরাগ ঠাকুর

Modi Government: কেবল কাতারে সাজাপ্রাপ্ত নৌ আধিকারিকদের দেশে ফিরিয়ে আনা নয়, যে কোনও দেশে, যে কোনও বিপর্যয়ে সম্মুখীন হওয়া ভারতীয়দের উদ্ধার করতে নরেন্দ্র মোদী সরকার তৎপর ভূমিকা নিয়েছে বলেও উল্লেখ করেন ক্রীড়া ও তথ্য-সম্প্রচার মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। এপ্রসঙ্গে 'অপারেশন গঙ্গা'-র উদাহরণ তুলে ধরেন তিনি।

Anurag Thakur: মোদী সরকারের কাছে প্রতিটি জীবন গুরুত্বপূর্ণ: অনুরাগ ঠাকুর
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। ফাইল ছবি।Image Credit source: TV9 Bangla
Follow Us:
| Updated on: Feb 12, 2024 | 7:52 PM

নয়া দিল্লি: কূটনৈতিক ক্ষেত্রে বড় জয় পেয়েছে ভারত। মৃত্যুদণ্ড সাজাপ্রাপ্ত ভারতের প্রাক্তন ৮ নৌ-আধিকারিককে মুক্তি দিয়েছে কাতার সরকার। এটা কেবল বিদেশের মাটিতে ভারতের জয় নয়, নরেন্দ্র মোদী সরকারের বড় জয় এবং নরেন্দ্র মোদী সরকারের কাছে প্রত্যেকের জীবন গুরুত্বপূর্ণ বলে উল্লেখ করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর।

কাতারে ৮ প্রাক্তন নৌ আধিকারিকের মুক্তি পাওয়া প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর বলেন, “৪৫ দিন আগে তাঁদের সাজা মৃত্যুদণ্ড থেকে কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড করা হয়েছিল। আর এখন আমাদের নৌ আধিকারিকেরা ঘরে ফিরে আসছেন। এর থেকে প্রমাণিত যে, মোদী সরকারের কাছে প্রতিটি জীবন গুরুত্বপূর্ণ।”

এই খবরটিও পড়ুন

কেবল কাতারে সাজাপ্রাপ্ত নৌ আধিকারিকদের দেশে ফিরিয়ে আনা নয়, যে কোনও দেশে, যে কোনও বিপর্যয়ে সম্মুখীন হওয়া ভারতীয়দের উদ্ধার করতে নরেন্দ্র মোদী সরকার তৎপর ভূমিকা নিয়েছে বলেও উল্লেখ করেন ক্রীড়া ও তথ্য-সম্প্রচার মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। এপ্রসঙ্গে ‘অপারেশন গঙ্গা’-র উদাহরণ তুলে ধরে তিনি বলেন, “অপারেশন গঙ্গা-র মাধ্যমে প্রায় ২৭ হাজার ভারতীয় পড়ুয়াকে ইউক্রেন থেকে নিয়ে আসা হয়। যে কোনও যুদ্ধ-বিধ্বস্ত বা দুর্যোগ-বিধ্বস্ত দেশ থেকে ভারতীয় প্রবাসীদের নিরাপদে সরিয়ে আনা হয়েছে, সেটা নেপাল হোক বা আফগানিস্তান হোক।” গত ১০ বছর ধরে এমনই করা হচ্ছে। নাগরিকদের প্রতি নরেন্দ্র মোদী সরকারের এই বিশেষ তৎপরতার মাধ্যমে বিশ্বের কাছে ভারতের মর্যাদা বেড়েছে বলেও মন্তব্য করেন অনুরাগ ঠাকুর।

প্রসঙ্গত, ২০২২ সালে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে ভারতের ৮ প্রাক্তন নৌ আধিকারিককে গ্রেফতার করে কাতার প্রশাসন। তাঁরা সেখানে একটি বেসরকারি সংস্থায় কাজ করতে গিয়েছিলেন। তারপর গত বছরের অক্টোবরে তাঁদের মৃত্যুদণ্ড দেয় কাতার আদালত। এরপর মৃত্যুদণ্ডের সাজা খারিজ করার ব্যাপারে পদক্ষেপ করার জন্য অভিযুক্তদের পরিবার ভারত সরকারের কাছে আবেদন জানায়। তারপর সরকারের তরফে কাতারের প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলা হয়। এরপর কাতার আদালত মৃত্যুদণ্ডের সাজা কমিয়ে তাঁদের কারাদণ্ড দেয়। সেই সাজা কমানোর ব্যাপারেও কূটনৈতিক চেষ্টা চালায় মোদী সরকার। অবশেষে রবিবার জানা যায়, প্রাক্তন ৮ নৌ সেনাকেই মুক্তি দিয়েছে কাতার সরকার।