Video: স্কুটির সঙ্গে বেঁধে রাস্তা দিয়ে টেনে নিয়ে যাওয়া হল যুবককে, কোন অপরাধে এমন ‘শাস্তি’?

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: Amartya Lahiri

Updated on: Oct 17, 2022 | 10:40 PM

Cuttack youth tied to scooter and dragged: ঘটনার একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ভিডিয়োতে ওই যুবককে একটি স্কুটির পিছনে বেঁধে কটক শহরের শেল্টার চক থেকে মিশন রোড পর্যন্ত টেনে নিয়ে যেতে দেখা গিয়েছে।

Video: স্কুটির সঙ্গে বেঁধে রাস্তা দিয়ে টেনে নিয়ে যাওয়া হল যুবককে, কোন অপরাধে এমন 'শাস্তি'?
কটক শহরের শেল্টার চক থেকে মিশন রোড পর্যন্ত টেনে নিয়ে যাওয়া হয় ওই যুবককে

ভুবনেশ্বর: ওড়িশার কটক শহরের ব্যস্ত রাস্তা। অন্যান্য যানবাহনের সঙ্গেই চলেছে একটি স্কুটারও। আর সেই স্কুটারের সঙ্গে দড়ি দিয়ে হাত বাঁধা এক যুবকের। চলন্ত স্কুটারের সঙ্গে তাল মিলিয়ে দৌড়তে হচ্ছে তাঁকে। এরকমই এক ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ভিডিয়োটি নজরে আসতেই, এই বিষয়ে ব্যবস্থা নিয়েছে কটক পুলিশ। সোমবার (১৭ অক্টোবর) এই ঘটনায় জড়িত থাকার দায়ে দুই অভিযুক্তকে আটক করা হয়েছে। পুলিশের দাবি, ধারের টাকা শোধ করতে না পারার কারণেই ওই যুবককে ওই নির্মম ‘শাস্তি’ দেওয়া হয়েছে।

ঘটনার যে ভিডিয়োটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছডিয়ে পড়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে, একটি স্কুটির পিছনে লাল-কালো চেক শার্ট ও জিন্স পরা ওই যুবককে দড়ি দিয়ে বেঁধে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। স্কুটিতে দুই আরোহী রয়েছে। আশপাশ দিয়ে আরও বেশ কয়েকটি গাড়ি-মোটর বাইক যাচ্ছে। সকলেই অবাক হচ্ছেন, কিন্তু কেউই ওই যুবকের সাহায্যে এগিয়ে আসছেন না। ভিডিয়োটি তোলা হয়েছে, স্কুটিটির পিছনে থাকা একটি গাড়ি থেকে। পুলিশ জানিয়েছে, শহরের শেল্টার চক থেকে মিশন রোড পর্যন্ত ওইভাবে টেনে নিয়ে যাওয়া হয় যুবককে।

ঠিক কোন সময়ে ঘটনাটি ঘটেছে, সেই বিষয়ে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে, পুলিশের দাবি, রবিবার ভর সন্ধ্যায় এই ঘটনা ঘটেছে। কটকের ডিসিপি পিনাক মিশ্র জানিয়েছেন, রবিবার রাত ১১টা নাগাদ পুলিশ ঘটনাটি সম্পর্কে জানতে পারে। তিনি বলেছেন, “এটা একটা অত্যন্ত স্পর্শকাতর মামলা। আমি অবিলম্বে সমস্ত থানা এবং এসিপিদের এই ঘঠনার বিষয়ে তদন্ত করতে বলেছি। আজ আমরা অভিযুক্ত ও নির্যাতিতদের শনাক্ত করেছি। অভিযুক্ত দুইজনকে আটক করা হয়েছে।”

পুলিশের প্রাথমিক তদন্ত অনুসারে, নির্যাতিত ওই যুবক এবং অভিযুক্তরা পরস্পর পূর্বপরিচিত। নির্যাতিত যুবক, অভিযুক্তদের কাছ থেকে কিছু টাকা ধার করেছিল। বারবার বলার পরও তিনি ওই ধারের টাকা শোধ করতে পারেননি। এই কারণেই শাস্তি দিতে অভিযুক্তরা তাঁকে, তাদের স্কুটারে বেঁধে বেশ কিছুটা রাস্তা দৌড় করায়। তবে, পুলিশের পক্ষ থেকে অভিযুক্তদের নাম প্রকাশ করা হয়নি। এর আগেও তারা কোনও অপরাধ করেছে কি না, সেই সব বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এই ঘটনার বিষয়ে আরও তদন্তের প্রয়োজন বলে মনে করছে পুলিশ।

তবে, ওড়িশায় এমন ঘটনা এই প্রথম ঘটল, এমনটা নয়। মাত্র কয়েকদিন আগেই রাজ্যের জগৎসিংপুর জেলা এমনই এক নক্কারজনক ঘটনার সাক্ষী হয়েছিল। মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগে, শাস্তি হিসেবে এক ব্যক্তিকে জুতোর মালা পরিয়ে একটি চলন্ত ট্রাকের সামনে বেঁধে ঘোরানো হয়েছিল।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla