Fraud Case: সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজ্ঞাপনের ফাঁদ পেতে লক্ষাধিক টাকা প্রতারণা, ধৃত ৪

Kolkata: সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজ্ঞাপন দিয়ে কোম্পানির ফ্যাঞ্চাইসি দেওয়ার নাম করে কয়েক লক্ষ টাকার প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার হল চার জন।

Fraud Case: সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজ্ঞাপনের ফাঁদ পেতে লক্ষাধিক টাকা প্রতারণা, ধৃত ৪
নেতামন্ত্রিদের নাম করে টাকা হাতানোর অভিযোগ। প্রতীকী চিত্র

কলকাতা: সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজ্ঞাপন দিয়ে কোম্পানির ফ্যাঞ্চাইসি দেওয়ার নাম করে কয়েক লক্ষ টাকার প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার হল চার জন। হাওড়া, লিলুয়া, গোলাবাড়ি থানা এলাকা থেকে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করেছে লেকটাউন থানার পুলিশ। রবিবার বিধান নগর মহকুমা আদালতে পেশ করা হলে অভিযুক্তদের নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার আবেদন করে পুলিশ।

ঠিক কী ঘটেছে?

গত ১০ জুন লেকটাউন পাতিপুকুর এলাকার বাসিন্দা রাহুল ভট্টাচার্য লেকটাউন থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন যে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি বহুল প্রচারিত নামি কোম্পানির ফ্যাঞ্চাইজির বিজ্ঞাপন দেখে তিনি যোগাযোগ করেন। তার পরেই তাঁর কাছ থেকে বেশ কিছু তথ্য চাওয়া হয়। যেমন ব্যাঙ্কের পাসবুকের ফটোকপি থেকে শুরু করে বেশকিছু নথি তাঁদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। তার পরে আবার কিছু টাকাও দাবি করা হয়। বলা হয়, শীঘ্রই তিনি ফ্যাঞ্চাইজি পেয়ে যাবেন। তবে পরবর্তী সময়ে আরও কিছু টাকা দাবি করে বলা হয় সেটা জিএসটির জন্য লাগবে। এই ভাবে রাহুলবাবুর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে আরও বেশ কিছু টাকা উধাও হয়ে যায়।

এরপরেই পুলিশের দ্বারস্থ হন তিনি। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে তাঁর নামে সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাকাউন্ট চেক করে, তারপর টাকা জনৈক দেবনারায়ণ সিংয়ের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করা হয়। জানতে পারে তদন্তকারী আধিকারিকেরা এর পর লেকটাউন থানার পুলিশ দেবনারায়ণ সিং নামে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে। দেবনারায়াণকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পরে আরও তিন ব্যক্তির নাম উঠে আসে।

এরপর শনিবার রাতে হাওড়া থেকে মনু মিশ্র, সুনীল দাস এবং আফতাব আলম নামে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তদন্তে নেমে পুলিশ আরও জানতে পারে অভিযুক্তরা এভাবে অনলাইনে বিভিন্ন বিজ্ঞাপন পোস্ট করত। এবং সেই বিজ্ঞাপনে উৎসাহী হয়ে কেউ যোগাযোগ করলে তাঁদের প্রতারিত করাই ছিল ব্য়বসা!

প্রথমে অ্যাপ্লিকেশন ফিজ় বাবদ ৩৮ হাজার টাকা নেয় তারা বলে অভিযোগ। পরবর্তী সময় ফ্র্যাঞ্চাইজি পেতে গেলে নির্দিষ্ট পরিমাণ জায়গার প্রয়োজন হবে, এবং পর্যাপ্ত জায়গা না থাকলে ফ্র্যাঞ্চাইজি দেওয়া যাবে না, এসব বলা হত। পরে আবার সেই সমস্ত সমস্যার সমাধান করার কথা বলে ঘুরপথে দিতে হবে বলে জানানো হয়। এই ভাবেই সাড়ে পাঁচ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে প্রতারকদের বিরুদ্ধে। পুলিশ এদিন এই অভিযুক্তদের বিধাননগর আদালতে তোলার পর নিজেদের হেফাজতে নিয়ে তদন্ত করার আবেদন জানাবে।

আরও পড়ুন: KMC Election 2021: ‘মিথ্যা প্রচার হয়েছে, তৃণমূলেই আছি,’ ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ডিগবাজি কংগ্রেসের টিকিট পাওয়া পার্থের!

আরও পড়ুন: Dilip Ghosh on Tripura Election: ‘ধার করে নিয়ে গিয়ে কি ওখানে জেতা যায়?’ ত্রিপুরা পুরভোট প্রসঙ্গে তৃণমূলকে কটাক্ষ দিলীপ ঘোষের

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla