Tripura Municipal Election: ‘ত্রিপুরা ভোটের ফলাফলের প্রভাব কলকাতার পুরভোটে পড়বে,’ তৃণমূলকে ‘সান্ত্বনা’ দিলীপ ও সুকান্তের

Tripura: হেস্টিংসের বিজেপি কার্যালয় থেকে দিলীপ ও সুকান্তের কটাক্ষ, অশান্তিকারী দলকে সমর্থন করেনি ত্রিপুরার মানুষ। তাই তাঁদের অভিনন্দন।

Tripura Municipal Election: 'ত্রিপুরা ভোটের ফলাফলের প্রভাব কলকাতার পুরভোটে পড়বে,' তৃণমূলকে 'সান্ত্বনা' দিলীপ ও সুকান্তের
সুকান্ত মজুমদার ও দিলীপ ঘোষ (ফাইল ছবি)

কলকাতা: ত্রিপুরা (Tripura) ১৮৩ আসনে জিতে ক্রমশই ধরা ছোঁয়ার বাইরে বিজেপি, দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে তৃণমূল। আর এই প্রেক্ষিতে রাজ্যের শাসক দলকে খোঁচা দিতে ছাড়লেন না বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার (Sukanta Majumder) ও বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। হেস্টিংসের বিজেপি কার্যালয় থেকে তাঁদের কটাক্ষ, অশান্তিকারী দলকে সমর্থন করেনি ত্রিপুরার মানুষ। তাই তাঁদের অভিনন্দন।

ত্রিপুরার ভোটের ফল নিয়ে দিলীপ ঘোষের প্রতিক্রিয়া, “ত্রিপুরার সমস্ত মানুষকে আমার তরফ থেকে অভিনন্দন। তারা বিজেপিকে সমর্থন করেছে এবং যে দল ওখানে অশান্তি করছিলো তাদের সমর্থন করেনি। তৃণমূল কংগ্রেস একটা সিট পেয়েছে। মানুষ নিরাশ করেনি। ভবিষ্যতে ভাল কাজ করুক তৃণমূল কংগ্রেস।”

তিনি আরও যোগ করেন, “বামেরা প্রচুর দিন ধরে পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতি করেছেন মানুষ যোগ্য উত্তর দিয়েছে। সিপিএম- এর এখন এমএলএ, এমপি কেন নেই পশ্চিমবঙ্গে, কাকে দোষ দেবে? মানুষের সঙ্গে যে রকম ব্যবহার করেছে মানুষও সেই রকম উত্তর দিয়েছে ত্রিপুরায়। ত্রিপুরায় ভোটের প্রভাব এখানে পুরসভা ভোটের উপর কিছুটা হলেও পড়বে।”

তারপর স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে দিলীপের টিপ্পনী, “তৃণমূল কংগ্রেস এখান থেকে প্রচুর নেতা অভিনেতাদের নিয়ে গিয়েছিল ত্রিপুরায়। কিন্তু মানুষই তাদের চোখ বন্ধ করে দিয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে মানুষজন এতদিন ধরে কষ্টের মধ্যে রয়েছে। সেটা ত্রিপুরার মানুষ দেখেছে। তার জন্যই ত্রিপুরার মানুষ যোগ্য জবাব দিয়েছে তৃণমূলকে”।

প্রসঙ্গত, শুধু আমবাসায় খাতা খুলেছে তৃণমূল। তবে ভোট সংখ্যায় তারা বিরোধী দল সিপিএমকে জোর টক্কর দিয়েছে। আর বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের মন্তব্য, “তৃণমূল কংগ্রেস যতই এখান থেকে গুন্ডা-বদমাশ নিয়ে গিয়ে ত্রিপুরায় গন্ডগোল করার চেষ্টা করুক, কিছু মিডিয়ার অংশকে এমনভাবে প্রচার করার চেষ্টা করছে, কিন্তু আমরা আগেই বলেছি. ত্রিপুরা তৃণমূল কংগ্রেস আমাদের অন্যতম বিরোধী নয়। ত্রিপুরার মানুষ বিজেপির সঙ্গে রয়েছে। এই সিদ্ধান্তকে আমরা অভিনন্দন জানাই। গোটা রাজ্যজুড়ে ত্রিপুরাবাসীর জয়কে সেলিব্রেট করব।”

তার পর তিনি অভিযোগ করেন, টাকা দিয়ে ভোটে জিততে গিয়ে ব্যর্থ হয়েছে তৃণমূল। তাঁর কথায়, “তৃণমূল কংগ্রেস একটি আসন পেয়েছে। সান্ত্বনা পুরস্কার পেয়েছে। টাকা দিয়েও কেনার চেষ্টা করেছিল। একটা আসন পেয়েছে (তৃণমূল)। ভাল কথা। তাদের উৎসাহ বাড়বে। আমরা স্বাগত জানাই তৃণমূল কংগ্রেসকে।”

তিনিও দাবি করেন, ত্রিপুরার ভোট কলকাতা পুরসভা ভোটে বিজেপির উপর ‘পজেটিভ প্রভাব’ ফেলবে। পাশাপাশি, তাঁর টিপ্পনী, “সিপিএমের অভিযোগ দেখে লাভ নেই, পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসকে সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার জন্য সিপিএম বলেছিল ‘নো ভোট ফর বিজেপি’। বিজেপির পুরসভা প্রার্থী তালিকা আজকালের মধ্যে প্রকাশ করা হবে। ৩০ তারিখে আমরা নমিনেশন ফাইল করব। এটা আমাদের আগে থেকেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন:All Party Meeting: শীতকালীন অধিবেশনের আগেই আজ সংসদে সর্বদল বৈঠক, থাকবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী 

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla