Aaliyah Kashyap: ‘নেশাগ্রস্ত’ অবস্থায় ভ্লগ বলি স্টারকিডের, উঠল নানা প্রশ্ন!

কোভিড পরিস্থিতিতে ঘরোয়া ভাবেই জন্মদিন পালক করেছেন আলিয়া। গোটা ঘর সাজানো হয়েছিল বেলুন। আনা হয়েছিল কেক। আয়োজন করা হয়েছিল ঘরোয়া খাবারেরও। উপস্থিত ছিলেন তাঁর প্রেমিকও।

Aaliyah Kashyap: 'নেশাগ্রস্ত' অবস্থায় ভ্লগ বলি স্টারকিডের, উঠল নানা প্রশ্ন!
আলিয়া কাশ্যপ।

মদ্যপ অবস্থায় ভ্লগ বানিয়ে নেটিজেনদের একটা অংশের ‘কাঠগড়া’য় বলি পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপের প্রথম পক্ষের মেয়ে আলিয়া। তাঁর ২১ বছরের জন্মদিনে নেশাগ্রস্ত অবস্থাতেই ইউটিউবে ভিডিয়ো শেয়ার করেছিলেন তিনি। দাবি করেছিলেন, ২১ বছর হয়ে গিয়েছে তাই মদ্যপানে আর আইনি বাধা নেই তাঁর। কিন্তু নীতিপুলিশদের কটাক্ষ জন্মদিনেও পিছু ছাড়ল না তাঁর।

ইউটিউবে নিজস্ব চ্যানেল রয়েছে তাঁর। সেখানেই জন্মদিন উদযাপনের নানা ঝলক শেয়ার করতে দেখা যায় তাঁকে। ভিডিয়োর শুরুতেই তিনি বলে ফেলেন, “আই অ্যাম অ্যা লিল বিট টিপ্সি’, যার বাংলা তর্জমা করলেন দাঁড়ায়, ‘হাল্কা নেশায় রয়েছি আমি’। এরপরেই আলিয়াকে শ্যাম্পেনের বোতল খুলতেও দেখা যায়। তিনি সগর্বে ঘোষণা করেন, এখন থেকেই তিনি অ্যালকোহলের ভিডিয়ো শেয়ার করতে পারেন। শ্যাম্পেনের বোতলে চুমুক দিতে দিতেই তাঁকে বলতে শোনা যায়, “আমার প্রথম আইনি সিপ (চুমুক)”। এই ভিডিয়ো প্রকাশ্যে আসার পরেই নেটিজেনদের বেশ কয়েকজন বলিউডের মাদক যোগ নিয়ে আলিয়াকে কটাক্ষ করেন। ওঠে নানা প্রশ্নও। যদিও আলিয়ার দাবি, আইনের চোখে তিনি অপরাধী নন। বন্ধুদের সঙ্গে ঘরোয়া সেলিব্রেশনে মেতেছেন। আইনের চোখে উপযুক্ত বয়সের পরেই চুমুক দিয়েছেন বোতলে।

কোভিড পরিস্থিতিতে ঘরোয়া ভাবেই জন্মদিন পালক করেছেন আলিয়া। গোটা ঘর সাজানো হয়েছিল বেলুন। আনা হয়েছিল কেক। আয়োজন করা হয়েছিল ঘরোয়া খাবারেরও। উপস্থিত ছিলেন তাঁর প্রেমিকও। আলিয়া জানান, সারা বছর জন্মদিনের জন্য অপেক্ষা করে থাকেন। তাঁর কথায়, “আমি জন্মদিন পালন করতে ভালবাসি। ছয় মাস আগে থেকে গুণতে থাকি কবে আসবে জন্মদিন। একটা গোটা দিন শুধু আমার, এই বা কম কী?”

এমনিতে সোজাসাপটা এই স্টারকিড। পড়েছেন সমালোচনার মুখেও। বাবা অনুরাগ কাশ্যপের সঙ্গেও বেশ ভাল সম্পর্ক আলিয়ার। গত বছর ফাদার্স ডে-তে অনুরাগকে নিয়ে একটি ভিডিয়ো তৈরি করেছিলেন আলিয়া। সেখানে তিনি প্রশ্ন করেন, বিয়ের আগে যৌন সম্পর্ক তৈরি হওয়া কি উচিত বলে মনে করেন অনুরাগ? আলিয়ার এই প্রশ্নের উত্তরে পরিচালক বলেন, “এই প্রশ্নটা আমরা ৮০-র দশকে করতাম। এখন আমরা অনেকটা এগিয়ে গিয়েছি। আমি তো বলব, নিজের শরীর এবং যৌনতা বিষয়টা আগে বুঝতে হবে। চাপে পড়ে কিছু করে ফেলা না জেনে, ঠিক নয়। তবে একটা নির্দিষ্ট বয়সের পর যৌন সম্পর্ক তৈরি হওয়া ভাল। সুরক্ষিত থাকাটা আসল। যখন কেউ মনে করবে, যৌন সম্পর্ক তৈরি করতে চায়, তখন করা উচিত। এটা তো স্পেশ্যাল।”

আলিয়ার প্রশ্ন ছিল, তিনি যদি বাবার কাছে এসে এখন বলেন, তিনি সন্তানসম্ভবা, মেনে নেবেন অনুরাগ? হাসতে হাসতে বাবা জবাব দেন, “আমি প্রথমেই জানতে চাইব, তুমি সন্তান রাখতে চাইবে কি না। তোমার সিদ্ধান্তই শেষ কথা। কারণ যে কাজই করবে, তার ভাল, মন্দের ভাগ তোমারই। বাকি তো শেষ পর্যন্ত আমি তোমার সঙ্গে থাকব, সেটা তুমি জানো।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla