ফিক্সড ডিপোজিটে টাকা রাখতে পছন্দ করেন? ১ বছরে কোন ব্যাঙ্কে মিলবে সবথেকে বেশি সুদ?

Fixed Deposit: বেশ কয়েকটি ব্যাঙ্ক ২ কোটি টাকা পর্যন্ত আমানতের উপরে এই মুহূর্তে সবথেকে বেশি সুদ দিচ্ছে।

ফিক্সড ডিপোজিটে টাকা রাখতে পছন্দ করেন? ১ বছরে কোন ব্যাঙ্কে মিলবে সবথেকে বেশি সুদ?
প্রতীকী চিত্র

রাহুল চক্রবর্তী: স্বল্প সঞ্চয়ের নিরাপদ লগ্নির গন্তব্য হিসেবে ভারতে ফিক্সড ডিপোজিট (Fixed deposit) সর্বাধিক জনপ্রিয়। এখানে টাকা রাখলে শেয়ার বাজারের ওঠা-নামার সঙ্গে রিটার্নের কোনও পরিবর্তন হয় না। ফলে লগ্নিকারীর আয়ের অঙ্ক নিশ্চিত থাকে। তা ছাড়া সেভিংস অ্যাকাউন্টের তুলনায় ফিক্সড ডিপোজিটে সাধারণত বেশি সুদ পাওয়া যায়। যে কারণে নিজেদের সঞ্চয় লগ্নির ক্ষেত্রে যাঁরা কোনও ধরনের ঝুঁকি নিতে চান না, বিশেষত প্রবীণ নাগরিকরা, তাঁরা ফিক্সড ডিপোজিটের ওপর ভরসা রাখেন।

ব্যাঙ্কে ফিক্সড ডিপোজিট:

বহু নন্-ব্যাঙ্কিং ফাইন্যান্সিয়াল কোম্পানিতে (NBFC) ফিক্সড ডিপোজিটের সুবিধা থাকলেও, ব্যাঙ্কের প্রতিই মধ্যবিত্ত আমআদমির আগ্রহ সবথেকে বেশি। অথচ সেখানেও আজ দুর্দিন। কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউয়ে জনজীবন বিপর্যস্ত। লোকজনের আয় যখন কমছে তখন আবার মাথাচাড়া দিচ্ছে মূল্যবৃদ্ধি। এই প্রতিকূলতার মধ্যে আরও দুঃখজনক হলেও সত্যিটা হল, গত কয়েক মাসে দেশের একাধিক প্রথম সারির জনপ্রিয় ব্যাঙ্ক FD-র সুদে কোপ বসিয়েছে। ফলে লগ্নিকারীদের আয়ের গ্রাফ নিম্নমুখী। তার মধ্যেও কয়েকটি ব্যাঙ্ক এখনও অন্তত বৃহৎ বাণিজ্যিক ব্যাঙ্কের তুলনায় গ্রাহকদের কিছুটা হলেও আকর্ষক সুদ দিচ্ছে। ঘটনাচক্রে এই তালিকার শীর্ষস্থান দখলকারীরা ‘স্মল ফাইন্যান্স ব্যাঙ্ক’ (Small finance bank)।

FD-র জরুরি তথ্য

সাধারণত ব্যাঙ্কে ন্যূনতম ৭ দিন থেকে সর্বোচ্চ ১০ বছর পর্যন্ত মেয়াদের জন্য ফিক্সড ডিপোজিট করা যায়। বিভিন্ন ব্যাঙ্কে সুদের হার বিভিন্ন হয়ে থাকে। আমানতের অঙ্ক ও মেয়াদের ভিত্তিতে বদলে যায় সুদ। ফলে FD থেকে বেশি রিটার্ন পেতে কোন ব্যাঙ্কে কী হারে সুদ দিচ্ছে, তা জানা একান্ত প্রয়োজন। যদি আপনি ১ বছর মেয়াদের জন্য FD করার বিষয়ে মনোস্থির করেন, তবে নিম্নলিখিত ব্যাঙ্কগুলি ২ কোটি টাকা পর্যন্ত আমানতের উপরে এই মুহূর্তে সবথেকে বেশি সুদ দিচ্ছে। এক নজরে দেখে নেওয়া যাক তালিকা:

সর্বোচ্চ সুদ

এই তালিকায় শীর্ষ স্থানে আছে একসঙ্গে তিনটি স্মল ফাইন্যান্স ব্যাঙ্ক। উজ্জীবন, ইএসএএফ এবং সূর্যদয় স্মল ফাইন্যান্স ব্যাঙ্ক বর্তমানে সাধারণ গ্রাহকদের ১ বছর মেয়াদের FD-তে ৬.৫০ শতাংশ হারে সুদ দিচ্ছে তারা। এর মধ্যে উজ্জীবন, ইএসএএফ স্মল ফাইন্যান্স ব্যাঙ্কে প্রবীণ নাগরিকদের ক্ষেত্রে সুদ ০.৫০% বেশি। অর্থাৎ ষাটোর্ধ গ্রাহকরা ১ বছরের মেয়াদের FD-তে ৭% হারে সুদ পাবেন। আর সুর্যোদয় স্মল ফাইন্যান্স ব্যাঙ্কে তা ৬.৭৫% এর পরে আছে উৎকর্ষ ও জনা স্মল ফাইন্যান্স ব্যাঙ্ক। উভয় ব্যাঙ্কই ১ বছরের স্থায়ী আমানতে সাধারণ গ্রাহকদের ৬.২৫% এবং প্রবীণ নাগরিকদের ৬.৭৫% সুদ দিচ্ছে।

স্মল ফাইন্যান্স ব্যাঙ্ক কী?

অন্যান্য বাণিজ্যিক ব্যাঙ্কের মতো স্মল ফাইন্যান্স ব্যাঙ্কগুলিও রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নজরদারীর আওতাধীন। দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির স্বার্থে, বিশেষত ক্ষুদ্র শিল্পসংস্থাগুলিকে সহজে ঋণ পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় সরকারের গাইডলাইন অনুসারে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক এই বিশেষ ধরনের ব্যাঙ্কিং ক্যাটেগরি সৃষ্টি করে। আর পাঁচটা বাণিজ্যিক ব্যাঙ্কের মতো স্মল ফাইন্যান্স ব্যাঙ্কগুলিও গ্রাহকদের বুনিয়াদি ব্যাঙ্কিং পরিষেবা দিয়ে থাকে। বর্তমানে স্মল ফাইন্যান্স ব্যাঙ্কের সংখ্যা ১১টি। আরও পড়ুন: মোদী সরকারের বড় ঘোষণা! মেডিক্যালে ওবিসিদের জন্য ২৭ শতাংশ সংরক্ষণ

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla