Mahishadal: স্বাধীনতা দিবসের র‍্যালি শেষ হতেই রাস্তার ধারে লুটোচ্ছে মনীষীদের ছবি, নিন্দার ঝড় উঠল মহিষাদলে

15 August: স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান ছিল সোমবার। মহিষাদলের গয়েশ্বরী গার্লস স্কুলের ছাত্রীরা এদিন শোভাযাত্রা করে। তারপরই মনীষীদের ছবি অযত্নে, অবহেলায় রাস্তার ধারে রেখে চলে যায় তারা।

Mahishadal: স্বাধীনতা দিবসের র‍্যালি শেষ হতেই রাস্তার ধারে লুটোচ্ছে মনীষীদের ছবি, নিন্দার ঝড় উঠল মহিষাদলে
এই ছবিগুলি রাস্তার ধারে রাখা ছিল। নিজস্ব চিত্র।
TV9 Bangla Digital

| Edited By: সায়নী জোয়ারদার

Aug 15, 2022 | 10:05 PM

পূর্ব মেদিনীপুর: স্বাধীনতা দিবসে মনীষীদের ছবি নিয়ে শোভাযাত্রায় বেরিয়েছিল স্কুলের পড়ুয়ারা। ছিলেন শিক্ষিকারাও। মুখে দেশভক্তির বাণী, গান। অথচ সেই শোভাযাত্রা শেষ হতে না হতেই রাস্তার ধারে পড়ে থাকতে দেখা গেল মনীষীদের ছবির প্ল্যাকার্ড। এই ঘটনা ঘিরে সোমবার নিন্দার ঝড় ওঠে মহিষাদলে। এলাকার নাম করা স্কুল মহিষাদল গয়েশ্বরী গার্লস। সেই স্কুলের বিরুদ্ধেই এমন অভিযোগ উঠেছে। স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা তা মেনেও নিয়েছেন। তবে তাঁর দাবি, হঠাৎ বৃষ্টি নেমে পড়ায় পড়ুয়াদের স্কুলের পোশাকে ওইসব ছবি থেকে রং লেগে যায়। তারপরই তারা তা রাস্তার ধারে রেখে ছুট লাগায়। যদিও এলাকার শুভবুদ্ধিসম্পন্ন মানুষের দাবি, এই ছাত্রীদের যদি শেখানো হত, এই মনীষীদের ভূমিকা আসলে কী, তা হলে তারা তা কখনওই করতে পারত না।

স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান ছিল সোমবার। মহিষাদলের গয়েশ্বরী গার্লস স্কুলের ছাত্রীরা এদিন শোভাযাত্রা করে। অভিযোগ, তারপরই মনীষীদের ছবি অযত্নে, অবহেলায় রাস্তার ধারে রেখে চলে যায় তারা। ক্ষুদিরাম, সূর্য সেন,রবীন্দ্রনাথ,ঋষি অরবিন্দ, নেতাজির ছবি তখন পথের ধারে রাখা। স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা পারমিতা গিরির যুক্তি, “১৮০০ ছাত্রী এদিনের অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিল। সাড়ে ৮০০র মতো পোস্টার তৈরি করেছিল ওরা। তা নিয়ে বেরোলেও মাঝে বৃষ্টি এসে যায়। যেহেতু এগুলো রং তুলিতে আঁকা ছিল পুরো রংটা ওদের স্কুলের পোশাকে লাগছিল। ছোট ছোট বাচ্চা সব। জামায় রং লেগে যাচ্ছে দেখে নামিয়ে রাখে। আমরা এখনই সেগুলো তুলে নিচ্ছি। ইতিমধ্যে অনেকগুলো তোলাও হয়ে গিয়েছে।”

তবে এলাকার বাসিন্দা পেশায় শিক্ষক রাজর্ষি মাইতির মতে, “ছবিগুলি রাস্তার উপরে ছড়ানো ছিল। ছবিগুলির পিছনে নাম, ক্লাস লেখা ছিল। তাতেই বুঝলাম মহিষাদলের গয়েশ্বরী গার্লসের ছাত্রীদের তৈরি করা প্ল্যাকার্ড। ওরা হাতে করে হয়ত শোভাযাত্রায় নিয়ে এসেছিল। ৭৫ তম স্বাধীনতা দিবসে যাদের সম্মান জানানোর কথা, তাঁদের ছবি রাস্তায় ছড়িয়ে দেওয়া হল। মহিষাদলবাসী হিসাবে আমার খুব লজ্জা করছে। এখানকার নাম করা স্কুল, তারা জানে ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামে মহিষাদলের ভূমিকা, তারপরও তারা এমন ঘটনা ঘটাল।”

প্রাক্তন অধ্যাপক তথা ইতিহাসবিদ হরিপদ মাইতির কথায়, শুধু স্বাধীনতার ৭৫ বছরে নয়, সারা বছরই দেশবাসীর কাছে এই মনীষীরা প্রণম্য, সম্মানীয়। তাঁদের আদর্শকে মাথায় রেখেই দেশবাসীর এগিয়ে চলা। ভারতমাতার এই বীরসন্তানরাই অনুপ্রেরণা। তিনি বলেন, “এই খবরটা শুনে মোটেই ভাল লাগছে না। তবে ছাত্রীদের যতটা না দোষ দেব, শিক্ষিকারা আরেকটু যদি যত্নবান হতেন, তাঁরা যদি ছাত্রীদের ভাল করে পরামর্শ দিতেন, শিখিয়ে দিতেন জাতীয় পতাকা কীভাবে উপরে তুলে ধরতে হয়, এই মনীষীদের ভূমিকা আমাদের জীবনে কী, তা হলে হয়ত এটা ঘটত না। এটা কখনওই সমীচীন নয়।”

এই খবরটিও পড়ুন

আরও পড়ুন: 19,867.8 MHz স্পেকট্রাম অধিগ্রহণ করে ভারতীয়দের জন্য 5G বিপ্লব ঘটাতে চলেছে এয়ারটেল

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla