Weather Forecast: ভবানীপুরে ভোটের দিনও কি ভাসতে চলেছে কলকাতা? কী জানাল হাওয়া অফিস…

Bhawanipore By-Election: ঘূর্ণিঝড় ‘গুলাব’  ছাড়াও সোমবার নাগাদ আরও একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হতে চলেছে পূর্ব মধ্য ও উত্তর পূর্ব বঙ্গোপসাগরে।

Weather Forecast: ভবানীপুরে ভোটের দিনও কি ভাসতে চলেছে কলকাতা? কী জানাল হাওয়া অফিস...
অন্ধ্র প্রদেশে গুলাবের তাণ্ডবের পর। ছবি পিটিআই।

কলকাতা: অন্ধ্র প্রদেশে আছড়ে পড়েছে ঘূর্ণিঝড় গুলাব (Cyclone Gulab)। রবিবার সন্ধ্যা ৬টায় ল্যান্ডফল শুরু হয় অন্ধ্র প্রদেশ ও ওড়িশার উপকূলে। ক্রমেই তা কলিঙ্গপত্তনম ও গোপালপুরে তাণ্ডব চালিয়েছে। প্রতি ঘণ্টায় ঝড়ের গতিবেগ ছিল ১০০ কিলোমিটার। গুলাবের সরাসরি প্রভাব পড়েনি বাংলায় (Weather Update)। তবে মঙ্গলবার দুর্যোগের আশঙ্কা রয়েছে দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে। জোরাল দক্ষিণ পূবালি বাতাসে ভর করে ভারী বৃষ্টির আশঙ্কা বুধবারও। ফের প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা বিভিন্ন জেলায়। ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে চাষেও। আপাতত সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে মৎস্যজীবীদের।

রবিবারই রাজ্যে দুর্যোগ মোকাবিলায় ২৮ কোম্পানি এনডিআরএফ জওয়ান মোতায়েন করা হয়েছে। দুই মেদিনীপুর, দুই ২৪ পরগনাতে মোতায়েন করা হয়েছে এই জওয়ানের দল। কলকাতার জন্য অতিরিক্ত দল আসছে। সোমবার দক্ষিণবঙ্গের সব জেলাতেই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। ভারী বৃষ্টি হতে পারে পূর্ব মেদিনীপুর, দক্ষিণ ২৪ পরগনাতে। মঙ্গলবার দক্ষিণবঙ্গের সব জেলাতেই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হতে পারে।

ঘূর্ণিঝড় ‘গুলাব’  ছাড়াও সোমবার নাগাদ আরও একটি ঘূর্ণাবর্ত তৈরি হতে চলেছে পূর্ব মধ্য ও উত্তর পূর্ব বঙ্গোপসাগরে। ক্রমশ শক্তি বাড়িয়ে সেটি বাংলা ও বাংলাদেশের উপকূলে আছড়ে পড়বে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। সেই মোতাবেক, আগেভাগেই দিঘার সমস্ত হোটেল খালি করার নির্দেশ দিয়েছে জেলা প্রশাসন। এমনকী, পর্যটকদের দিঘা ত্যাগের নির্দেশ দিয়ে মাইকিং করাও শুরু করেছে প্রশাসন।

জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর, হাওয়া অফিসের আগাম সতর্কতা দিঘা থেকে পর্যটকদের ফিরে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি, ফের সমস্ত হোটেল খালি করে বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আশঙ্কা, উপকূলের নিচু এলাকা প্লাবিত হতে পারে।  বাড়বে সমুদ্রের জলোচ্ছ্বাস। পরিস্থিতি বুঝেই এই ব্যবস্থা। ইতিমধ্যেই জেলা জুড়ে বিশেষভাবে তৈরি হয়েছে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। নজরদারির জন্য সর্বত্র লাগানো হয়েছে সিসিটিভি ও রেইন কন্ট্রোল মেশিন। প্রয়োজনে  নবান্নের কন্ট্রোল রুমের সঙ্গে যোগাযোগ রাখতেই এই ব্যবস্থা। জেলার ২৫ টি ব্লকে থাকছে কন্ট্রোল রুম। সমস্ত গ্রাম পঞ্চায়েতে থাকছে পর্যবেক্ষণ দফতর যা এই বিষয়ে নজরদারি চালাবে।

৩০ সেপ্টেম্বর ভোটের দিন কী হবে আবহাওয়া?

মঙ্গলবার ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে কলকাতায়। তবে বুধবার তেমন কোনও পূর্বাভাস এখনও হাওয়া অফিসের তরফে দেওয়া হয়নি। মূলত বজ্র বিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টিপাত হতে পারে পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে। তার পর দিন ৩০ সেপ্টেম্বর অর্থাৎ ভোটের দিন কলকাতায় কোনও রকম সতর্কতা নেই। তবে বর্ষা যেহেতু এখনও সক্রিয়, সেহেতু বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হতে পারে।

দুর্যোগে তৎপর নবান্নের তরফে বলা হয়েছে, মুর্শিদাবাদে নির্বাচনে যাতে কোনও সমস্যা না হয়। ডিসিআরসি সেন্টার থেকে যাতে ট্যাগিংয়ের কোনও সমস্যা না হয়। নির্বাচনী এলাকায় যাতে জল না জমে। পুরসভাগুলিকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একই পদক্ষেপ করা হচ্ছে ভবানীপুরের ক্ষেত্রেও। ভবানীপুরে যাতে জল না জমে, সেক্ষেত্রে এক গুচ্ছ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বালিগঞ্জ ও মোমিনপুর পাম্পিং স্টেশনে নজর দেওয়া হয়েছে। ২ পাম্পিং স্টেশনে বাড়তি লোকের ব্যবস্থা রাখছে পুরসভা। সব বিদ্যুতের পোস্ট যাতে ঢাকা থাকে, সেদিকে খেয়াল রাখতে বলা হয়েছে। কোনও বৈদ্যুতিক তার যাতে খোলা না থাকে, নজর রাখতে হবে সেদিকেও।

আরও পড়ুন: Cyclone Gulab: স্থলভাগে আছড়ে পড়ল গুলাব! শুরু তাণ্ডবলীলা, আগামী ২-৩ ঘণ্টা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ

 

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla