সংখ্যালঘুদের উদ্দেশে ভোট-বার্তা দিয়ে বিপাকে মমতা, জবাব চেয়ে নোটিস কমিশনের

মমতার মন্তব্যে নির্বাচনী আদর্শ আচরণবিধি লঙ্ঘিত হয়েছ বলে সেই নোটিসে উল্লেখ করেছে নির্বাচন কমিশন। 

  • TV9 Bangla
  • Published On - 19:57 PM, 7 Apr 2021
সংখ্যালঘুদের উদ্দেশে ভোট-বার্তা দিয়ে বিপাকে মমতা, জবাব চেয়ে নোটিস কমিশনের
অলংকরণ- অভীক দেবনাথ

নয়া দিল্লি: তারকেশ্বরে নির্বাচনী প্রচারে মুসলিমদের উদ্দেশে ভোট-বার্তা দিয়ে বিপাকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিষয়টি নিয়ে বিজেপি অভিযোগ জানানোর পর এ দিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কারণ দর্শানোর নোটিস দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এই নোটিস দিয়ে তাঁর কাছে জবাব জানতে চাওয়া হয়েছে, কেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাম্প্রদায়িক ভিত্তিতে ভোট চেয়েছেন? এই প্রেক্ষিতে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তাঁকে জবাব দিতে বলা হয়েছে। তিনি যদি জবাব না দিতে পারেন সেক্ষেত্রে পদক্ষেপ করা হবে বলেও জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন। মমতার মন্তব্যে ‘নির্বাচনী আদর্শ আচরণবিধি লঙ্ঘিত হয়েছে’ বলে সেই নোটিসে উল্লেখ করেছে নির্বাচন কমিশন।

সংখ্যালঘুু ভোটারদের উদ্দেশে ঠিক কী বলেছিলেন মমতা, যা নিয়ে নোটিস পাঠাল কমিশন? নির্বাচন কমিশনের নোটিসে সেই ব্যাখ্যাও দেওয়া হয়েছে। নোটিসে উল্লেখ অনুযায়ী মমতা তৃতীয় দফার নির্বাচনের আগে তারকেশ্বরের সভায় গিয়ে বলেন, “আমি আমার সংখ্যালঘু ভাইবোনেদের উদ্দেশে হাতজোড় করে আবেদন করছি, একটা শয়তানের কথা শুনে সংখ্যালঘু ভোট ভাগ হতে দেবেন না। ও বিজেপির থেকে টাকা খেয়েছে। ও বহু সাম্প্রদায়িক মন্তব্য করে হিন্দু-মুসলিমের মধ্যে বিভেদ তৈরি করে। সংখ্যালঘু ভোট ভাগ করতে বিজেপি যে টাকা দিয়েছে, তা নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে সিপিএম ও বিজেপির কমরেডরা।” এই ক্ষেত্রে তিনি নাম না করে আব্বাস সিদ্দিকিকেই নিশানায় নেন। মমতার এই মন্তব্যের বিরুদ্ধে আপত্তি তুলেই এই নোটিস দিয়েছে কমিশন। তবে তিনি ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে জবাব না দিতে পারলে কমিশন কঠোর পদক্ষেপ করতে পারে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ।

আরও পড়ুন: ‘আধাসেনা নিয়ে দেশবিরোধী মন্তব্য করেছেন মমতা, এটা মাওবাদীরাই পারে’ কমিশনে বিজেপি

এই নিয়ে মমতাকে পালটা খোঁচা মারতে ছাড়েননি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। মঙ্গলবার কোচবিহারে প্রচারে এসে তিনি বলেন, “দিদি, সম্প্রতি আপনি বললেন মুসলিমদের উচিত এক হয়ে ভোট দেওয়া তাদের তাদের ভোট ভাগ না হয়ে যায়। মানে আপনি বুঝে গিয়েছেন মুসলিম ভোটব্যাঙ্কও আপনার হাত থেকে বেরিয়ে গিয়েছে। মুসলিমরাও আপনার থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে।”

প্রসঙ্গত, গত সোমবার সংখ্যালঘুদের ভোট চাওয়া নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছিল বিজেপি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মুক্তার আব্বাস নকভি কমিশনে গিয়ে নালিশ জানিয়ে বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে ধরনের মন্তব্য করেছেন তাতে তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হওয়া উচিত। সেই অভিযোগের ঠিক দু’দিনের মাথাতেই মমতাকে নোটিস ধরাল কমিশন।

আরও পড়ুন: আধাসেনাকে ‘ঘেরাও’ দাওয়াই মমতার, তুঙ্গে বিতর্ক, তীব্র সমালোচনা বিরোধীদের